তাহাজ্জুদের নামাজ কাজা করি না

প্রকাশ:| রবিবার, ৪ মে , ২০১৪ সময় ১০:৪৫ অপরাহ্ণ

Samim_Osman_124368082‘যারা ছাত্রলীগ করে তারা গুন্ডা না। নজরুল ছাত্রলীগ করা ছেলে। সে নেতা। সে রাস্তা থেকে উঠে আসা গুন্ডা না। আমি তাকে নেতা হিসেবে গড়ে তুলেছি। সে মরায় আমারই হাত ভাংছে।’

নারায়নগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের(নাসিক) প্যানেল মেয়র নজরুল ইসলামসহ ৭ জন অপহরণ ও হত্যার ঘটনায় রোববার নারায়ণগঞ্জের সানারপাড়ে আয়োজিত প্রতিবাদ সমাবেশে স্থানীয় এমপি শামীম ওসমান এ মন্তব্য করেন।

অপহরণে নজরুলসহ অন্যান্যদের নিহতের প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘র‌্যাব মারছে? জানি না। পুলিশ মারছে? জানি না। কে মারছে জানি না তবে জানি আমার ভাই মরছে, ছেলে মরছে।’

এরপর তিনি বলেন, ‘কেউ কেউ নজরুলের মৃত্যুতে আমাকে দোষারোপ করে কথা বলছেন। আমি বলি নজরুল মরায় আমার হাত ভাঙ্গছে। আমি নিজ হাতে তারে তৈরি করছি। সে রাস্তা থেকে উঠে এসে নেতা হয়নি। আজ আমি বুঝতে পারছি যারা এসব কথা বলে তারা পারভেজরে মারছে। নজরুলরে মারছে।’

সমাবেশে অংশগ্রহণকারীদের উদ্দেশে তিনি বলেন, ‘আপনারা জনগণ। ভাইবন্ধু। এখন আপনারা বলেন রাজনীতি করমু না ছাইড়া দিমু? আমারতো মনে হয় আমার আর যোগ্যতা নাই। আমি আমার পোলাপানদের কর্মীদের রক্ষা করতে পারতেছি না। আমি শামীম ওসমান, আমারে জীবন রক্ষায় থানায় জিডি করতে হয়।’

তিনি বলেন, ‘…এখন আমার একে একে সব মনে পড়তেছে। ১৮ এপ্রিল জনসভা হইলো। সেই জনসভায় আইভি (সেলিনা হায়াত আইভি) বললো শামীম ওসমানের চেলা-চ্যামুন্ডাদের করুণ পরিণতি হইবে। সে দেখাইলো।’

শামীম ওসমান বলেন, ‘কেউ কেউ বলে, আমি ঠাণ্ডা ঠাণ্ডা কথা কই। বয়স হইছে দেইখা ঠাণ্ডা কথা কই। তাহাজ্জুদের নামাজ কাজা করি না। সকালে ঘুম থেইকা উইঠা কোরআন শরীফ পড়ি। রাতে ঘুমাতে যাওয়ার সময়ও কোরআন শরীফ পড়ি। তবুও ফকিন্নির পুতরা আমার বাপ মা তুইলা আমারে গালি দেয়।’
‘সবাইরে ক্ষমা কইরা দিছিলাম। যারা আমার কর্মীদের মারছে, আমার এবং আমার ভাইয়ের বাড়িতে হামলা চালাইছে কিন্তু এখন আমি আমার ছেলেদের রক্ষা করতে পারছি না।’

শামীম ওসমান আরও বলেন, এক রেকডিং সিডিতে আমাকে অশ্রাব্য ভাষায় আমাকে মা বাপ তুলে গালাগাল করা হয়েছে। সেলিম, সুফিয়ান এরাই আমাকে গালিগালাজ করেছে। তারা নিজেদের মধ্যে বলাবলি করেছে নিজে বাঁচতে মাথা ফালায়া দাও। যারা পারভেজ, মাকসুদকে নিখোঁজ করেছে তারেই নজরুলকে তুলে নিয়ে গেছে।’


আরোও সংবাদ