নতুন সাজে সেজেছে রাউজানের সাজিনা চৌধুরী উচ্চ বিদ্যালয়

প্রকাশ:| শুক্রবার, ১৬ মে , ২০১৪ সময় ০৬:৫১ অপরাহ্ণ

আসবেন ঢাকা বিশ্ব বিদ্যালয়ের ভিসি, আনন্দে আত্বহারা শিক্ষার্থীরা
শফিউল আলম, রাউজান ঃ দরিদ্র পরিবারের সন্তানদের শিক্ষা প্রতিষ্টান রাউজানের সুলতানপুর ছিটিয়াপাড়া এলাকায় সার্জিনা চৌধুরী উচ্চ বিদ্যালয়ের বার্ষিক পুরস্কার বিতরনী সভায় আসছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপচার্য ড.আ,ফ,ম আরেফিন সিদিক্কী । ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপচার্য আ, ফ,ম আরেফিন সিদ্দিকীর আগমন উপলক্ষে নতুন সাজে সেজেছে সাজিনা চৌধুরী উচ্চ বিদ্যালয় । স্কুল প্রাঙ্গনে নির্মান করা হয়েছে প্যান্ডেল, রাউজান নোয়াপাড়া সড়কের বিভিন্ন স্থানে করা হয়েছে তোরণ নির্মান করা হয়েছে। সড়কের বিভিন্ন স্থানে আলোকসজ্জা করা হয়েছে । ১৭ মে শনিবার রাউজানের পৌর এলাকার সুলতান পুর ছিটিয়া পাড়া সাজিনা চৌধুরী উচ্চ বিদ্যালয়ের বার্ষিক পুরস্কার বিতরনী সভা ও স্াস্কৃতিক অনুষ্টানকে কেন্দ্র করে স্কুলের দরিদ্র শিক্ষার্থীরা আনন্দে র্আত্বহারা হয়ে উঠেছে । দরিদ্র পরিবারের সন্তানেরা বিনা বেতনে ও স্কুল কতৃপক্ষের দেওয়া বই খাতা কলম, স্কুলের পোষাক,দুপুরের টিফিন পেয়ে থাকেন । এই স্ক^ুলের দরিদ্র শিক্ষার্থীরা যারা এস এসসি পাশ করবে, তাদের এইস এইস সি থেকে ডিগ্রী পর্যন্ত স্কুলের পক্ষ থেকে তাদের সম্পুর্ণ লেখাপড়ার খরচ বহন করে আসছে । এলাকার যে সব পরিবার টাকার অভাবে ইচ্ছা থাকা সত্বেও তাদের ছেলে মেয়েদের লেখাপড়া করাতে পারেনা এই সব দরিদ্র পরিবারের সন্তানদের বিনা বেতনে শিক্ষার সব উপকরন দিয়ে লেখাপড়া করাচ্ছেন স্কুল কতৃপক্ষ । ইতিমধ্যে রাউজানের সুলতানপুর ছিটিয়াপাড়া এলাকায় প্রতিষ্টিত সার্জিনা চৌধুরী উচ্চ বিদ্যালয় দরিদ্র পরিবারের সন্তানদের লেখাপড়ার যোগ্য প্রতিষ্টান হিসাবে গড়ে উঠেছে । রাউজান পৌর সভার ৬ নং ওয়ার্ডের সুলতানপুর ছিটিয়া পাড়া এলাকার সীমান্তবর্তী স্থানে ৬৮ শতক জমিতে প্রতিষ্টিত সার্জিনা চৌধুরী উচ্চ বিদ্যালয় । এই বিদ্যালয়ের সকল শিক্ষার্থীকে কোন বেতন, পরিক্ষার ফি, এস এসসি পরিক্ষার ফরম পুরণের টাকা দিতে হয়না । স্কুলের পাঠদানের সময়ে সকল শিক্ষার্থীকে দুপুরের টিফিন দেওয়া হয় । এই বিদ্যালয় থেকে এস এস সি পাশ করে যে সব শিক্ষার্থী কলেজে ভর্তি হয় এই সব শিক্ষার্থীর লেখাপড়ার ব্যয়ভার বহন করে স্কুলের পরিচলনা কমিটির সদস্য ফরহাদ গণী চৌধুরী নয়ন । স্কুলের শিক্ষার্থীদের পোষাক ও তিনি নিজ টাকা দিয়ে সেলাই করে দেয় । রাউজান পৌর এলাকার সুলতান পুর ছিটিয়া পাড়া, বিণাজুরী