নতুন সেবা চালু করেছে মিডল্যান্ড ব্যাংক

প্রকাশ:| শুক্রবার, ২৭ ফেব্রুয়ারি , ২০১৫ সময় ০৯:১৭ অপরাহ্ণ

Captureনতুন পাঁচটি ডিপোজিট পণ্য ও ভিসা ব্র্যান্ডেড ক্রেডিট কার্ড পণ্যসেবা চালু করেছে মিডল্যান্ড ব্যাংক।

গুলশানে মিডল্যান্ড ব্যাংকের প্রধান কার্যালয়ে এসব পণ্যসেবা উদ্বোধন করেন ব্যাংকটির ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) মো. আহসান-উজ জামান।

পণ্যগুলো হলো, এমডিবি স্কুল সেভার, এমডিবি কলেজ সেভার, এমডিবি সুপার সেভার, এমডিবি গিফট চেক, এমডিবি প্রবাসী সেভিংস ও ক্রেডিট কার্ড।

নতুন এসব পণ্যসেবা উদ্বোধনকালে এমডি বলেন, আমরা ব্যাংকিং খাতে একেবারেই নতুন। নতুন নয়টি ব্যাংকের মধ্যে আমরা অন্যতম। তাই আমরা গ্রাহকদের সর্বোচ্চ সেবা দেওয়ার চেষ্টা করে যাচ্ছি। আমরা ইতিমধ্যে গ্রাহকদের বিভিন্ন সেবা দিয়ে আসছি। তবে তাদের আরো উন্নত সেবা দেওয়ার জন্য আমরা এ নতুন পণ্যগুলো চালু করতে যাচ্ছি।

তিনি বলেন, আমরা চাই গ্রাহকরা জীবন যাপনের যে পর্যায়েই থাকুক না কেন, তারা যেন ব্যাংকিং সেবার আওতায় আসে। তাই জন্মের পর থেকে বড় হওয়া, স্কুল জীবন, কলেজ জীবন, কর্মজীবনের প্রতি দৃষ্টি রেখে আমরা এসব পণ্যসেবা চালু করছি।

এ সময় তাদের পণ্যসেবাগুলোর বিষয়ে সবিস্তারে ব্যাখ্যা করেন ব্যাংকটির এমডি-

এমডিবি স্কুল সেভার : দেশের ছাত্র-ছাত্রীদের ব্যাংকের আওতায় আনার জন্য আমরা স্কুল সেভার নামের একটি ডিপোজিট পণ্য চালু করছি। যাতে জীবনের শুরুতেই ছাত্র-ছাত্রীদের মাঝে সঞ্চয়ের প্রবণতা গড়ে ওঠে। তবে ছাত্র-ছাত্রীরা এ হিসাব নিজে খুলতে পারবে না। অবিভাবকদের সঙ্গে নিয়ে তারা এ সেবা চালু করতে পারবে। এ পণ্যসেবার সবচেয়ে বড় বৈশিষ্ট্য হলো, ছাত্র-ছাত্রীদের বিনামূল্যে একটি ডেভিট কার্ড দেওয়া হবে। যতদিন তাদের স্কুল জীবন থাকবে, তারা এটা ফ্রি ব্যবহার করতে পারবে। এমনকি হিসাব রক্ষাণাবেক্ষণেও তাদের কোনো চার্জ দিতে হবে না।

এমডিবি কলেজ সেভার: ছাত্র-ছাত্রীরা কলেজে উঠলে তাদের অর্থিক আওতা কিছুটা বাড়ে। তাই এ পণ্যসেবাও স্কুল সেভারের মতো সুবিধা দেওয়া হবে। তবে এ পণ্য ব্যবহারকারীদের অতিরিক্ত হিসেবে ফ্রি ইন্টারনেট ব্যাংকিংয়ের সুবিধা দেওয়া হবে। এছাড়া প্রতি লেনদেনে ফ্রি এসএমএস অ্যালার্ট দেওয়া হবে। এ পণ্যসেবার অন্যতম উদ্দেশ্য গ্রাহকরা যাতে পকেটে টাকা না রেখে ব্যাংকে রাখে।

