নির্বাচনে অনিয়ম হলে জোরদার আন্দোলন

প্রকাশ:| সোমবার, ২৭ এপ্রিল , ২০১৫ সময় ১১:৪১ অপরাহ্ণ

আগামীকাল অনুষ্ঠেয় সিটি করপোরেশ নির্বাচনের ভোটগ্রহণে অনিয়ম হলে জোরদার আন্দোলনের হুমকি দিয়েছে বিএনপি।

সোমবার সন্ধ্যায় নয়পল্টনে বিএনপি কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ এমন হুমকি দেন।

আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সহযোগিতায় নির্বাচন কমিশন নীল নকশার আয়োজন করেছে বলেও অভিযোগ মওদুদের।

তিনি বলেন, ‘সুষ্ঠু নির্বাচন না হলে আওয়ামী লীগ সরকারের অধীনে কখনই বিএনপি নির্বাচনে অংশ নেবে না। আমরা শান্তিপূর্ণ নির্বাচন চাই। সরকারের নীল নকশা বাস্তবায়নে সিটি নির্বাচন সুষ্ঠু হওয়ার পথে বাধা আসলে এর পরিণতি ভালো হবে না। জনগণকে সঙ্গে নিয়ে প্রতিহত করা হবে।’

নির্বাচনে অনিয়মের আশঙ্কা করে তিনি বলেন, ‘যদি আমাদের আশঙ্কা মিথ্যা হয় তাহলে ভালো, আর যদি তা না হয় তাহলে দেখা যাবে এই সরকারের অধীনে আর নির্বাচনে অংশ নেয়া সম্ভব হবে না।’

মওদুদ বলেন, ‘আশা ছিল সরকার সিটি নির্বাচন সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করতে যথাযথ ব্যবস্থা নেবে এবং সব পক্ষকেই সমান সুযোগ দেবে। কিন্তু সেটা হয়নি। নাম-ঠিকানা বিহীন প্রতিষ্ঠানকে নির্বাচন পর্যবেক্ষণ করার অনুমোদন দেয়া হয়েছে।’

বিএনপির এ নেতা বলেন, ‘বিএনপিকে বিরাট প্রতিবন্ধকতা এবং প্রতিকূলতার মধ্যদিয়ে এই নির্বাচনে অংশ নিতে হয়েছে। দক্ষিণ সিটি করপোরশেন থেকে নির্বাচনে মেয়র পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করলেও মির্জা আব্বাস এখনও ভোটারের কাছে যেতে পারেননি। এমনকি ৩৬ জন কাউন্সিলরও নির্বাচনী প্রচারে অংশ নিতে পারেননি। তারা আত্মগোপনে আছেন ‘

বিএনপি সমর্থিত প্রার্থীদের পোলিং এজেন্ট এবং কাউন্সিলর প্রার্থীসহ ঢাকা উত্তর এবং দক্ষিণ থেকে অন্তত একশজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে অভিযোগ করে মওদুদ বলেন, ‘পুলিশের হয়রানির কারণে আমাদের শত শত নেতাকর্মী এ নির্বাচনে সক্রিয়ভাবে অংশ নিতে পারছেন না।’

সংবাদ সম্মেলনে অন্যদের মধ্যে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য আ স ম হান্নান শাহ, বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা অ্যাডভোকেট আহমেদ আযম খান, আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক আসাদুজ্জামান রিপন, সহ-দপ্তর সম্পাদক আসাদুল করিম শাহীন, শামীমুর রহমান, কেন্দ্রীয় নেতা রফিক শিকদার, হেলেন জেরিন খান, শাম্মী আক্তার প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।