নাশকতাকারীদের দুর্গ ছাই ভস্মে পরিণত হবে

প্রকাশ:| বুধবার, ১১ ফেব্রুয়ারি , ২০১৫ সময় ০৭:৩৫ অপরাহ্ণ

চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের নাশকতা ও নৈরাজ্য বিরোধী থানা ভিত্তিক কর্মসূচির অংশ হিসেবে বায়েজিদ থানা আওয়ামী লীগের অক্সিজেন চত্বরে জনসভায় চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি আলহাজ্ব আলতাফ হোসেন চৌধুরী বাচ্চু বলেছেন, বিএনপি-জামাত নাশকতা বন্ধ না করলে আমরা প্রতিদিন কঠোর থেকে কঠোরতর হতে বাধ্য হবো। নাশকতার দুর্গ ছাইভস্ম করতে দ্বিধাগ্রস্ত হবো না। আমরা অস্ত্র ৭১ সালে যুদ্ধ করে দেশ স্বাধীন করেছি। আমরা একাত্তরের আরো বেশি শক্তিশালী। আমাদের সাথে সেনাবাহিনী সীমান্ত রক্ষী বাহিনী, পুলিশ ও আনসার বাহিনী আছে। তাই একাত্তরের পরাজিত শক্তিকে ত্রাসের ঘরে উড়িয়ে দিতে পারি।

তিনি ঘোষণা করেন, যেখানেই বাধা আসবে সেখানে পাল্টা আঘাত হানতে আমরা প্রস্তুত। জনগণের শত্র“দের চরম শাস্তি দিতে যা প্রয়োজন তাই করা হবে। তিনি হুঁশিয়ারি করে বলেন, জঙ্গিবাদ ও নাশকতা আড়াল করার জন্য তথাকথিত শুভ উদ্যোগের কথা বলছেন তারা জনগণের কল্যাণ চায় না। তাদেরকে আগে উদ্যোগ নিতে জঙ্গিবাদ ও নাশকতা প্রতিরোধে।

তিনি দলীয় নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্যে বলেন, যানমাল রক্ষায় পুলিশ বাহিনীর পাশে থাকতে হবে। জনগণকে সাহসী করে তুলতে হবে। এলাকায় সন্দেহভাজন কেউ থাকলে তাকে চ্যালেঞ্জ করতে হবে।

চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব বদিউল আলম বলেন, আমরা ঘরে বসে নেই রাজপথে থেকে জনগণের পাশে আছি। খালেদা জিয়ার সাহস থাকলে প্রাসাদ চক্রান্তের বেড রুম থেকে রাজপথে নামুন। তখন দেখা যাবে জনগণ তাকে চায় কি না।

থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ্ব খলিলুর রহমানের সভাপতিত্বে সাধারণ সম্পাদক শফিউল আলম ছগীরের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত সমাবেশে বক্তব্য রাখেন-১৪ দলের মাওলানা নজরুল ইসলাম আশরাফী, মহানগর আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা আলহাজ্ব সফর আলী, সম্পাদক মন্ডলীর সদস্য নোমান আল মাহমুদ, এডভোকেট শেখ ইফতেখার সাইমুন চৌধুরী, মশিউর রহমান চৌধুরী, কার্যনির্বাহী সদস্য গাজী শফিউল আজিম, জাফর আলম চৌধুরী, মোহব্বত আলী খান, থানা আওয়ামী লীগের আলহাজ্ব আবদুল নবী লেদু, সামশুল আলম, জলিলুর রহমান, জাহাঙ্গীর আলম সর্দ্দার, আবদুল মালেক, আবদুর সাকুর ফারুকী, আবদুল মান্নান, এ.কে.এম. হারুন, জামাল উদ্দিন, কাজী আবদুল মালেক, লোকমান হাকিম কুতুবী, আবদুর রহিম, নাছির তালুকদার, হাজী মো: ইব্রাহিম, সাইফুল ইসলাম, হুমায়ুন আলম মুন্না, নগর ছাত্রলীগের জাকারিয়া দস্তগীর, সাইফুল ইসলাম, সেলিম উদ্দিন জয়, আবু তৈয়ব, এম.আর.এ. হৃদয়, কামাল উদ্দিন সায়েম, হাজী নাছির উদ্দিন, আতিকুর রহমান, মাহফুজ, হান্নান সরকার, রাশেদ প্রমুখ।