দোহাজারী একটি ইতিহাস

নিউজচিটাগাং২৪/ এক্স প্রকাশ:| শুক্রবার, ২৭ জুলাই , ২০১৮ সময় ১১:৪৩ অপরাহ্ণ

দোহাজারী একটি ইতিহাস। যে ইতিহাসের সাথে জড়িত আমাদের মহান মুক্তিযুদ্ধ। দেশ মাতৃকার সকল আন্দোলন সংগ্রাম আমাদের দোহাজারীতেই সংগঠিত। সেই হিসেবে আমরা লড়াকু জাতি। আমাদের সাহসের কারণেই আজ দোহাজরী মর্যদার আসনে। যুগে যুগে মীরজাফরদের আগমনের কারণেই দোহাজারী আজ পিছিয়ে। যেন আমরা দোহাজারীবাসী সব সময় দুধ কলা দিয়ে ‘গোখরো সাপ’ পুষেছি। তারাই আজ আমাদের ছোবল দিচ্ছে। আমরা কখনো চিন্তা করিনি আমাদের তারা ছোবল দিবে? আমরা মনে করেছিলাম নিকট এলাকার মানুষ আমরা সকলে ভাই ভাই। কিন্তু না তারা মানুষরূপি ‘গোখরো সাপ’…!!! তাদেরকে দুধ কলা দিয়ে পুষেছিলাম আজ সময় এসেছে তার থেকে কড়ায় গন্ডায় হিসেব করে তা শোধ করে নিতে। না হয় তারা এখন যেভাবে আমাদের হৃদয় নিয়ে খেলছে…!!! তখন আরো বেপরোয়া হয়ে যাবে। কথায় আছে না ‘সময় থাকতে যোগাড় দেখ’। নচেৎ এই ‘গোখরো সাপ’ বিষ্পবাস্প ছড়িয়ে সারা দক্ষিণ চট্টগ্রামকেই অন্ধকারে নিমজ্জিত করবে। অতীতে আমরা যখন দোহাজারীকে জেলা ঘোষণার জন্য চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসকের রূমে ১৯৮৬ সালে আলোচনা করছিলাম (ইব্রাহিম বিন খলিল, আবুল কালাম সামশুদ্দিন, জাফর আলী হিরু, দেলোয়ার হোসেন দিলু, আমি কামরুল হুদাসহ আরো অনেকে) তখন থেকেই এই ‘গোখরো সাপ’ আমাদের সাথে থেকে আন্দোলনকে স্তিমিত করে দিয়েছিল। না হয় কবে দোহাজারী জেলা থেকে শুরু করে আজ আমরা স্বয়ংসম্পূর্ণ থাকতাম। আমাদের দোহাজারীর মানুষগুলো সহজ সরল বিধায় যে কোন কিছু গভীরভাবে নিতো না তাই আজ আমাদের এই পরিণতি। যাক তারপরও আশার আলো ছড়িয়ে যাবে। যেহেতু গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার দোহাজারীকে নিয়ে বিভিন্ন উন্নয়ন কর্মকান্ড শুরু করে দিয়েছে তাতেইত মনে হচ্ছে আমরা কামিয়াব হবো। ইনশাআল্লাহ।
কামরুল হুদা, সিনিয়র সাংবাদিক: