থাই রাজবধূর আপত্তিকর ভিডিও ফাঁস

প্রকাশ:| মঙ্গলবার, ২৭ মে , ২০১৪ সময় ০৯:৩৩ অপরাহ্ণ

থাই রাজবধূর আপত্তিকর ভিডিও ফাঁসথাইল্যান্ডের রাজপরিবারকে দেশটিতে খুবই শ্রদ্ধার সঙ্গে দেখা হয়। সেই রাজপরিবারের যুবরাজ ও তাঁর স্ত্রীর একান্ত ঘরোয়া অনুষ্ঠানের একটি ভিডিওচিত্র ফাঁস করে দিয়েছে ব্রিটিশ ট্যাবলয়েড ডেইলি মেইলের অনলাইন সংস্করণ। এ কারণে থাই সরকার দেশটিতে ডেইলি মেইলের ওয়েবসাইট বন্ধ করে দিয়েছে।

ভিডিওতে একটি পোষা কুকুরের জন্মদিন উদযাপনের সময় প্রায় নগ্ন অবস্থায় দেখা যায় যুবরাজ মাহার স্ত্রী শ্রীরশ্মিকে। ব্যাংককের থাই রয়েল প্যালেসে ভিডিওচিত্রটি ধারণ করা হয়। এ সময় স্ত্রীর পাশেই ছিলেন যুবরাজ।

গত শনিবার ডেইলি মেইলের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, থাই রাজপরিবারকে নিয়ে আপত্তিকর ভিডিও প্রকাশকে সম্ভবত ‘রাজদ্রোহ’ আইনের লঙ্ঘন হিসেবে দেখা হয়েছে। গত সপ্তাহে ক্ষমতা দখল করা থাই সেনাবাহিনী হয়তো ওই আইনটি প্রয়োগ করেছে।
রাজদ্রোহ আইনে বলা আছে, রাজা বা রাজপরিবারের কোনো সদস্যের পরিবারের সম্মানহানি হয়, এমন কিছু করলে ১৫ বছর পর্যন্ত কারাদণ্ড হতে পারে। যেকোনো ব্যক্তি এই আইনে অভিযোগ করতে পারে। সেই অভিযোগের তদন্ত করতে পুলিশ বাধ্য।
প্রতিবেদনে আরও বলা হয়, থাইল্যান্ডে ডেইলি মেইল অনলাইন ব্লক করার ব্যাপারে এখন পর্যন্ত থাই কর্তৃপক্ষ আনুষ্ঠানিক বক্তব্য দেয়নি। লন্ডনের রয়্যাল থাই দূতাবাসও এ নিয়ে কোনো প্রতিক্রিয়া জানায়নি।
ইন্টারনেটে সেন্সর করা দেশগুলোর মধ্যে অন্যতম থাইল্যান্ড। ‘এশিয়া স্যান্টিনেল’-এর হিসাব অনুযায়ী শুধু ২০১০ সালেই দেশটিতে ১ লাখ তিন হাজারের বেশি ওয়েবসাইট ব্লক করা হয়। এর পর থেকে ইংলাক সিনাওয়াত্রার সরকার প্রায় ২ লাখ ওয়েবসাইট ব্লক করেছে। ফেসবুক, ওয়েবসাইট ও টুইটার বিভিন্ন সময় থাইল্যান্ডে সাময়িকভাবে বন্ধ করা হয়েছে। বিবিসি, সিএনএন ও হিউম্যান রাইটস ওয়াচের কয়েকটি ওয়েব পেজও বন্ধ করা হয়েছে।