নিরাপদ সড়কের দাবীতে মানববন্ধন

প্রকাশ:| সোমবার, ১৯ সেপ্টেম্বর , ২০১৬ সময় ০৮:৫২ অপরাহ্ণ

সড়ক দুর্ঘটনায় মানব বন্ধন

সড়ক দুর্ঘটনায় মেধাবী ছাত্র জাহিন ফাইয়াজ (রায়াত) এর মৃত্যুর প্রতিবাদে ও নিরাপদ সড়কের দাবীতে মানববন্ধন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের ২৩তম ব্যাচের উদ্যোগে গতকাল সোমবার বিকালে দুর্ঘটনাস্থল শিল্পকলা একাডেমির সামনে অনুষ্ঠিত হয়। মানববন্ধনে চট্টগ্রাম কলেজের ৮৭ ব্যাচের ছাত্র-ছাত্রী ও তাদের পরিবারবর্গ, জাহিন ফাইয়াজের বন্ধুমহল ও বিভিন্ন পেশাজীবি সংগঠন অংশ নেয়। উল্লেখ্য ঈদ উল আজহার রাতে চট্টগ্রাম কলেজের রাজনীতি বিজ্ঞান বিভাগের সাবেক অধ্যাপক মরহুম সিরাজুল ইসলামের বড় ছেলে, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের ২৩ তম ব্যাচের লোক প্রশাসন বিভাগের ছাত্র জহিরুল হকের সন্তান ঢাকার আহসান উল্লাহ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের মেধাবী ছাত্র জাহিন ফাইয়াজ চট্টগ্রাম শিল্প কলা একাডেমীর সামনে মর্মান্তিক সড়ক দুর্ঘটনায় মৃত্যু বরণ করে।

মানববন্ধন অনুষ্ঠানে বক্তারা বলেন, অভিভাবকদের অসচেতনতার সুযোগে ধনাঢ্য পরিবারের সন্তানের খেয়ালীপনায় আজ প্রাণ হারাল রায়াত। আর মাত্র কিছুদিন পরেই যে মেধাবী ছাত্রটি দেশ ও জাতিকে পুরোপুরি সেবা দেওয়ার জন্য তৈরী হত অন্যের খামখেয়ালীতে তাকে ঢলে পরতে হল মৃত্যুর কোলে। এ ধরণের সড়ক দুর্ঘটনায় আমরা আর কোন জানমালের ক্ষতি হোক তা চাইনা। এ ব্যাপারে ট্রাফিক বিভাগসহ সকল সংশ্লিষ্ট আইন প্রয়োগকারী সংস্থার কঠোর অবস্থান গ্রহনের পাশাপাশি অভিভাবক শ্রেনীর একান্ত সচেতনতা কামনা করি। বেপোরোয়া গাড়ী চালানোর পাশাপাশি বিকট আওয়াজ করে শব্দ দূষণ করে জনজীবনে ভোগান্তি সৃষ্টি করা ধনাঢ্য পরিবারের সন্তানদের যেন ফ্যাশন হয়ে দাঁড়িয়েছে। এই ফ্যাশন বিকৃত মানসিকতা ছাড়া আর কিছুই নয়। নিরাপদ সড়ক ব্যাবস্থার স্বার্থে এ ধরণের ক্ষতিকর কার্যক্রম বন্ধে সংশ্লিষ্ট সকলকে কঠোর অবস্থান গ্রহন করতে হবে। লাইসেন্সবিহীন চালকদের মোবাইল কোর্ট করে সনাক্ত করে গাড়ী জব্দসহ দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির ব্যবস্থা করতে হবে।।

মানববন্ধনে বক্তরা আরো বলেন, দেশে সড়ক দুর্ঘটনা যে হারে বৃদ্ধি পাচ্ছে তা অত্যন্ত ভয়াবহ ও উদ্বেগ জনক। যে কোন ধরণের সড়ক দুর্ঘটনা রোধে সরকারকে কঠোর ও কার্যকরী ভূমিকা নেয়ার দাবী জানাই। ঈদুল আজহার ছুটিতে গত ১০ দিনে সারাদেশে প্রায় ২০০ জনের সড়ক দুর্ঘটনাজনিত মৃত্যু হয়েছে উল্লেখ করে বক্তরা এর জন্য গাড়ি চালকদের অদক্ষতা, বেপরোয়াভাব, বিআরটিএ-এর দুর্বল তদারকি আর গাড়ির মালিকদের অতি মুনাফাবাদী মানুষিকতাই দায়ি। প্রতি বছর বাংলাদেশে সড়ক দুর্ঘটনার কারণে ১৫০০০ (পনের হাজার কোটি) টাকা আর্থিক ক্ষতি সাধিত হচ্ছে উল্লেখ করে সড়ক দুর্ঘটনা জনিত মৃত্যুর জন্য অপরাধী গাড়ী চালকদের মৃত্যুদন্ডসহ কঠোর শাস্তির বিল সংসদে উত্থাপনের দাবি জানাচ্ছি।

মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন নিরাপদ সড়ক চাই আন্দোলনের চট্টগ্রাম মহানগর কমিটির সভাপতি সাবেক বিজিএমইএ-এর সভাপতি এস.এম আবু তৈয়ব, ২৩তম ব্যাচ পুনর্মিলনী আহবায়ক মানবাধিকার কমিশন চট্টগ্রাম মহানগর কমিটির সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ সিরাজুল ইসলাম কমু, যুব নেতা মাহবুবুল হক সুমন, এস.এম রাশেদুল আলম, সিডিএ বোর্ড সদস্য আ.ন.ম টিপু সুলতান, কাউন্সিলর গিয়াস উদ্দিন, সাবেক পিপি আবুল হাশেম, সিজেকেএস নির্বাহী সদস্য আছলাম মোর্শেদ, জহিরুল ইসলাম বকু, সাংবাদিক নাজিম উদ্দিন শ্যামল, ২৩তম ব্যাচের অধ্যাপক বিচিত্রা সেন, অধ্যাপক রুহি সফদার, অধ্যাপক শেখ মোহাম্মদ বখতিয়ার, তসলিমা খান রোজি, সানিয়াত লুৎফি, সাবেক