নির্বাচনের আগে নেতাকর্মীদের ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহ্বান জানান বিএসসি

প্রকাশ:| সোমবার, ১৫ জুলাই , ২০১৩ সময় ১১:১১ অপরাহ্ণ

ইফতার মাহফিল করেছেন নগরীর কোতয়ালী আসনের আওয়ামী লীগ দলীয় সাংসদ নূরুল ইসলাম বিএসসি। সোমবার নগরীর ifter-bscmpদেওয়ানবাজারে একটি কমিউনিটি সেন্টারে কয়েক হাজার নেতাকর্মীর অংশগ্রহণে এ ইফতার মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়।আওয়ামী লীগ নেতা আব্দুর রহমানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত ওই ইফতার মাহফিলে সিডিএ’র চেয়ারম্যান ও নগর আওয়ামী লীগের অর্থ সম্পাদক আবদুচ ছালাম কাউন্সিলর এফ আই কবির মানিক, গিয়াস উদ্দিন, রেহেনা কবির রানু ও আনজুমান আরা বেগম, সাবেক কাউন্সিলর তারেক সোলায়মান সেলিম, নগর আওয়ামী লীগ নেতা জামশেদুল ইসলাম, মাহবুবুল হক এবং বিভিন্ন থানা ও ওয়ার্ডের সাংসদের পক্ষে থাকা সভাপতি-সাধারণ সম্পাদকরা যোগ দেন।

আমন্ত্রণ জানানো হলেও ওই ইফতার মাহফিলে দেখা যায়নি সাবেক মেয়র এবিএম মহিউদ্দিন চৌধুরী এবং তার অনুসারী কোন নেতাকর্মীকে। প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রী ডা.আফছারুল আমিনও ছিলেন অনুপস্থিত।সাংসদ বিএসসি’র একান্ত সহকারী নিয়াজ মোর্শেদ জানান, এবিএম মহিউদ্দিন চৌধুরীকে আমন্ত্রণ জানানো হলেও তিনি চিকিৎসার জন্য ঢাকায় অবস্থান করায় ইফতার মাহফিলে যেতে পারেননি। অন্যদিকে ডা.আফছারুল আমিনও মন্ত্রণালয়ের কাজে ব্যস্ত থাকায় চট্টগ্রামে আসতে পারেননি।

ইফতার মাহফিলে সাংসদ নূরুল ইসলাম বিএসসি আগামী নির্বাচনের আগে নেতাকর্মীদের ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহ্বান জানান। সাংসদ নূরুল ইসলাম বিএসসি বলেন, ‘পাঁচটি সিটি কর্পোরেশনের নির্বাচনে পরাজিত হওয়ার পর অনেকে হতাশ হয়ে পড়েছেন। আসলে হতাশ হওয়ার কিছু নেই। এগুলো সব খেলা। সিটি কর্পোরেশনে পরাজিত হয়েছি বলে জাতীয় নির্বাচনেও আমরা পরাজিত হব, এটা ভাববেন না। ভবিষ্যতে আরেক খেলা দেখবেন।’

তিনি বলেন, ‘পাঁচ সিটি কর্পোরেশনে আসলে আমরা পরাজিত হয়নাই, আমরা জিতেছি। গণতন্ত্র জিতেছে। শেখ হাসিনার সরকারের অধীনে অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন সম্ভব, এটা আমরা প্রমাণ করতে পেরেছি।’ সিডিএ চেয়ারম্যান আবদুচ ছালাম তার বক্তব্যে বলেন, ‘বর্তমান মহাজোট সরকার ক্ষমতায় আসার পর চট্টগ্রামে চার হাজার কোটি টাকার উন্নয়ন কাজ হয়েছে। এ উন্নয়নের দাবিদার শুধু ডা.আফছারুল ‍আমিন এবং নূরুল ইসলাম বিএসসি। চট্টগ্রামের উন্নয়নে আর কারও কোন অবদান
নেই।’

তিনি বলেন, ‘২০১৪ সালের নির্বাচনে আবারও নূরুল ইসলাম বিএসসিকে সংসদ সদস্য নির্বাচিত করতে হবে। তার কোন বিকল্প নেই।’