তামাশার এ নির্বাচন গণতন্ত্রের ইতিহাসে কলঙ্ক তিলক : পেশাজীবী পরিষদ

প্রকাশ:| শনিবার, ২১ ডিসেম্বর , ২০১৩ সময় ১১:৪৩ অপরাহ্ণ

কৌশলে সাড়ে চার কোটি ভোটারের ভোটাধিকার হরণ করে দশম সংসদ নির্বাচনের নামে সরকার যে তামাশা শুরু করেছে তা গণতন্ত্রের ইতিহাসে কলঙ্ক তিলক হয়ে থাকবে বলে মন্তব্য করেছেন চট্টগ্রামে পেশাজীবী নেতারা।
শনিবার দুপুরে চট্টগ্রামে পেশাজীবীদের উদ্যোগে অনুষ্ঠিত মানববন্ধন ও সমাবেশে বক্তারা এসব কথা বলেন।
নির্দলীয় সরকারের অধীনে গ্রহণযোগ্য নির্বাচন, বন্ধ গণমাধ্যম খুলে দেওয়া, দেশব্যাপী হত্যা-নির্যাতন বন্ধ ও জাতীয় নেতৃবৃন্দসহ দৈনিক আমার দেশ সম্পাদক মাহমুদুর রহমানের মুক্তির দাবিতে নগরীর নুর আহমদ সড়কস্থ চট্টগ্রাম মেট্টোপলিটন সাংবাদিক ইউনিয়ন (সিএমইউজে) চত্বরে বাংলাদেশ সম্মিলিত পেশাজীবী পরিষদ, চট্টগ্রামের উদ্যোগে এ মানববন্ধনের আয়োজন করা হয়।

বাংলাদেশ বার কাউন্সিলের সদস্য এডভোকেট কবীর চৌধুরীর সভাপতিত্বে সমাবেশে বক্তারা বলেন, একদলীয় কোটারীর নির্বাচন শুধুমাত্র একদলীয় শাসন ও ফ্যাসিবাদের উত্থান ঘটাবে না, এটা অপরিসীম ত্যাগ ও সংগ্রামের বিনিময়ে বাংলাদেশে সীমিত পরিসরে হলেও যে গণতন্ত্র ও জবাবদিহীর শাসনের ধীর অগ্রগতি ঘটছে তার বিকাশকেও চরমভাবে রুদ্ধ করবে। সীমাহীন দুর্নীতি, রাষ্ট্রীয় সম্পদ লুটপাটের পথকে প্রসারিত করবে। এর অবশ্যম্ভাবী পরিণতিতে ইতিমধ্যেই হুমকিগ্রস্থ হয়ে পড়েছে দেশের স্বাধীনতা, সার্বভৌমত্ব, অর্থনীতি ও সামাজিক স্থিতিশীলতা।

বক্তারা অবিলম্বে দশম সংসদ নির্বাচনের তফসিল বাতিল করে নতুন তফসিল ঘোষণার মাধ্যমে দেশে রাজনৈতিক স্থিতিশীলতা ফিরিয়ে আনা ও একটি অংশগ্রহণমূলক নির্বাচন অনুষ্ঠানের পরিবেশ সৃষ্টির দাবি জানান।