ইউনিয়নের উত্তর লেলাঙ্গারা, ইদিলপুর, এলাকায় কোন উচ্চ বিদ্যালয় না থাকায় সুলতান পুর ছিটিয়া পাড়া এলাকায় আবদুল হাকিম চৌধুরীর বাড়ীর সামনে প্রথমে ইউনুছ হাকিম জুনিয়র উচ্চ বিদ্যালয়, পরে আবদুল হাকিম চৌধুরী উচ্চ বিদ্যালয় নামে একটি বিদ্যালয়ে এলাকার ছেলে মেয়েরা লেখাপড়া করতো । আবদুল হাকিম চৌধুরী উচ্চ বিদ্যালয়টি পরিচলনা করতো আবদুল হাকিম চৌধুরীর নাতি রাউজান পৌরসভার সাবেক মেয়র শফিকুল ইসলাম চৌধুরী । হঠাৎ আবদুল হাকিম চৌধুরী উচ্চ বিদ্যালয় সরিয়ে নেওয়ার জন্য আবদুল হাকিম চৌধুরীর অনান্য বংশধরেরা রাউজান পৌরসভার সাবেক মেয়র শফিকুল ইসলাম চৌধুরীকে চাপ দিলে, রাউজান পৌরসভার সাবেক মেয়র শফিকুল ইসলাম চৌধুরী হতাশ হয়ে পড়েন এলাকার ছেলে মেয়েরা লেখাপড়া করবে কিভাবে । রাউজান পৌরসভার সাবেক মেয়র শফিকুল ইসলাম চৌধুরীরীর পৈতৃক জায়গা ছিল কিছু ঐ জায়গায় নতুনভাবে স্কুল নির্মান করা প্রচেষ্টা নিলে রাউজান পৌরসভার সাবেক মেয়র শফিকুল ইসলাম চৌধুরীর ভাগিনা ফরহাদ গণী চৌধুরী নয়ন স্কুল নির্মানের জন্য এগিয়ে আসেন । ফরহাদ গণী চৌধুরী নয়নের আর্থিক সহায়তায় রাউজান পৌরসভার সাবেক মেয়র শফিকুল ইসলাম চৌধুরী তার পৈতৃক জায়গার পার্শ্বে আরো কিছু জায়গা ক্রয় করে ভাগিনা ফরহাদ গণী চৌধুরী নয়নের টাকায় । জায়গাটি ভরাট করে নির্মান করা হয়েছে স্কুল ভবণ । গত ২০১১ সাল থেকে চালু করা হয় স্কুলের পাঠদান কার্য্যক্রম । স্কুলের পাঠদানের শুরু থেকে ফরহাদ গণী চৌধুরী নয়ন স্কুলের শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে কোন বেতন নেয়না । শিক্ষার্থীদের বই, খাতা, কলম সহ শিক্ষার উপকরণ ও স্কুলের পোষাক নিজের টাকায় ক্রয় করে দেয়। এস এস সি, জে এস সি পরিক্ষায় অংশ গ্রহনকারী শিক্ষার্থীদের ভাল শিক্ষক দিয়ে স্কুলের পাঠদানের পাশাপাশি কোচিং এর ব্যবস্থা করেন ফরহাদ গণী চৌধুরী নয়ন । এস এস সি পরিক্ষায় উত্তির্ন শিক্ষার্থী কলেজে ভর্তি করা ও কলেজে ডিগ্রি পর্যন্ত লেখাপড়ার খরচ শিক্ষা উপকরণ খরচ ফরহাদ গণী চৌধুরী নয়ন বহন করে আসছে । সার্জিনা চৌধুরী উচ্চ বিদ্যালয়টি ভাগিনা ফরহাদ গণী চৌধুরী নয়নের মাতা সার্জিনা চৌধুরীর নামে নাম করণ করেন রাউজান পৌরসভার সাবেক মেয়র শফিকুল ইসলাম চৌধুরী । এই স্কুলের পরিচলনা কমিটির সভাপতির দায়িত্ব পালন করছেন রাউজান পৌরসভার সাবেক মেয়র শফিকুল ইসলাম চৌধুরী । সার্জিনা চৌধুরী উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মৃনাল দাশ গুপ্ত জানান, স্কুলে বর্তমানে দেড়শত জন শিক্ষার্থী রয়েছে । দেড়শত শিক্ষার্থীর পাঠদানের জন্য নয়জন শিক্ষক শিক্ষিকা রয়েছে । শিক্ষক