নতুন প্রজন্মকে উন্নত প্রশিক্ষণের মাধ্যমে তৈরি করতে-জাবেদ

প্রকাশ:| শনিবার, ৩১ মে , ২০১৪ সময় ০৯:৪৪ অপরাহ্ণ

জাবেদভূমি প্রতিমন্ত্রী সাইফুজ্জামান চৌধুরী জাবেদ বলেন, বাংলাদেশকে নেতৃত্ব দেওয়ার জন্য নতুন প্রজন্মকে উন্নত প্রশিক্ষণের মাধ্যমে তৈরি করতে হবে। গতানুগতিক চিন্তা চেতনা দিয়ে চললে হবে না। বাংলাদেশ অনেক দূর এগিয়েছে। সার্ক অঞ্চলের দেশগুলোর মাঝে বাংলাদেশের অবস্থান এখন দুই নাম্বারে। আগে ছিল তিন চারে।

শনিবার সকালে চট্টগ্রাম সার্কিট ‌হাউস সম্মেলন কক্ষে চট্টগ্রাম ‌আঞ্চলিক স্কাউটস প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের দলিল হস্তান্তর অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন তিনি।

বাংলাদেশ স্কাউটস চট্টগ্রাম অঞ্চল আয়োজিত অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ স্কাউটস সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রীর সাবেক মূখ্য সচিব আবদুল করিম, বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিলের নির্বাহী পরিচালক এস এম আশরাফুল ইসলাম, চট্টগ্রাম শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান অধ্যাপক মোহাম্মদ আলী, চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসক মেজবাহ উদ্দিন আহমেদ, পটিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রোকেয়া পারভিন, পটিয়া বড় উঠান ইউনিয়নের চেয়ারম্যান দিদারুল ইসলাম।

অনুষ্ঠানে ‌আঞ্চলিক স্কাউটস প্রশিক্ষণ কেন্দ্র স্থাপনের জন্য স্কাউট সভাপতির হাতে ৩ একর ভূমির দলিল হস্তান্তর করেন ভূমি প্রতিমন্ত্রী সাইফুজ্জামান চৌধুরী জাবেদ।

অনুষ্ঠানে ভূমি প্রতিমন্ত্রী বলেন, সুন্দর পরিকল্পনার মাধ্যমে তিন একর জায়গায় প্রশিক্ষণ কেন্দ্র গড়ে তুলতে হবে। তাহলে এটি চট্টগ্রামের জন্যও বড় অর্জন হবে। এটি প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের পাশাপাশি যেন ভালো পর্যটন স্পটও হয়।

প্রশিক্ষণ কেন্দ্র স্থাপনে সহযোগিতার কথা জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, কর্পোরেট সামাজিক দায়বদ্ধতা খাতে আগামী বাজেটে বরাদ্দ বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। প্রশিক্ষণ কেন্দ্র নির্মাণের জন্য সেখান থেকে বরাদ্দ পাওয়ার চেষ্টা করা হবে। এসময় মন্ত্রী ইউনিয়ন ব্যাংক থেকে ১০ লাখ টাকা দেওয়ার ঘোষণা দেন।

মন্ত্রী বলেন, গত কয়েক বছরে জিডিপি বেড়েছে উল্লেখযোগ্য হারে। জিডিপি আরো বাড়াতে হবে। বাংলাদেশ সামনের দিকে এগুচ্ছে। এখন আর গতানুগতিক চিন্তা চেতনা নিয়ে চললে হবে না। উন্নত চিন্তা নিয়ে আধুনিক বিশ্বের সঙ্গে প্রতিযোগিতা করতে হবে।

স্কাউটস প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের জন্য ভূমি প্রদানের জন্য কৃতজ্ঞতা জানিয়ে বাংলাদেশ স্কাউটস সভাপতি আবদুল করিম বলেন, বাংলাদেশের সর্বশেষ প্রশিক্ষণ কেন্দ্রটি চট্টগ্রামে স্থাপন করা হচ্ছে। ভূমি প্রতিমন্ত্রী’র সহযোগীতায় তিন একর জায়গা পেয়েছি। এখানে সুন্দর ডিজাইনে স্থাপনা নির্মাণ করা হবে। এটি প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের পাশাপাশি একটি আধুনিক পর্যটন কেন্দ্রে পরিণত হবে।

প্রসঙ্গত, চট্টগ্রাম আঞ্চলিক স্কাউটস প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের জন্য পটিয়া উপজেলার দৌলতপুরের পাহাড়ি ও সমতল এলাকায় তিন একর জমি বরাদ্দ দিয়েছে ভূমি মন্ত্রণালয়।


আরোও সংবাদ