তিন অপহরণকারীকে অস্ত্রসহ পুলিশে সোপর্দ

নিউজচিটাগাং২৪/ এক্স প্রকাশ:| সোমবার, ৫ ডিসেম্বর , ২০১৬ সময় ০৯:১৪ অপরাহ্ণ

%e0%a6%a4%e0%a6%bf%e0%a6%a8-%e0%a6%85%e0%a6%aa%e0%a6%b9%e0%a6%b0%e0%a6%a3%e0%a6%95%e0%a6%be%e0%a6%b0%e0%a7%80চট্টগ্রামের রাউজান উপজেলার পাহাড়তলী ইউনিয়ের বহলপুর গ্রামে স্থানীয় জনতা অপহৃত ব্যক্তিসহ তিন অপহরণকারীকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করে। এ সময় তাদের কাছ থেকে দেশিয় তৈরি অস্ত্র, অপহরণে ব্যবহৃত ২টি মোবাইল ফোন, বেশকিছু মোবাইল নম্বর লিখিত কাগজভর্তি মানিব্যাগ উদ্ধার করা হয়।

আটককৃত তিন অপহরণকারী হলো- বোয়ালখালী থানার পশ্চিম হরনদ্বীপের গোলাপুর রহমান টেন্ডলের বাড়ির খোরশেদ আলমের ছেলে মো. ফরহাদ প্রকাশ ফরিদ ডাকাত (৩৭), রাউজানের বাগোয়ান ইউনিয়নের কোয়েপাড়া গ্রামের মুজিবের ছেলে আলমগীর (৩৪), বহলপুর গ্রামের মাদক ব্যবসায়ী বাবুলে ছেলে জয়ন্ত দে (২২)।

অপহৃত ব্যক্তি মোহাম্মদ ওসমান (৩৮) বোয়ালখালী উপজেলার পুর্ব চরণদ্বীপ ৯ নং ওয়ার্ডের শফিউল আলম মেম্বারের বাড়ির শাহ আলমের পুত্র।

ঘটনাস্থলের স্থানীয় মেম্বার লিটন বড়ুয়া জানান, সোমবার সকাল সাতটার দিকে মহামুনি উচ্চ বিদ্যালয়ের পূর্বপাশে রামমণি বিলের পাশে কয়েকজন মিলে একজনকে মারধর করছে, এমনটি দেখে পাশের বাড়ির এক মহিলা চিৎকার করে। তার চিৎকারে স্থানীয় জনতা ধাওয়া করে অপহৃত ব্যক্তিসহ তিন অপহরণকারীকে আটক করে। এসময় আরো ২/৩ জন পালিয়ে যায়।

অপহৃত ব্যক্তি ওসমান জানান, সে বোয়ালখালীর হরণদ্বীপে রোববার সন্ধ্যা ৭ টার দিকে খালে জাল ফেললে সেখানকার জামাল নামে ব্যক্তি ফোন করে তার অবস্থান জেনে নেয়। এর পাঁচ মিনিট পর একটি ইঞ্জিন চালিত নৌকা আসে। নৌকা থেকে চার/পাঁচ জন নেমে তাকে কালো টুপি পড়িয়ে বহলপুর ঘটনাস্থলে নিয়ে যায়। সেখানে তাকে মারধর করে। তার মোবাইল থেকে তার স্ত্রীকে ফোন করে প্রথমে এক লক্ষ টাকা দাবি করে পরবর্তীতে ধাপে ধাপে এই দাবি বিশ হাজার টাকায় নেমে আসে। টাকা না আসলে সকালে মেরে খালের পাশে গর্তে পুতে ফেলার হুমকি দেয়। সকালে সে প্রকৃতির ডাকে সাড়া দেয়া সুযোগ পেলে দৌঁড়ে পালিয়ে যেতে চেষ্ঠা করলে তারা তাকে ধাওয়া করে মারতে থাকে। এ সময় তার চিৎকারে তখন এলাকাবাসীরা ছুটে এসে উদ্ধার করে।
বোয়ালখালী থেকে দেখতে আসা লোকজন ও স্থানীয়রা জানান, ওসমান চেইন ইয়াবা ব্যবসায়ী আর ফরিদ বোয়ালখালীর কুখ্যাত ডাকাত। ইয়াবা ব্যবসা ভাগের গরমিলের কারণে এই ঘটনাটি ঘটতে পারে বলে ধারণা করেন।
রাউজান উপজেলার ওসি কেপায়েত উল্লাহ জানান, অপহৃত ব্যক্তি ছাড়াও তিন অপহরণকারীকে আটক করেছি। এদের কাছ থেকে ইতোমধ্যে তিনটি অস্ত্র উদ্ধার হয়েছে। আভিযান অব্যাহত রয়েছে এবং মামলার প্রস্তুতি চলছে।


আরোও সংবাদ