নাফনদী থেকে পৌণে ৩ কোটি টাকা মুল্যের কাপড়সহ ট্রলার জব্দ

প্রকাশ:| রবিবার, ২২ ফেব্রুয়ারি , ২০১৫ সময় ১০:২৩ অপরাহ্ণ

টেকনাফ প্রতিনিধি: নাফনদী থেকে পৌণে ৩ কোটি টাকা মুল্যের কাপড়সহ ট্রলার জব্দভুয়া কাগজপত্র দেখিয়ে টেকনাফ স্থলবন্দর থেকে মিয়ানমারে পাচারকালে নাফনদী থেকে দুই কোটি ৭১ লাখ ৬৭ হাজার টাকা মুল্যের বিভিন্ন প্রকার কাপড়সহ একটি ট্রলার জব্দ করেছে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি)।

সংশ্লিষ্ট সুত্রে জানা গেছে, শুক্রবার ২০ ফেব্রুয়ারী বিকাল সাড়ে পাচঁ ঘটিকার সময় ভুয়া কাগজ ব্যবহার করে সরকারী কর ফাঁকি দিয়ে টেকনাফ স্থলবন্দর থেকে মিয়ানমারে কাপড় পাচারের গোপন সংবাদ পেয়ে টেকনাফ সদর বিওপির সুবেদার ফজলুর রহমানের নেতৃত্বে বিজিবির সদস্যরা নাফনদীর নাইট্যংপাড়া সংলগ্ন টেকনাফ স্থল বন্দর হতে মিয়ানমারে নিয়ে যাওয়ার সময় ট্রলারে তল্লাশি চালিয়ে বিপুল পরিমান গেঞ্জি ও ৮ টি গাজী ট্যাংক উদ্ধার করা হয়। যার মুল্য দুই কোটি ৭১ লাখ ৬৭ হাজার টাকার বলে জানায় বিজিবি। জব্দকৃত কাপড় টেকনাফ শুল্ক গুদামে হস্তান্তর করা হয়েছে।

জানা যায়, টেকনাফ পৌরসভার উপরের বাজার ও লামার বাজারের আমান ও তার ভাই এনাম সওদাগর, প্রদীপ, সজীব, মো. জসিম ও উসমান সওদাগরের নেতত্বে একটি সিন্ডিকেট দীর্ঘদিন ধরে স্থলবন্দর দিয়ে রাজস্বের তালিকায় নেই এমন বিভিন্ন দেশের কাপড় ট্রাক ভর্তি করে এনে বাংলাদেশের কাপড় বলে জাল কাগজ বানিয়ে কিছু দূর্নীতিবাজ কর্মকর্তার সহযোগীতায় মিয়ানমারের পাচার করে কোটি টাকার মালিক হয়েছেন। বিজিবি ইতিপুর্বে একাধিকবার কাপড় জব্দ করলেও মালিকের বিরুদ্ধে মামলা না হওয়ায় চোরাকারবারিরা বেপরোয়া হয়ে পাচার কাজ চালিয়ে যাচ্ছে। তাদেরকে আইনের আওতায় আনা না হলে অবৈধভাবে পাচার কাজ বন্ধ হবে না।

টেকনাফ ৪২ ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লে.কর্নেল আবু জার আল জাহিদ জানান- নাফনদীতে অভিযান চালিয়ে দুই কোটি ৭১ লাখ টাকা মুল্যের অবৈধ বিভিন্ন কাপড় জব্দ করে এবং কাপড়গুলো শুল্ক গুদামে জমা দেওয়া হয়েছে।