শিক্ষিকাদের বেতন প্রদান করছেন ফরহাদ গণী চৌধুরী নয়ন । গত ২০১২ সালে এস এস সি পরিক্ষায় শতকরা পাশের হার ছিল ৯০ শতাংশ। ২০১২ সালের জেএসসি পরিক্ষায় ২৬ জন পরিক্ষার্থীর মধ্যে ১৩ জন পাশ করেন । সার্জিনা চৌধুরী উচ্চ বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি রাউজান পৌরসভার সাবেক মেয়র শফিকুল ইসলাম চৌধুরী বলেন, এলাকার দরিদ্র পরিবারের যে সব ছেলে মেয়ে অর্থের অভাবে লেখাপড়া করা সম্ভব হচ্ছেনা এই সব দরিদ্র পরিবারের ছেলে মেয়েদের লেখাপড়া করানো হচ্ছে,আমার ভাগিনা ফরহাদ গণী চৌধুরীর অর্থায়নে প্রতিষ্টিত ও পরিচালিত সার্জিনা চৌধুরী উচ্চ বিদ্যালয়ে । শুধু স্কুলে নয় স্কুল থেকে এস এস সি পাশ করে কলেজে ভর্তি হলে কলেজে ডিগ্রি পর্যন্ত লেখাপড়ার খরচ চালাচ্ছে আমার ভাগিনা ফরহাদ গণী চৌধুরী । সার্জিনা চৌধুরী উচ্চ বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি রাউজান পৌরসভার সাবেক মেয়র শফিকুল ইসলাম চৌধুরী আরো বলেন এলাকার দরিদ্র পরিবারের সন্তানেরা অভাবের কারনে লেখাপড়া করেনা । এই কারনে সার্জিনা চৌধুরী উচ্চ বিদ্যালয় দরিদ্র পরিবারের সন্তানদের মধ্যে শিক্ষার আলে প্রজ্জলন করতে সার্জিনা চৌধুরী উচ্চ বিদ্যালয়ের আর্দশ ও লক্ষ্য । আগামী ১৭ মে শনিবার দরিদ্র পরিবারের সন্তানদের বিদ্যালয় রাউজানের সুলতানপুর ছিটিয়াপাড়া এলাকায় সার্জিনা চৌধুরী উচ্চ বিদ্যালয়ের বার্ষিক পুরস্কার বিতরনী সভায় প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত থাকবেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপচার্য ড. আ, ফ,ম আরেফিন সিদিক্কী, অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করবেন রেল মন্ত্রনালয় সর্ম্পকিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি এবি এম ফজলে করিম চৌধুরী এমপি। বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত থাকবেন দৈনিক আজাদী সম্পাদক এম এ মালেক, দৈনিক পুর্বকোণের সম্পাদক তসলিম উদ্দিন চৌধুরী, রাউজান উপজেলা চেয়ারম্যান এহসানুল হায়দার বাবুল, ঢাকা উত্তরা বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগের প্রধান ডঃ শামশুল আলম, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের সিন্ডিকেট সদস্য ও হিসাব বিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক ডঃ সুলতান আহম্মদ, রাউজান উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা কুল প্রদীপ চাকমা। বার্ষিক পুরস্কার বিতরণী ও সাস্কৃতিক অনুষ্ঠানের সভাপতি সাবেক মেয়র শফিকুল ইসলাম চৌধুরী এই অনুষ্টানকে সফল করতে এলাকার সর্বস্তরের মানুষের সহযোগিতা কামনা করেন ।