এমডিবি সুপার সেভার: এ হিসাব টাকা আমানত রাখার জন্য। তবে কমপক্ষে ১০ হাজার টাকা জমা দিয়ে এ হিসাব খুলতে হবে। ১০ হাজার টাকায় কোনো সুদ দেওয়া না হলেও ১৫ হাজার থেকে এক লাখ টাকা পর্যন্ত জমা রাখলে ৬.২৫ শতাংশ হারে সুদ দেওয়া হবে। এছাড়া এক লাখ থেকে ৫ লাখ টাকার ক্ষেত্রে ৬.৫ শতাংশ, ৫ লাখ থেকে ১০ লাখ টাকার ক্ষেত্রে ৭.২৫ শতাংশ এবং ১০ লাখের বেশি টাকা জমা রাখলে ৭.৭৫ শতাংশ হারে সুদ দেওয়া হবে। এ হিসাবে গ্রহকরা মাসে ১০ বার টাকা উত্তোলন করতে পারবে। প্রতিদিনের সুদ হিসাব করে তা প্রতিমাসে পরিশোধ করা হবে। তাছাড়া এ হিসাবের গ্রাহকরা যে ডেভিট কার্ড পাবেন তা প্রথম বছর ফ্রি ব্যবহার করতে পারবেন।

এমডিবি গিফট চেক: এ পণ্যটি এক ধরনের স্থায়ী আমানতের মতো। তবে এখানে ১০ হাজার টাকা পর্যন্ত গ্রাহককে কেওয়াইসি তথ্য দেওয়া লাগবে না। সর্বনিম্ন ৫০০ টাকার গিফট চেক কিনতে পারবেন গ্রাহক। এছাড়া এক হাজার ও পাঁচ হাজার টাকার গিফট চেক ক্রয় করা যাবে। এ পণ্যসেবার বৈশিষ্ট্য হলো পণ্যটি ক্রয় করার তিন মাসের মধ্যে ক্যাশ করলে কোনো সুদ দেওয়া হবে না। তবে ৩ মাস থেকে ৬ মাসের মধ্যে ক্যাশ করলে ৭ শতাংশ, ৬ মাস থেকে এক বছর রাখলে ৮ শতাংশ, এক বছর থেকে দুই বছর রাখলে ৯ শতাংশ হারে সুদ দেওয়া হবে।

এমডিবি প্রবাসী সেভিংস: বিশ্বের বিভিন্ন দেশে থাকা প্রবাসীদের কথা চিন্তা করে এ পণ্যসেবাটি চালু করছে মিডল্যান্ড ব্যাংক। এর বৈশিষ্ট্য হলো, এ পণ্যসেবার আওতায় অন্য সব ব্যাংকের চেয়ে বেশি সুদ দেওয়া হবে।

ক্রেডিট কার্ড: ক্রেডিট কার্ডের মাধ্যমে গ্রাহকরা যে কোনো এটিএম বুথ থেকে টাকা তুলতে পারবেন। ভিসার সঙ্গে অংশীদারিত্ব থাকায় কেনাকাটার ক্ষেত্রে যেখানে ভিসা লোগো থাকবে, সেখানে এ কার্ডের মাধ্যমে মূল্য পরিশোধ করতে পারবে। বছরে ১৫ বার বা মাসে যদি কোনো গ্রাহক একবার এ কার্ড ব্যবহার করে তবে তার কাছ থেকে কোনো বাৎসরিক চার্জ নেওয়া হবে না।

মো. আহসান-উজ জামান বলেন, আমাদের প্রতিটি পণ্যসেবার ক্ষেত্রে গ্রাহকরা অন্য ব্যাংকগুলোর চেয়ে বেশি সুদ পাবে। আমরা দৈনিক ভিত্তিতে সুদ হিসাব করে প্রতিমাসে সেটা পরিশোধ করবো। এছাড়া ভবিষ্যতে ব্যাংকে আরো নিত্য নতুন পণ্য ও সেবা চালু করবো।

সংবাদ সম্মেলনে আরো উপস্থিত ছিলেন, ব্যাংকটির উপ-ব্যবস্থাপনা পরিচালক খন্দকার নাইমুল কবিরসহ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা।


আরোও সংবাদ