নাছিরের সমর্থনে হাসনাত আবদুল্লাহ‘র গণসংযোগ

প্রকাশ:| মঙ্গলবার, ২১ এপ্রিল , ২০১৫ সময় ০৯:৪০ অপরাহ্ণ

নাছিরের সমর্থনে হাসনাত আবদুল্লাহ‘র গণসংযোগবাংলাদেশ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় নির্বাহী সদস্য ও সাবেক চীপ হুইপ আবুল হাসনাত আবদুল্লাহ এম.পি বলেছেন, গণতন্ত্রকে সুসঙ্গত করার জন্য তিনটি সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনকে গ্রহণযোগ্য গড়ে তুলতে বর্তমান সরকার সর্বাত্মকভাবে প্রচেষ্টা অব্যাহত রেখেছে। এর পরও যদি নির্বাচনী ফলাফল নিয়ে কেউ প্রশ্ন তোলেন তাহলে তা হবে গণতন্ত্রের প্রতি অশ্রদ্ধার বহি:প্রকাশ। তিনি আরো বলেন, যুদ্ধাপরাধীদের রক্ষায় ৯১ দিনে ‘অবরুদ্ধ’ নাটক সাজিয়ে পেট্রোল বোমায় দেড়শ জন মানুষকে হত্যা করে বেগম জিয়া রাস্তায় নেমে ভোট চাওয়ার অধিকার হাস্যকর। এই অপরাধে তিনি সঙ্গত কারণেই জনরোষানলের শিকার হতে বাধ্য, এটাই তার নিয়তি। চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে নাগরিক কমিটির মনোনীত প্রার্থী আ.জ.ম নাছির উদ্দিনের সমর্থনে আজ বিকেলে নগরীর কাঠগড় মোড় ও ই.পি.জেড মোড়ে অনুষ্ঠিত দুটি পথসভা এবং গণসংযোগকালে এলাকাবাসীর উদ্দেশ্যে তিনি একথা বলেন। তিনি আরো বলেন, প্রাচ্যের রাণী এই নগরীর ১৭ বছর ধরে মেয়র থাকাকালীন সময়ে এ.বি.এম. মহিউদ্দিন চৌধুরী চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনকে উন্নয়ন, সেবা ও অগ্রগতির মডেল হিসেবে পরিণত করেছিলেন। দেশ-বিদেশে শিক্ষা, স্বাস্থ্য সহ অন্যান্য খাতে সিটি কর্পোরেশনের সাফল্য ও কীর্তি প্রশংসিত হয়েছে। অথচ বিগত ৫ বছরে এই সুনাম ও প্রাপ্তিকে একজন অতর্ব মেয়র ধুলায় মিশিয়ে দিয়েছেন। চট্টগ্রাম নগর এখন সামান্য পানিতে কোমর পর্যন্ত ডুবে যায়। রাস্তাঘাট আবর্জনার ভাগাড়ে পরিণত হয়েছে। কর্পোরেশনের আয়বদ্ধক প্রকল্পগুলো বন্ধ হয়ে গেছে। এ থেকে পরিত্রাণ পেতে হলে এমন একজন মেয়রকে বেছে নিতে হবে যার মেরুদন্ড সোজা এবং কেন্দ্র থেকে আদায় করে নেয়ার ক্ষমতা রাখেন। আমি নাগরিক কমিটির মনোনীত প্রার্থী আ.জ.ম নাছিরের মধ্যে সেই যোগ্যতা ও দক্ষতাকে দেখতে পাই। আমি কথা দিচ্ছি আ.জ.ম নাছির উদ্দীন মেয়র নির্বাচিত হলে তিনি অবশ্যই চট্টগ্রামকে জলাবদ্ধতামুক্ত আন্তর্জাতিকমানের মেগাসিটিতে পরিণত করবেন।
নাগরিক কমিটির সদস্য সচিব ও চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি সাবেক সিটি মেয়র আলহাজ্ব এ.বি.এম. মহিউদ্দিন চৌধুরী বলেছেন, চট্টগ্রাম বিদ্বেষী একটি চক্র নানাভাবে উন্নয়ন, অগ্রগতি ও সমৃদ্ধিকে বাধাগ্রস্ত করছে। চট্টগ্রাম নগরকে নিয়ে আমার অনেক স্বপ্ন ও প্রত্যাশা রয়েছে। এই স্বপ্ন ও প্রত্যাশা পূরণে আ.জ.ম নাছির উদ্দিন আমার যোগ্য উত্তরসূরী। তিনি মেয়র নির্বাচিত হলে আমরা একসাথে মিলেমিশে এই নগরীকে নগরবাসীর বাসযোগ্য গড়ে তোলা শুধু নয়-একটি শান্তি, সম্প্রীতিময় এবং সৃজনশীল উৎপাদনক্ষম মেগাসিটিতে পরিণত করবই। তিনি নেতাকর্মীদের প্রতি ভোটারদের ঘরে ঘরে এই বার্তা পৌঁছে দেয়ার আহ্বান জানান।
