‘দেশে আইএস আছে এমন ঘোষণা দেয়ার একটি পাঁয়তারা চলেছে ’

প্রকাশ:| সোমবার, ২৩ নভেম্বর , ২০১৫ সময় ১১:২৫ অপরাহ্ণ

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, বাংলাদেশে আইএস আছে এমন ঘোষণা দেয়ার একটি পাঁয়তারা চলছে। বাংলাদেশ নিরাপদ বা অনিরাপদ- এ নিয়ে আমাদের অনেক কথা শুনতে হয়েছে। আমরা দৃঢ়ভাবে বলছি, বাংলাদেশে কোন আইএস কিংবা জঙ্গিদের স্থান হতে দেবো না। আজ জাতীয় সংসদে অধিবেশনের সমাপনী বক্তব্যে সংসদ নেতা এসব কথা বলেন। সংসদ নেতা বলেন, বাংলাদেশে কোন আইএস বা জঙ্গিবাদের স্থান হয় না, এজন্য আসুন আমরা সম্মিলিতভাবে কাজ করি। অনেকেই জোর-জবরদস্তি করে বাংলাদেশে আইএস বা জঙ্গি আছে এ কথা বলানোর চেষ্টা করছে। যেসব দেশ একসঙ্গে বসে এসব কথা বলানোর চেষ্টা করছে, তাদের দেশের অবস্থা কী? সম্প্রতি যুক্তরাষ্ট্রের একটি নিরাপত্তা প্রতিবেদনের কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, ওই রিপোর্টেই স্পষ্ট হয়েছে বাংলাদেশ এখন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রসহ অনেক উন্নত দেশ থেকেও নিরাপদ। এই শান্তিপূর্ণ অবস্থা যাতে ধরে রাখা যায় সে ব্যাপারে তিনি দেশবাসীর সহযোগিতা কামনা করেন।
তিনি বলেন, একাত্তরের মহান মুক্তিযুদ্ধে যুদ্ধাপরাধীরা যে অপরাধ করেছে, তার কোন সীমা নেই। এদের বিচার সম্পন্ন করতে না পারলে দেশ কখনোই অভিশাপমুক্ত হবে না। দীর্ঘদিন ধরে বাংলাদেশ এ অভিশাপ বইয়ে বেড়াচ্ছিল। যুদ্ধাপরাধীদের আমরা বিচার ও রায় কার্যকরের মাধ্যমে বাংলাদেশকে অভিশাপ থেকে মুক্ত করছি। যুদ্ধাপরাধীদের বিচারের রায় কার্যকরের ফলে একাত্তরের স্বজনহারা পরিবারগুলো কিছুটা হলেও সান্ত¡না পাচ্ছে। আমরা দেশকে অভিশাপমুক্ত করছি বলেই বাংলাদেশ আজ সব দিক থেকে এগিয়ে যাচ্ছে, সর্বক্ষেত্রে উন্নয়ন হচ্ছে। তাই যতই ষড়যন্ত্র-চক্রান্ত করা হোক না কেন, বাংলাদেশের এ উন্নয়নের অগ্রযাত্রাকে কেউ রুখতে পারবে না। প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্য শেষে স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী রাত ৯টায় অষ্টম অধিবেশনের সমাপ্তি ঘোষণা করেন। নিজস্ব অর্থায়নে পদ্মা সেতু নির্মাণের বিষয়টি তুলে ধরে প্রধানমন্ত্রী বলেন, আজ যারা দেশে জঙ্গি বা আইএস আছে একথা বলার চেষ্টা করছে, তারাই পদ্মা সেতু নিয়ে দুর্নীতির দোষ দেয়ার চেষ্টা করছে। কিন্তু পায়নি। আমরা নিজেরাই পদ্মা সেতু নির্মাণ করছি।


আরোও সংবাদ