নগরীকে পরিচ্ছন্ন রাখতে সবাইকে কাজ করতে হবে

প্রকাশ:| শনিবার, ১৯ নভেম্বর , ২০১৬ সময় ১১:৩৭ অপরাহ্ণ

নগরীর হালিশহরের আনন্দবাজারে চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন (চসিক) এবং দু:স্থ স্বাস্থ্য কেন্দ্র (ডিএসকে) যৌথভাবে মানববর্জ্য ব্যবস্থাপনার পাইলট প্রকল্প হাতে নিয়েছে বলে তথ্য পাওয়া গেছে এক অনুষ্ঠানে।

শনিবার (১৯ নভেম্বর) বিকেলে বিশ্ব টয়লেট দিবস উপলক্ষে চসিক ও ডিএসকে আয়োজিত অনুষ্ঠানে এই তথ্য জানানো হয়েছে।

নগরীর ডিসি হিলের নজরুল মঞ্চে অনুষ্ঠানের উদ্বোধন ঘোষণা করে মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দিন বলেন, নগরীকে পরিচ্ছন্ন রাখতে সংকীর্ণতার উর্ধ্বে উঠে সবাইকে একসাথে কাজ করতে হবে। সবাইকে ক্লিন সিটি এবং গ্রিণ সিটি বাস্তবায়নে কাজ করতে হবে।

সভায় বক্তারা বলেন, প্রতিটি মানুষ দৈনিক আধা কেজি মানববর্জ্য তৈরি করে। প্রায় ৩০ লাখেরও বেশি মানুষ চট্টগ্রাম শহরে বসবাস করে। কিন্তু মানববর্জ্য ব্যবস্থাপনার কোন পদ্ধতি নেই। এর ফলে এসব বর্জ্য খাল-নালা হয়ে কর্ণফুলী নদী দূষিত করছে।

তারা বলেন, দ্রুত মানব বর্জ্য ব্যবস্থাপনার পরিকল্পনা গ্রহণ এবং এর বাস্তবায়ন শুরু না হলে এই নগরী বসবাস অনুপযোগী হয়ে পড়বে। তাই চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন এবং দুঃস্থ স্বাস্থ্য কেন্দ্র যৌথভাবে হালিশহরের আনন্দবাজারে মানববর্জ্য ব্যবস্থাপনার পাইলটিং প্রকল্প হাতে নিয়েছে।

চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের প্রধান পরিচ্ছন্ন কর্মকর্তা শফিকুল মান্নান সিদ্দিকী যীশুর সভাপতিত্বে এতে আরও বক্তব্য রাখেন ডিএসকে’র প্রকল্প ব্যবস্থাপক আফতাবুর রহমান এবং কমিউনিটি ডেভেলপমেন্ট অফিসার উজ্জ্বল শিকদার ।

অনুষ্ঠানে কবিগান, স্যানিটেশন বিষয়ক নাটিকা, পাবলিক টয়লেটের বর্তমান অবস্থার চিত্র প্রদর্শন এবং মানববর্জ্য ব্যবস্থাপনার বর্তমান অবস্থা ও ভবিষ্যৎ করণীয় সম্পর্কে প্রদর্শনী পরিবেশিত হয়।