দেশের গৌরব ও সুনাম সমুন্নত রাখতে শান্তিরক্ষীদের প্রতি আহ্বান

নিউজচিটাগাং২৪/ এক্স প্রকাশ:| মঙ্গলবার, ২৯ মে , ২০১৮ সময় ০৮:৩৯ অপরাহ্ণ

বিদেশের মাটিতে দেশের গৌরব ও সুনাম সমুন্নত রাখতে বাংলাদেশি শান্তিরক্ষীদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ।

মঙ্গলবার (২৯ মে) রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে আন্তর্জাতিক জাতিসংঘ শান্তিরক্ষী দিবসে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে তিনি এ আহ্বান জানান।

রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ বলেন, বাংলাদেশ আজ সারাবিশ্বে প্রথম সারির শান্তিরক্ষী প্রেরণকারী দেশ হিসেবে গৌরব ও মর্যাদা লাভ করেছে। আর তা আপনাদের সাহস, বীরত্ব, অসামান্য পেশাদারিত্ব ও দক্ষতারই ফসল। এ গৌরব আপনাদের সমুন্নত রাখতে হবে।

বাংলাদেশি শান্তিরক্ষীদের প্রশংসা করে তিনি বলেন, অনুকরণীয় পেশাগত দক্ষতা দেখিয়ে বিশ্বের অন্য সহযোগী শান্তিরক্ষীদের শ্রদ্ধা অর্জন করতে সমর্থ হয়েছে বাংলাদেশি শান্তিরক্ষীরা। জাতিসংঘ এবং বিশ্বের সব শান্তিপ্রিয় দেশ বাংলাদেশি শান্তিরক্ষীদের কার্যক্রমের সাফল্যের প্রশংসা করছে।

জাতিসংঘের শান্তিরক্ষা মিশনে কর্মরত বাংলাদেশিদের প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা আরও উন্নত করার আহ্বান জানিয়ে রাষ্ট্রপতি বলেন, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তির উন্নয়নের সঙ্গে জাতিসংঘ মিশনে নিয়োজিত শান্তিরক্ষীদেরও প্রযুক্তি ও কারিগরি দক্ষতা বাড়ানো জরুরি। বাংলাদেশি শান্তিরক্ষীরাও যাতে বিশ্বের অন্য দেশের শান্তিরক্ষীদের সঙ্গে প্রতিযোগিতায় নিজেদের শ্রেষ্ঠত্ব প্রমাণ করতে পারে সে লক্ষ্যে উন্নত প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা নিতে হবে।

শান্তিরক্ষীদের নিরাপত্তার বিষয়টি সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার দেওয়ার উপর জোর দেন আবদুল হামিদ।

নারী প্রতিনিধি বাড়ানোর ওপর জাতিসংঘের গুরুত্বারোপে সমর্থন জানিয়ে শান্তিরক্ষা মিশনে নারী প্রতিনিধি বাড়াতে জোর দেন রাষ্ট্রপতি।

বাংলাদেশি শান্তিরক্ষীরা ৪০টি দেশে ৫৪টি মিশন শেষ করেছে। এই মুহূর্তে বিশ্বশান্তি প্রতিষ্ঠায় নিয়োজিত ১২৪টি দেশের ৯১ হাজার ৫৮ জন শান্তিরক্ষীর মধ্যে ১১টি মিশনে ৭ হাজার ৭৫ জন বাংলাদেশি রয়েছেন। এর মধ্যে নারী শান্তিরক্ষী রয়েছেন ১৫৭ জন।

অনুষ্ঠানে পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে বাংলাদেশের শান্তিরক্ষী হিসেবে দায়িত্ব পালনকালে নিহত ১০ জনের পরিবার এবং আহত ১১ জনকে সম্মাননা দেওয়া হয়।

মালি, ডিআর কঙ্গো ও লেবাননে কর্মরত বাংলাদেশি শান্তিরক্ষীদের সঙ্গে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে কথা বলেন তিনি।

জাতিসংঘ শান্তিরক্ষী দিবস উপলক্ষে স্মারক ডাকটিকিট উন্মোচন করেন রাষ্ট্রপতি।


আরোও সংবাদ