এসময় উপস্থিত ছিলেন- চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি এডভোকেট সুনীল কুমার সরকার, কার্যনির্বাহী সদস্য কামরুল হাসান বুলু, রোটারিয়ান মো: ইলিয়াছ, ই.পি.জেড থানা থানা আওয়ামী লীগের হারুনুর রশিদ, আবু জাফর, পতেঙ্গা থানা আওয়ামী লীগের আবদুল হালিম, এ. এস.এম. ইসলাম, ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের আবদুল বারেক, শফিউল আলম, জয়নাল আবেদীন আজাদ, নুরুল আলম, মহানগর যুবলীগের আহ্বায়ক মহিউদ্দিন বাচ্চু, যুগ্ম আহ্বায়ক দেলোয়ার হোসেন খোকা, ফরিদ মাহমুদ, ৩৯নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থী জিয়াউল হক সুমন, যুবলীগের হেলাল উদ্দিন, ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের মোহাম্মদ আলী, হাজী ওমর ফারুক, মহানগর ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক নুরুল আজিম রনি সহ থানা, ওয়ার্ড আওয়ামী লীগসহ সহযোগি সংগঠনের অসংখ্য নেতাকর্মী উপস্থিত ছিলেন।
আজ সকাল ১০টায় ২৩নং পাঠানটুলী ওয়ার্ডে নাগরিক কমিটি মনোনীত ও ১৪ দল সমর্থিত মেয়র প্রার্থী আ.জ.ম নাছির উদ্দিনের সমর্থনে ১৪ দলের সমন্বয়ক ও চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি সাবেক সিটি মেয়র আলহাজ্ব এ.বি.এম. মহিউদ্দিন চৌধুরী’র নেতৃত্বে গণসংযোগ ও ওয়ার্ডের বিভিন্ন পয়েন্টে পথসভা অনুষ্ঠিত হয়। এসময় এলাকাবাসী স্বার্থে শেখ হাসিনার আস্থাভাজন আ.জ.ম নাছিরকে হাতি মার্কায় ভোট দিয়ে নগরবাসীর সেবা এবং প্রাপ্য সুযোগ-সুবিধা নিশ্চিত করতে উদাত্ত আহ্বান জানানো হয়। এসময় উপস্থিত ছিলেন জসিম উদ্দিন বাবুল, ওয়ার্কার্স পার্টির শামসুদ্দিন খালেদ সেলিম, গণআজাদী লীগের নজরুল ইসলাম আশরাফী, ন্যাপের তাজের মল্লিুক, মিঠুন দাশগুপ্ত, মহানগর আওয়ামী লীগের হাজী দোস্ত মোহাম্মদ, কাউন্সিলর প্রার্থী মো: জাবেদ, আবদুল হান্নান, ইদ্রিছ কাজেমী, হাজী মো: ইব্রাহিম, বিনোদ বিহারী মজুমদার প্রমুখ। এছাড়া আগামীকাল নাগরিক কমিটি মনোনীত মেয়র প্রার্থী আ.জ.ম. নাছির উদ্দিনের সমর্থনে পথসভা অনুষ্ঠিত হবে। বিকাল ৫ টায় কালামিয়া চত্বরে ও সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় বলিরহাট মোড়ে। এতে উপস্থিত থাকবেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সদস্য আবুল হাসনাত আবদুল্লাহ এম.পি, নাগরিক কমিটির চেয়ারম্যান সাবেক সংসদ মোহাম্মদ ইছহাক মিয়া ও চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি নাগরিক কমিটির সদস্য সচিব এ.বি.এম. মহিউদ্দিন চৌধুরীসহ নাগরিক কমিটির নেতৃবৃন্দ।