নগরীতে লাঠি মিছিল করেছে যুবলীগ

প্রকাশ:| বুধবার, ২১ জানুয়ারি , ২০১৫ সময় ১১:১৬ অপরাহ্ণ

নগরীতে লাঠি মিছিল করেছে যুবলীগ। বুধবার বিকেলে নগরীর জমিয়াতুল ফালাহ জাতীয় মসজিদের গেইট থেকে এ মিছিল বের হয়।
নগরীতে লাঠি মিছিল করেছে যুবলীগ
মিছিলপূর্ব সমাবেশে প্রধান অতিথির ব্ক্তব্যে সাবেক মেয়র ও নগর আওয়ামী লীগের সভাপতি এবিএম মহিউদ্দিন চৌধুরী বলেন, আন্দোলনে জনগণকে সম্পৃক্ত করতে না পেরে খালেদা জিয়া পেট্রলবোমা মেরে মানুষ হত্যা করছেন। হুমকিধমকি দিচ্ছেন। নাশকতার প্রতিবাদে আজ আমরা লাঠি হাতে নিয়েছি, ভবিষ্যতে লোহার রড নেব।

তিনি বলেন, ককটেল ও পেট্রোলবোমার তান্ডব আমরা স্বাধীন দেশে চলতে দেবনা। মানবতাবিরোধী অপকর্মের বিরুদ্ধে আবারও সশস্ত্র হয়ে উঠতে বাধ্য হব।

তিনি আরও বলেন, খালেদা জিয়া এখন বাঙালি জাতির পথের কাঁটা। এই কাঁটা সরিয়ে ফেলতে না পারলে বাংলাদেশ পাকিস্তান হবে। পাকিস্তান আজ আর দেশ নয়, একটি কবরস্থান। সেই কবরস্থানে খালেদা জিয়া ফিরে গেলে বাঙালি জাতি ধ্বংসের হাত থেকে রক্ষা পাবে।

সমাবেশে নগর যুবলীগের আহ্বায়ক মহিউদ্দিন বাচ্চু, যুগ্ম আহ্বায়ক ফরিদ মাহমুদ ও আব্দুল লতিফ টিপু বক্তব্য রাখেন।

সমাবেশ শেষে একটি বিক্ষোভ মিছিল নগরীর জমিয়াতুল ফালাহ মসজিদের সামনে থেকে বের হয়ে আলমাস মোড়, কাজির দেউড়ি, আসকার দিঘির পাড়, জামালখান হয়ে চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবের সামনে এসে শেষ হয়।

মিছিলে কয়েক’শ মোটর সাইকেলে চড়ে, ট্রাকে এবং পায়ে হেঁটে হাজারখানেক তরুণ, যুবক অংশ নেন। তাদের অধিকাংশের হাতে হাতে ছিল লাঠি। সহিংসতার বিরুদ্ধে শ্লোগানে শ্লোগানে মুখর ছিল যুবলীগের মিছিল।

চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবের সামনে মিছিলের সমাপনীতে বক্তব্য দেন নগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আ জ ম নাছির উদ্দিন। তিনি বলেন, একাত্তরে পাকিস্তানি হানাদার বাহিনীর মত বিএনপি-জামায়াত দেশের সাধারণ শান্তিপ্রিয় মানুষের উপর হামলে পড়েছে। তাদের নৃশংসতার হাত থেকে নারী-শিশুও রেহাই পাচ্ছেনা। নাশকতাকারীদের কঠোরভাবে দমনের জন্য আমি সরকারের প্রতি আহ্বান জানাচ্ছি।


আরোও সংবাদ