‘দেশকে মানবিক করার ক্ষেত্রে ভূমিকা রাখার আহ্বান’

নিউজচিটাগাং২৪/ এক্স প্রকাশ:| রবিবার, ১৫ জুলাই , ২০১৮ সময় ০৯:২৮ অপরাহ্ণ


আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন সমাজবিজ্ঞানী ও প্রিমিয়ার বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. অনুপম সেন বলেছেন, পৃথিবীর প্রাচীনতম বিষয় সমূহের একটি হলো আইন। যুগের ও সমাজের চাহিদা অনুসারে আইন ক্রমশ বিবর্তিত হয়। এমনকি নতুন নতুন আইন সৃষ্টিও হয়।

রোববার (১৫ জুলাই) নগরের ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশনে প্রিমিয়ার বিশ্ববিদ্যালয় আইন বিভাগের ৩৪, ৩৫, ৩৬ ও ৩৭ তম ব্যাচের নবীন বরণ এবং ২১ ও ২২ তম ব্যাচের বিদায় সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখতে গিয়ে তিনি এসব কথা বলেন।

আইন বিভাগের চেয়ারম্যান তানজিনা আলম চৌধুরীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রফেসর ড. অনুপম সেন বলেন পৃথিবীর অনেক উপজাতি সমাজ এখনও আইন নয়, প্রথা অনুসরণ করেই চলে। তবে পৃথিবীর অধিকাংশ দেশই এখন আইনের দ্বারা পরিচালিত হয়।

তিনি আরও বলেন, আইনের কঠোর ও মানবিক দিক রয়েছে। এক সময় এথেন্সে আইন ছিল, কেউ ঋণ শোধ করতে না পারলে তাকে ক্রীতদাস হতে হবে এবং তার নাগরিকত্ব বাতিল হবে। এটা ছিল আইনের কঠোর দিক।

পরে সেখানে সোলন কর্তৃক সেই আইন পরিবর্তন করে নতুন আইন করা হয়, ঋণ শোধ করতে না পারার জন্য কাউকে ক্রীতদাস হতে হবে না, এমনকি তার নাগরিকত্বও বাতিল হবে না। এটা ছিল আইনের মানবিক দিক।

তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন, প্রিমিয়ার বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগের শিক্ষার্থীরা মানবিক দৃষ্টিকোণ থেকে নতুন নতুন আইন প্রণয়নের ক্ষেত্রে ভূমিকা রাখতে সক্ষম হবেন। দেশকে মানবিক করার ক্ষেত্রে ভূমিকা রাখবেন।

অনুষ্ঠানে অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন প্রিমিয়ার বিশ্ববিদ্যালয় আইন বিভাগের অ্যাডজাঙ্কট ডিন ও চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় আইন বিভাগের প্রফেসর মো. মোরশেদ মাহমুদ খান, প্রিমিয়ার বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর আহমদ রাজীব চৌধুরী এবং আইন বিভাগের সহকারী অধ্যাপক নুর মোহাম্মদ।


আরোও সংবাদ