দুজনেই একই রকমের পোশাক

mirza imtiaz প্রকাশ:| রবিবার, ১৪ এপ্রিল , ২০১৯ সময় ১১:২৬ পূর্বাহ্ণ

বাংলা নতুন বছরকে বরণ করে নিতে সবাই যে যার মত প্রস্তুতি নিচ্ছে। যুগলরা এই দিনটি সাজাতে পারেন একটু ভিন্ন সাজে। এই দিন দুজনেই পরতে পারেন একই রকমের পোশাক। আপনারা যারা আধুনিক তারুণ্যের মধ্যে বর্ণিল রঙে যুগপত্ রাঙাতে চান, তাদের কথা মাথায় রেখেই দেশের সবচেয়ে বড় অনলাইন শপ আজকেরডিল বিভিন্ন ডিজাইনের পোশাক নিয়ে এসেছে। এতে পরিবারের সকলের উপযোগী করে পোশাকের উপস্থাপনায় আনা হয়েছে মেলবন্ধন। সালোয়ার-কামিজ, পাঞ্জাবি কিংবা শাড়ি সবকিছুইতেই থাকছে ফেব্রিক, ডিজাইন বা মোটিফের যুগপত্ উপস্থাপনা।

  

মূলত বৈশাখী উৎসবকে সামনে রেখে পোশাক ডিজাইনাররা যুগল আর পরিবারের সদস্যদের কথা চিন্তা করে একই রঙের পোশাক বানানো শুরু করেন। সব উত্সবে ফ্যাশন হাউসগুলো যুগলবন্দি পোশাক তৈরি করে। বাকি নেই পহেলা বৈশাখও। টিনএজারদের জন্য তারা ফিউশনধর্মী ভিন্ন কাটিংয়ে একই নকশার পোশাক তৈরি করে। মাঝ বয়সী আর পরিবারের সবার কথা চিন্তা করে রং আর নকশায় পরিবর্তন আনা হয়।

 

উত্সবে মূলত প্রিয়জনের সঙ্গে মিলিয়ে অনেকেই একই রকম পোশাক পরতে চায়। বয়স আর পরিবেশের কথা চিন্তা করে ডিজাইনাররা এসব পোশাক তৈরি করছেন। দেশীয় নকশার সঙ্গে মিল রেখে পাশ্চাত্য কাটিংয়ের মিশ্রণে তরুণদের জন্য তৈরি হচ্ছে ভিন্নধর্মী পোশাক। প্রথম দিকে এসব পোশাকে তরুণদের আগ্রহ বেশি থাকলেও এখন সব বয়সীদের পছন্দের তালিকায় স্থান পেয়েছে যুগল পোশাক।

 

পাঞ্জাবির চাহিদা বছরের অন্য সময়ের তুলনায় এ সময়টাতে থাকে একটু বেশি। বাঙালি বলে কথা, তাই পোশাকেও থাকতে হবে বাঙালির ঐতিহ্য। আর তাই হাতে হালকা লাল রঙের কাজ, গলা ও পিঠে সাদামাটা লালের ছটায় বর্ণিল পাঞ্জাবিগুলোর চাহিদা বেশি। মোঘল পোশাকের ক্যাটিং বা সেমি-ফিট পাঞ্জাবি বেশি চলছে এবার।

 

রঙের সঙ্গে কমলা, হলুদ, নীল ও অন্যান্য রঙও ব্যবহার করা হচ্ছে বৈশাখের পোশাকে। তবে কেন্দ্রীয় রঙ লাল-সাদাই রাখা হয়। প্রতি বছর পহেলা বৈশাখে রমনার বটমূল, বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস, বৈশাখের সব অনুষ্ঠানে দেখা যায় লাল-সাদা শাড়ির বাহার। চুড়ি, টিপ, গহনা, লিপস্টিক এমনকি জুতা, ব্যাগও হয়ে থাকে লাল-সাদা রঙের। বৈশাখের শাড়ি কেনার জন্য বাজেটটা অনেক হতে হবে তা নয়। বরং সুন্দর ঐতিহ্যবাহী নকশার শাড়ি কমদামে কিনতে পাওয়া যাবে আজকেরডিলের ওয়েবসাইটে।

দেশের যেকোন প্রান্ত থেকে যুগলরা তাদের পছন্দসই পোশাক কিনতে চাইলে আজকেই ঢুঁ মারতে পারেন অনলাইন শপ আজকেরডিলর ওয়েবসাইটে। পণ্য পছন্দ হলে অর্ডার করলে ঢাকার মধ্যে ২৪ ঘন্টায় আর ঢাকার বাইরে ৪ কার্যদিবসের মধ্যে পন্য পৌঁছে দেবে। যারা পহেলা বৈশাখের ঐতিহ্যবাহী কাপল ড্রেস কিনতে চান তারা এখানে ক্লিক করুন

 


আরোও সংবাদ