‘তিস্তা মার্চ’ করবে সিপিবি-বাসদ

প্রকাশ:| শনিবার, ৫ এপ্রিল , ২০১৪ সময় ০৯:৩৯ অপরাহ্ণ

তিস্তার পানির ন্যায্য হিস্যা আদায়ের দাবিতে ‘তিস্তা মার্চ’ ঘোষণা করেছে বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি (সিপিবি) ও বাংলাদেশ সমাজতান্ত্রিক দল (বাসদ)। তিস্তার ন্যায্য পানির অভাবে উত্তরাঞ্চল মরুভূমিতে পরিণত হচ্ছে। সরকারের নতজানু পররাষ্ট্র নীতির কারণেই তিস্তা চুক্তি বাস্তবায়ন হচ্ছে না মন্তব্য করে গতকাল দুপুরে রাজধানীর মুক্তিভবনে যৌথভাবে সংবাদ সম্মেলন করে কর্মসূচি ঘোষণা করেন দুই দলের নেতৃবৃন্দ। সংবাদ সম্মেলনে ভারতের অসহযোগিতা ও বাংলাদেশ সরকারের নিষ্ক্রিয়তার বিভিন্ন তথ্য তুলে ধরে নেতৃবৃন্দ ১৭ থেকে ১৯শে এপ্রিল তিস্তা নদীপাড়ে অভিযাত্রা ‘তিস্তা মার্চ’ ঘোষণা করেন। ১৭ই এপ্রিল বিকাল ৩টায় জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে সমাবেশ করে তিস্তা মার্চ শুরু হবে। তার আগে ৭ই এপ্রিল দেশব্যাপী ‘দাবি দিবস’ পালন করবে দল দুটি।

৭ই এপ্রিল ‘দাবি দিবস’ উপলক্ষে সারা দেশে বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হবে। ওই দিন ঢাকায় জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে বিকাল সাড়ে চার টায় বিক্ষোভ সমাবেশ করবে সিপিবি ও বাসদ। ১৭ই এপ্রিল বিকাল ৩টায় ঢাকা থেকে তিস্তা মার্চের যাত্রা শুরু হবে। ওই দিন জাতীয় প্রেসক্লাব-টঙ্গী-গাজীপুর হয়ে সিরাজগঞ্জ। পরদিন ১৮ই এপ্রিল সকাল ১০টায় সিরাজগঞ্জে সমাবেশ। এরপরে বগুড়ার উদ্দেশে যাত্রা, বিভিন্ন স্থানে জনসংযোগ ও বেলা তিনটায় বগুড়ায় জনসভা। ১৯শে এপ্রিল সকালে বগুড়া থেকে রংপুরের উদ্দেশে যাত্রা শুরু। সকাল ১০টায় রংপুরে সমাবেশ। এরপর ডালিয়া পয়েন্টে তিস্তা ব্যারাজ অভিমুখে যাত্রা ও হাতিবান্ধার দোয়ানী বাজারে জনসভা করবে দল দুটি। এতে অন্যান্য বামপন্থী-প্রগতিশীল, পরিবেশ আন্দোলনসহ বিভিন্ন নাগরিক আন্দোলনের প্রতিনিধিকে অংশগ্রহণের জন্য আহবান জানিয়েছেন সিপিবি-বাসদের নেতৃবৃন্দ।

সংবাদ সম্মেলনে বক্তারা বলেন, পানির অভাবে তিস্তা বিধৌত এলাকা মরুভূমিতে পরিণত হচ্ছে। তিস্তা অববাহিকার ১২ উপজেলার ৬৫ হাজার হেক্টর জমির বোরো ধানের চারা জমিতে শুকিয়ে যাচ্ছে। বাংলাদেশ পানি উন্নয়ন বোর্ডের হিসাবে, শীত মৌসুমে তিস্তা নদীতে ১৪ হাজার কিউসেক পানি প্রবাহিত হতো। কিন্তু সীমান্তেরর ৬৫ কিলোমিটার উজানে গজলডোবা ব্যারেজে ভারতের পানি প্রত্যাহারের পর বাংলাদেশ অংশে পানি প্রবাহ আশঙ্কাজনকভাবে কমেছে। খরা পরিস্থিতিতে এ প্রবাহ এখন ৫০০ কিউসেকে দাঁড়িয়েছে। সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন, সিপিবির সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আবু জাফর আহম্মেদ, বাসদের সাধারণ সম্পাদক খালেকুজ্জামান, সিপিবির আহসান হাবিব, রুহিন হোসেন প্রিন্স, বাসদের কেন্দ্রীয় নেতা বজলুর রশীদ ফিরোজ, জাহিদুল হক মিলু, রাজেকুজ্জামান রতন প্রমুখ।


আরোও সংবাদ