তিন হাজার কোটি টাকা জমা দিল জিপি-বাংলালিংক

নিউজচিটাগাং২৪/ এক্স প্রকাশ:| শুক্রবার, ১৬ ফেব্রুয়ারি , ২০১৮ সময় ০৯:১০ অপরাহ্ণ

স্পেকট্রাম ফির অংশ এবং স্পেকট্রামের প্রযুক্তি নিরপেক্ষতার ফি হিসেবে তিন হাজার ৪১ কোটি ৬৪ লাখ ৯৭ হাজার টাকা জমা দিয়েছে গ্রামীণফোন ও বাংলালিংক।

অপারেটর দুটি বৃহস্পতিবার বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশনে শর্তসাপেক্ষে এই ফি জমা দেয়।

ভ্যাট সংক্রান্ত বিষয়টি এখনও অর্থমন্ত্রণালয়ের অনুমোদনের অপেক্ষায় আছে। মন্ত্রীর অনুমোদনের পর যে সিদ্ধান্ত আসবে সেটি মেনে নিয়েই পরবর্তীতে তারা বাকি টাকা (প্রয়োজন হলে) দেবে এমন লিখিত চুক্তি করার পরেই টাকা নিয়েছে বিটিআরসি।

মোট টাকার মধ্যে গ্রামীণফোন স্পেকট্রামের প্রযুক্তি নিরপেক্ষতার ফি হিসেবে দিয়েছে ৪২৫ কোটি ৫৫ লাখ টাকা। আর বাংলালিংক তাদের স্পেকট্রামের প্রযুক্তি নিরপেক্ষতার জন্য দিয়েছে ২৯০ কোটি ১৫ লাখ টাকা।

অন্যদিকে মঙ্গলবার দুই অপারেটর যে স্পেকট্রাম কিনেছে তার জন্যে গ্রামীণফোন দিয়েছে ৭৭০ কোটি ৯৭ কোটি টাকা। আর বাংলালিংক দিয়েছে এক হাজার ৫৩৪ কোটি ৯৭ লাখ ৬৪ হাজার টাকা।

4g-techshohor

নীতিমালা অনুসারে স্পেকট্রাম ফির ৬০ শতাংশ অপারেটরদেরকে ৩০ দিনের মধ্যে জমা দেওয়ার কথা ছিল। কিন্তু মাত্র দুই দিনের মধ্যেই তারা এই ফি পরিশোধ করে দিল।

ফোরজি সেবা চালুর প্রস্তুতি হিসেবেই দ্রুততার সঙ্গে তারা এই ফি পরিশোধ করল বলে জানিয়েছে অপারেটর দুটির শীর্ষ কর্মকর্তারা। বাকি টাকা দশ শতাংশ হারে চার বছরে পরিশোধ করবে দুই অপারেটর।

এদিকে রবি এয়ারটেলের স্পেকট্রামের প্রযুক্তি নিরপেক্ষতার ফি হিসেবে দিয়েছে এক কোটি ৫৭ লাখ ৯৮ হাজার টাকা। আর রবির নিজেদের স্পেকট্রামের প্রযুক্তি নিরপেক্ষতার ফি হিসেবে দিয়েছে আরো ৩২৭ কোটি ৪২ লাখ ১৮ হাজার টাকা।

এয়ারটেলের স্পেকট্রামের মেয়াদ আছে আর মাত্র এক বছর সে কারণেই তাদের স্পেকট্রামের প্রযুক্তি নিরপেক্ষতার ফি অনেক কম হয়েছে।

অন্যদিকে সরকারি অপারেটর টেলিটকের স্পেকট্রামের প্রযুক্তি নিরপেক্ষতার ফি তিন’শ কোটি টাকা হলেও সে বিষয়ে কি সিদ্ধান্ত হবে তা এখনও জানা যায়নি।

আগামী ১৯ ফেব্রুয়ারি চার অপারেটরকে ফোরজির লাইসেন্স দেওয়া হবে আর তখন থেকেই তারা এই সেবাটি ঢাকা, চট্টগ্রামসহ বড় শহরগুলোতে চালু করবে বলে জানা গেছে।