‘নির্বাচনে জনগণের ভোটাধিকার কেড়ে নেয়া হয়েছে’

নিউজচিটাগাং২৪/ এক্স প্রকাশ:| শনিবার, ৫ জানুয়ারি , ২০১৯ সময় ০৩:৩৩ অপরাহ্ণ

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে জনগণের ভোটের অধিকার আবার কেড়ে নেয়া হয়েছে। এ ভোটের অধিকার কেড়ে নেয়ার মধ্য দিয়ে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ এবং বাংলাদেশের প্রশাসন এখন সম্পূর্ণভাবে গণশত্রুতে পরিণত হয়েছে। নোয়াখালীর সুবর্ণচরে যে ঘটনা (এক নারীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ) ঘটেছে, এটা যারা ঘটিয়েছে এবং এর পেছনে যারা রয়েছে তাদের প্রত্যেকের বিচার করতে হবে। দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির ব্যবস্থা করতে হবে। বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর এ কথাগুলো বলেছেন।

শনিবার (০৫ জানুয়ারি) দুপুর ১টায় নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন গণধর্ষিত ওই নারীকে দেখতে গিয়ে এক প্রতিক্রিয়ায় সাংবাদিকদের তিনি এ কথা বলেন।

এ সময় ‘নির্বাচনের নামে দেশে প্রহসন হয়েছে’ উল্লেখ করে মির্জা ফখরুল বলেন, এটা দেশকে গণতন্ত্রহীন এবং অন্ধকার যুগে ফিরিয়ে নিয়ে যাবে।

তিনি আরো বলেন, এটা জনগণের সঙ্গে এক ধরনের প্রতারণা ও প্রহসন। জনগণ তা মেনে নেয়নি ও মেনে নেবেও না। নির্বাচনের আগে ও পরে যে ধরনের নৃশংসতা হয়েছে তা ইতিহাসে বিরল।

উল্লেখ্য, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ভোটের দিন রাতে সুবর্ণচর উপজেলা আওয়ামী লীগের প্রচার সম্পাদক রুহুল আমিনের নেতৃত্বে একদল যুবক ওই নারীর বসতঘরের দরজা ভেঙে ভেতরে ঢুকে তার স্বামী-সন্তানদের অস্ত্রের মুখে হাত-পা বেঁধে ফেলে। পরে ওই নারীকে ঘরের বাইরে এনে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ করা হয়। এ ঘটনার পর গণধর্ষণের শিকার ওই নারীর খোঁজ-খবর নিতে ও তার পরিবারের প্রতি সহমর্মিতা জানাতে আজ শনিবার সকালে নোয়াখালীর উদ্দেশে রওনা দেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরসহ জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের নেতারা। দুপুর সাড়ে ১২টায় নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে পৌঁছান তারা।