দুদকের নয়া চেয়ারম্যান বদিউজ্জামান

প্রকাশ:| বৃহস্পতিবার, ২৭ জুন , ২০১৩ সময় ১০:১০ পূর্বাহ্ণ

কমিশনার মো: বদিউজ্জামানকে সরকার দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) নতুন চেয়ারম্যান হিসেবে নিয়োগ দিয়েছে।দুদকের নয়া চেয়ারম্যান বদিউজ্জামান

মো: বদিউজ্জামান। ফাইল ছবি
রাষ্ট্রপতির অনুমোদনক্রমে বুধবার মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে এক প্রজ্ঞাপন জারি করে পূর্ণ মেয়াদ চার বছরের জন্য তাকে ওই পদে নিয়োগ দেওয়া হয়।
একই দিনে আলাদা প্রজ্ঞাপন জারি করে এনবিআরের সাবেক চেয়ারম্যান ড. নাসির উদ্দিন আহমেদকে কমিশনার পদে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। এর ফলে দুদকে এখন তিন সদস্যের পূর্ণ কমিশন গঠন হলো।
নবনিযুক্ত চেয়ারম্যান মো: বদিউজ্জামান বুধবার রাতে এক তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়ায় সমকালকে বলেন, “দুদকের কার্যক্রম আরো গতিশীল করার জন্য চেষ্টা করব। কমিশনের সবাই মিলে এক সাথে কাজ করা হবে।”
তিনি বলেন, “দুর্নীতির অভিযোগ সঠিক হলে এবং সে অভিযোগ যার বিরুদ্ধেই হোকনা কেন- কোন ধরনের ছাড় দেওয়া হবেনা। একই সঙ্গে কোন নিরপরাধ ব্যক্তি যাতে অযথা হয়রানির শিকার না হন সে বিষয়টিও গুরুত্ব সহকারে দেখা হবে।”
মো: বদিউজ্জামান সিনিয়র কমিনার (অনুসন্ধান) পদে দায়িত্ব  পালন করছিলেন। গত ২৩ জুন গোলাম রহমান চার বছরের মেয়াদ শেষে গত ২৩ জুন বিদায় দেওয়ার পর চেয়ারম্যান পদটি শূণ্য হয়। শূণ্য হওয়ার তিন দিন পর মো: বদিউজ্জামানকে চেয়ারম্যান পদে নিয়োগ দেওয়া হলো।
এর আগে আরেকটি প্রজ্ঞাপন জারি করে বদিউজ্জামানকে সাময়িকভাবে চেয়ারম্যানের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছিল গত মঙ্গলবার। আরো একজন কমিশনার (তদন্ত) হিসেবে দায়িত্ব আছেন মো: সাহাবুদ্দিন।
চেয়ারম্যানের শূণ্য পদটি পুরনের জন্য মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে এক প্রজ্ঞাপন জারি করে এরই মধ্যে সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগের বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকীকে প্রধান করে পাঁচ সদস্যের একটি কমিটি গঠন করে। কমিটি চেয়ারম্যান ও একজন কমিশনার নিয়োগের জন্য রাষ্ট্রপতির কাছে সুপারিশ পেশ করলে বুধবার তার অনুমোদন দেওয়া হয়।
বাছাই কমিটির অন্য সদস্যরা ছিলেন সুপ্রিম কোর্টের হাইকোর্ট বিভাগের বিচারপতি মোঃ মঈনুল ইসলাম চৌধুরী, বাংলাদেশ সরকারি কর্মকমিশনের চেয়ারম্যান এ বি এম আহমেদুল হক চৌধুরী, বাংলাদেশ মহাহিসাব নিরীক্ষক ও নিয়ন্ত্রক মাসুদ আহমেদ ও মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের সর্বশেষ অবসরপ্রাপ্ত সচিব এম আবদুল আজিজ।