দেশের সর্ববৃহত্ত পাবলিক পরীক্ষা ২০ নভেম্বর

প্রকাশ:| মঙ্গলবার, ১৯ নভেম্বর , ২০১৩ সময় ১১:৫৩ অপরাহ্ণ

দেশের সর্ববৃহত্ত পাবলিক পরীক্ষা প্রাইমারি স্কুল সার্টিফিকেট (পিএসসি) ও ইবতেদায়ি শিক্ষা সমাপনীতে এবার অংশ নিচ্ছে মোট ২৯ লাখ ৫০ হাজার ১৯৩ পরীক্ষার্থী।প্রাইমারি স্কুল সার্টিফিকেট

২০ নভেম্বর বুধবার থেকে শুরু হচ্ছে পরীক্ষা, চলবে ২৮ নভেম্বর পর্যন্ত। পঞ্চম শ্রেণী শেষে শিক্ষার্থীদের এই পাবলিক পরীক্ষা পঞ্চমবারের মতো অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে।

প্রাথমিক ও গণশিক্ষামন্ত্রী ডা. আফসারুল আমিন বাংলামেইলকে বলেন, ‘প্রাথমিক শিক্ষায় ব্যর্থতার চেয়ে সফলতার ভাগ অনেক বেশি। নানা প্রতিকূলতার মধ্যে আমাদের অক্লান্ত পরিশ্রম আর যোগ্যতা দিয়ে এই স্তরের সফলতা। বিশেষ করে শিক্ষার্থীদে বিদ্যালয়মুখী করতে পেরেছি। ব্যর্থতার পাল্লা সামান্যতম।’

আফসারুল আমিন বলেন, ‘অন্য বছরগুলোতে দুই ঘণ্টা করে এই পরীক্ষা নেয়া হলেও এবার ৩০ মিনিট সময় বাড়ানো হয়েছে। চলতি বছর ক্ষুদে শিক্ষার্থীদের এই পরীক্ষায় ২৫ শতাংশ যোগ্যতাভিত্তিক (সৃজনশীল) থাকায় এ সময় বাড়ানো হয়েছে।’

আফসারুল আমীন বলেন, ‘এ বিষয়ে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর থেকে শুরু করে দেশের সব সহকারী উপজেলা শিক্ষা অফিসার/সহকারী ইন্সট্রাক্টরকে প্রশিক্ষণ দেয়া হয়েছে। ইতিমধ্যে প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত শিক্ষা অফিসারদের ক্লাস্টারভুক্ত সব শিক্ষকদের পিটিআই এবং ইউআরসিতে প্রশিক্ষণ সমাপ্ত করা হয়েছে। চলতি সমাপনী পরীক্ষার উত্তরপত্র এ সব বিশেষ শিক্ষকদের দিয়ে মূল্যায়ন করা হবে।’

মন্ত্রী বলেন, ‘এবার প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থীরা পরীক্ষায় অতিরিক্ত ২০ মিনিট সময় পাবে। এক উপজেলার উত্তরপত্র অন্য উপজেলায় পাঠিয়ে মূল্যায়ন করা হবে। পরীক্ষা সম্পন্ন করার পর আগামী ২৬ ডিসেম্বর শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষার ফল প্রকাশের পরিকল্পনা নেয়া হয়েছে। সে অনুযায়ী আগামী ৩১ ডিসেম্বর শিক্ষার্থীরা নম্বরপত্র পাবে এবং উত্তীর্ণ শিক্ষার্থীদের আগামী ২০ জানুয়ারি সনদপত্র দেয়া হবে।’

এবারের প্রাথমিক-ইবতেদায়ি শিক্ষা সমাপনীতে ২৯ লাখ ৫০ হাজার ১৯৩ জন পরীক্ষার্থী অংশ নেবে বলে জানান প্রাথমিক ও গণশিক্ষা সচিব কাজী আখতার হোসেন।

তিনি বলেন, ‘এর মধ্যে প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনীতে ২৬ লাখ ৩৫ হাজার ৪০৬ জন। এর মধ্যে ১২ লাখ ১৪ হাজার ৯০৯ ছাত্র এবং ছাত্রী ১৪ লাখ ২০ হাজার ৪৯৭ জন। ইবতেদায়িতে ৩ লাখ ১৪ হাজার ৭৮৭ পরীক্ষার্থী। এর মধ্যে ১ লাখ ৫৭ হাজার ২২৭ ছাত্র আর ১ লাখ ৫৭ হাজার ৫৬০ ছাত্রী। এছাড়াও ৬ হাজার ৪৫৭ জন ইংরেজি মাধ্যমের পরীক্ষার্থী অংশ নেবে এই পরীক্ষায়। এর মধ্যে ছাত্র ৩ হাজার ৭৩৯ আর ছাত্রী ২ হাজার ৭১৮ জন।’

তিনি আরো বলেন, ‘দেশব্যাপী ৬ হাজার ৫১৪টি কেন্দ্রে একযোগে এই পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। এর মধ্যে দেশে ৬ হাজার ৫৬৬টি। আর বিদেশে ৮টি কেন্দ্র। বেলা ১১টা থেকে শুরু হয়ে দেড়টা পর্যন্ত আড়াই ঘণ্টার এই পরীক্ষা হবে।’

এ বছরও দেশের বাইরে রিয়াদ, জেদ্দা, আবুধাবী, বাহরাইন, দুবাই, কাতার, ত্রিপলী এবং ওমান কেন্দ্রে মোট ৭৭৪ শিক্ষার্থী পরীক্ষায় অংশ নেবে। ১৫৫টি পরীক্ষা কেন্দ্রকে দুর্গম চিহ্নিত করে ওইসব কেন্দ্রে প্রশাসনের তত্ত্ববধায়নে পরীক্ষার আগের দিন প্রশ্নপত্র সরবরাহ করা হবে। গতবছর প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনীতে প্রায় ৬৫ হাজার অকৃতকার্য হওয়া শিক্ষার্থীর মধ্যে ৫০ হাজার ৭৯ পরীক্ষার্থী এবার অংশ নিচ্ছে।

প্রসঙ্গত, পঞ্চম শ্রেণীর শিক্ষার্থীদের জন্য ২০০৯ সাল থেকে এই সমাপনী পরীক্ষা শুরু হয়। আর ইবতেদায়িতে এ পরীক্ষা শুরু হয় ২০১০ সালে। প্রথম দুই বছর বিভাগভিত্তিক ফল দেয়া হলেও ২০১১ সাল থেকে গ্রেডিং পদ্ধতিতে ফল দেয়া হচ্ছে।