দেশের এখনো অনেক অপ্রাপ্তি আছে : প্রফেসর আনোয়ারুল আজিম আরিফ

প্রকাশ:| রবিবার, ৩ জুলাই , ২০১৬ সময় ১১:২৩ অপরাহ্ণ

আরিফ ২
চট্টগ্রাম : চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য প্রফেসর আনোয়ারুল আজিম আরিফ বলেছেন, ‘আমাদের সমাজে এখনো অনেক অসংলগ্নতা। দেশের এখনো অনেক অপ্রাপ্তি আছে। দেশের মানুষের মধ্যে শৃঙ্খলাবোধ যদি না থাকে, একে অপরকে যদি কেউ মান্য না করে, কারো কথা না শোনে, তাহলে সে সমাজ যে কোনো সময় বিশৃঙ্খলায় নিপতিত হতে পারে।’

রোববার সন্ধ্যায় চট্টগ্রামের রাঙ্গুনিয়া উপজেলার পদুয়ায় নবনির্বাচিত ইউপি চেয়ারম্যান গোলাম কবির তালুকদার ও ইউপি সদস্যদের সংবর্ধনা ও ইফতার মাহফিলে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। খায়ের-জাহান স্মৃতি পরিষদ এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করে।

বরেণ্য এই শিক্ষাবিদ বলেন, ‘জীবন অত্যন্ত ক্ষণস্থায়ী। ৬০-৭০-৮০-৯০ বছর-তারপর তো সব ছেড়ে চলে যেতে হবে। কিন্তু এখন ইফতার মাহফিল হোক, কিংবা যে কোন অনুষ্ঠানে এখন দেখি অসহিষ্ণুতা।’ রিকশা সিএনজির (সিএনজি চালিত অটোরিকশা) আগে যেতে চায়, আর সিএনজি বাসের আগে যেতে চায়, এমন একটি সমাজে বসবাস করি। তাই এখানে বলার কিছু নেই। হতাশা নিয়ে পথ চলি।

কিসের ভরসায় আমরা এত সম্পদ কুক্ষিগত করি? কিসের জন্য আমরা এতকিছু হরণ করি মানুষের? –এমন প্রশ্নও তোলেন এই শিক্ষাবিদ।

আনোয়ারুল আজিম আরিফ বলেন, আজ মানুষের জীবন অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে। ইফতারের পর একটি রেস্টুরেন্টে মানুষ খেতে গিয়েছে। সেখানে আমাদের সন্তানরা গিয়ে সন্ত্রাস করে জিম্মি করে তাদেরকে হত্যা করেছে। আমরা কোন দিকে ধাবিত হচ্ছি জানি না। আমাদের যাত্রার গন্তব্য কোথায়?

অভিভাবকদের উদ্দেশ্যে এই শিক্ষাবিদ বলেন, সন্তানদেরকে ভাল পরামর্শ দিন, মানুষকে তার মানবিক যে গুণাবলি, সেটা যেন তার মধ্যে বিকশিত হয়, সে লক্ষ্যে কাজ করুন। অন্যথায় এত আয়োজন, আপনার ইমারত-বিল্ডিং কোনো কাজে আসবে না। আপনি চলে যাবেন, রেখে যাবেন এমন একটি সমাজ। যে সমাজে আপনার সন্তান সুখে আছে- এই চিন্তা নিয়ে কাজ করুন।

স্থানীয়দের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, সম্মান প্রদর্শনের জন্য এখানে আসতে হয়েছে। একজন বলিষ্ঠ লোক, তাকে আপনারা নেতৃত্বে বসিয়েছেন। নিশ্চয় তার যোগ্যতা আছে। আমি অন্ধভাবে সেটা বিশ্বাস করেছি। আপনারা নবনির্বাচিত চেয়ারম্যানকে সম্মান প্রদর্শনের জন্য সারাদিন রোজা রেখে অনুষ্ঠানে এসেছেন- নিশ্চয় এটার গুরুত্ব আছে। আমি সেটা অনুধাবন করি।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে ডেনমার্ক আওয়ামী লীগের সভাপতি ডা. বিদ্যুত বড়ুয়া বলেন, ‘আপনারা প্রিয় মানুষ গোলাম কবির তালুকদারকে বিনা প্রতিদ্ধন্ধিতায় চেয়ারম্যান নির্বাচিত করে যে সম্মান প্রদর্শন করেছেন তাতে সমাজ উপকৃত হবে।

ঢাকা মেডিকেল কলেজের সাবেক এই সহ সভাপতি (ভিপি) বলেন, আমাদের সমাজে আজকে বড় সমস্যা, যাদেরকে আমরা মানার কথা, যাদের পেছনে থাকার কথা, সেটা করছি না। অর্থাৎ সমাজের গণ্যমান্য মুরুব্বী যারা, তাদেরকে মানা, তাদের কথা শোনা, এটা আমরা করছি না। যুব সমাজ যদি এটা করে তাহলে তারা উপকৃত হবে।

পদুয়া ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান মাহবুবুল আলম চৌধুরীর সভাপতিত্বে ও ওমান বঙ্গবন্ধু পরিষদের সাবেক সভাপতি শাহাদাত হোসেন তালুকদারের পরিচালনায় এতে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, সাবেক পদুয়া ইউপি চেয়ারম্যান মো আবু জাফর, নারিচ্চা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সাবেক প্রধান শিক্ষক মাস্টার মনিরুজ্জামান।

উপস্থিত ছিলেন খায়ের-জাহান স্মৃতি পরিষদের অন্যতম উদ্যোক্তা আলহাজ্ব শওকত হোসেন তালুকদার, সমাজ সেবক ও শিক্ষানুরাগী মো. নাছির উদ্দিন তালুকদার, বাঙ্গালহালিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের সিনিয়র শিক্ষক রফিকুল ইসলাম, সেনা কর্মকর্তা মো. তারেক (সোহেল), পদুয়া ডিগ্রী কলেজ ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও পরিবেশকর্মী মো. আরাফাত রুবেল, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়স্থ রাঙ্গুনিয়া ছাত্র ফোরামের সাবেক যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক তৌহিদুল ইসলাম সৌরভ, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগ নেতা সাজিব জুনায়েদ সফল, পোর্ট সিটি বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক ওয়াহেদ বুলবুল অর্পণ, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় নাট্যকলা বিভাগের শিক্ষার্থী ছাত্রনেতা আল জায়েদ সিকদার সম্রাট, রাঙ্গুনিয়া উপজেলা ছাত্রলীগ নেতা ও ক্রীড়া সংগঠক আতিকুল্লাহ ইয়াসিন প্রমুখ।