‘দেশ প্রেমিক কর্মকর্তারা দায়িত্বশীল ভূমিকা পালন করবে’

নিউজচিটাগাং২৪/ এক্স প্রকাশ:| শনিবার, ৭ জুলাই , ২০১৮ সময় ১০:১১ অপরাহ্ণ

বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান আবদুল্লাহ আল নোমান বলেছেন, ‘সরকার জনবিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে। পুলিশ ও র‌্যাবকে ব্যবহার করে তারা এখন বহাল তরিয়তে। কিন্তু সময়মত সরকারের অন্যায়ের বিরুদ্ধে আইনশৃংখলা বাহিনীর দেশ প্রেমিক কর্মকর্তারা দায়িত্বশীল ভূমিকা পালন করবে। ’

শনিবার বিকেলে নাসিমন ভবনস্থ দলীয় কার্যালয় প্রাঙ্গনে খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে জাতীয়তাবাদী ছাত্রদল চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় শাখার উদ্যোগে আয়োজিত বিক্ষোভ সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

নোমান আরো বলেন, ‘লেভেল প্লেয়িং ফিল্ডে’ নির্বাচন হলে মন্ত্রিসভার অনেক সদস্যের জামানত বাজেয়াপ্ত হবে। গণ আন্দোলন কখনো ব্যর্থ হয় না। আন্দোলনের সফলতা আসবেই, তবে আমাদেরকে ত্যাগ স্বীকার করতে হবে। বেগম খলেদা জিয়াকে বন্দি রেখে ৫ জানুয়ারি মার্কা আরেকটি প্রহসনের নির্বাচনের মাধ্যমে আওয়ামী লীগ ক্ষমতাকে কুক্ষিগত করার ষড়যন্ত্র করছে। কিন্তু তাদের সে চক্রান্ত বুমেরাং হয়ে যাবে।’

‘সরকার জনবিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে। পুলিশ ও র‌্যাবকে ব্যবহার করে তারা এখন বহাল তরিয়তে। আইনশৃঙ্খলা বাহিনীতেও দেশপ্রেমিক কর্মকর্তা আছে, তারাও সময়মত সরকারের অন্যায়ের বিরুদ্ধে দায়িত্বশীল ভূমিকা পালন করবে। সম্প্রতি অনুষ্ঠিত মালয়েশিয়ার সাধারণ নির্বাচনে নাজিব রাজ্জাকের যে পরিণতি হয়েছে একই পরিণতি ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের জন্য অপেক্ষা করছে ।’

তিনি বলেন, ‘সরকার গুণ্ডাবাহিনী দিয়ে কোটা আন্দোলনকারীদের ওপর যে নির্যাতন করেছে তা নজিরবিহীন। কোটা সংস্কার নিয়ে সরকার দ্বৈতনীতি গ্রহণ করেছে, একদিকে ছাত্রদের ওপর হামলা চালিয়ে তাদেরকে দমন করছে আর অন্যদিকে দাবি মেনে নেওয়ার ঘোষণা দিয়ে কমিটি করা হয়েছে।’

‘দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্ত করতে এবং গণতন্ত্র ও ভোটাধিকার প্রতিষ্ঠা করতে হলে আমাদের জাতীয় ঐক্য প্রতিষ্ঠা করতে হবে। বৃহত্তর পরিসরে জাতীয় ঐক্য প্রতিষ্ঠার মাধ্যমে বর্তমান সঙ্কট থেকে মুক্তি পাওয়া সম্ভব হবে। -বলেন বিএনপির সিনিয়র এ নেতা।

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রদলের সভাপতি খোরশেদ আলমের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক শহিদুল ইসলামের পরিচালনায় সমাবেশে বক্তব্য রাখেন চবি রাজনীতি বিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক ড. সিদ্দিক আহমেদ চৌধুরী, বিএনপি নেতা এম এ হালিম, অ্যাডভোকেট আবদুস সাত্তার, নুরুল আলম রাজু, শেখ নুরুল্লাহ বাহার, আবদুল মান্নান, আহমেদুল আলম রাসেল, ইউনুচ চৌধুরী, নুরুল আমিন, আবদুল আউয়াল, মামুনুল ইসলাম হুমায়ুন, মঞ্জুর রহমান চৌধুরী, জসিম উদ্দিন জিয়া, আবদুল হালিম স্বপন, ইকবাল হোসেন, তোফাজ্জল হোসেন, মোহাম্মদ সেলিম, হাসান মোহাম্মদ জসিম, এম আর চৌধুরী মিল্টন, আমিনুল ইসলাম তৌহিদ, সোলাইমান মঞ্জু, মুরাদ চৌধুরী, নুরুল হুদা, আবদুল হাই, শেখ রাসেল, জায়েদ বিন রশীদ প্রমুখ।