বিএনপি চাইলে যেকোনো জায়গাতেই আমরা আলোচনায় প্রস্তুত আওয়ামী লীগ

প্রকাশ:| শনিবার, ১৪ সেপ্টেম্বর , ২০১৩ সময় ০৯:৩৯ অপরাহ্ণ

বিএনপি চাইলে আওয়ামী লীগ যেকোনো স্থানে আলোচনায় প্রস্তুত বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রীপুত্র সজীব ওয়াজেদ জয়।যেকোনো জায়গায় আলোচনায় প্রস্তুত: জয়
sojib-wajed-joy_ctg_জয়_1
শনিবার চট্টগ্রামে তরুণদের সঙ্গে এক মতবিনিময় শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে একথা বলেন তিনি।

প্রধানমন্ত্রীর তথ্য ও প্রযুক্তি বিষয়ক উপদেষ্টা জয় বলেন, “বিরোধী দলই নির্বাচন নিয়ে অনিশ্চয়তা সৃষ্টি করছে। আমরা সংবিধান অনুযায়ী নির্বাচন করতে চাই।”

সেন্টার ফর রিসার্চ অ্যান্ড ইনফরমেশন নামে একটি প্রতিষ্ঠান চট্টগ্রাম ক্লাব মিলনায়তনে ‘লেটস টক’ শিরোনামে তরুণদের সঙ্গে জয়ের মতিবিনিময়ের আয়োজন করে।

মতিবিনিময় শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে জয় বলেন, “আলোচনার জন্য সংসদই হচ্ছে মূল জায়গা। তবে বিএনপি চাইলে যেকোনো জায়গাতেই আমরা আলোচনায় প্রস্তুত।”

তিনি বলেন, “তারা একবার আলোচনা করতে চায়, আবার চায় না। আবার আলোচনা চাইলেও সংসদে আসবে না। এভাবে নির্বাচন নিয়ে অনিশ্চয়তা সৃষ্টির চেষ্টা চালাচ্ছে তারা।”

সংশোধিত সংবিধান অনুযায়ী অন্তর্বর্তী সরকারের অধীনে বর্তমান সরকারের শেষ ৯০ দিনে আগামী সংসদ নির্বাচন হওয়ার কথা। তবে তত্ত্বাবধায়ক সরকার ছাড়া নির্বাচনে যাবে না বলে ইতিমধ্যে বলে দিয়েছে বিএনপি।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা স্পষ্ট বলেছেন, নির্বাচন আয়োজনের বেলায় সংবিধান থেকে এক চুলও নড়চড় করা হবে না।

প্রধান দুই দলের এমন অনড় অবস্থানের মধ্যেই গত ২৩ আগস্ট প্রধানমন্ত্রী ও বিরোধীদলীয় নেতার সঙ্গে টেলিফোনে আগামী নির্বাচন নিয়ে কথা বলেন জাতিসংঘের মহাসচিব বান কি-মুন। তিনি দুই নেত্রীকেই বলেন, বাংলাদেশে সব দলের অংশগ্রহণে সুষ্ঠু, নিরপেক্ষ ও গ্রহণযোগ্য নির্বাচন দেখতে আগ্রহী জাতিসংঘ।

এ অবস্থায় যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, চীন ও ইউরোপীয় ইউনিয়নসহ বিভিন্ন দেশের পক্ষ থেকে প্রধান দুই রাজনৈতিক দলের মধ্যে সমঝোতা এবং সংলাপের তাগিদ দেওয়া হচ্ছে। একই বিষয়ে ইউরোপীয় ইউনিয়নের একটি প্রতিনিধি দল দু’দলের সঙ্গে বৈঠক করে।

গত ৫ সেপ্টেম্বর সংলাপে বসতে যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রী জন কেরির আহ্বানে ইতিবাচক মনোভাব দেখিয়েছে আওয়ামী লীগ ও বিএনপি।

শুক্রবার সন্ধ্যায় যুক্তরাজ্যের পার্লামেন্টারি গ্রুপের একটি প্রতিনিধি দলের সঙ্গে বৈঠকে বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়া বলেন, সরকার চাইলে যেকোনো সময় বিএনপি সংলাপে বসতে প্রস্তুত।

যেকোনো জায়গায় আলোচনায় প্রস্তুত: জয়
তরুণদের সঙ্গে মতবিনিময় শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলছেন সজীব ওয়াজেদ জয়। ছবি: ফোকাস বাংলা
চট্টগ্রামে মতিবিনিময় সভায় চট্টগ্রামের বিভিন্ন সরকারি ও বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রায় দুইশ শিক্ষার্থী অংশ নেন। এসব শিক্ষার্থীর বিভিন্ন প্রশ্নের জবাব দেন জয়। পরে সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নেরও উত্তর দেন তিনি।

নির্বাচন সামনে রেখে এর আগে শুক্রবার ঢাকায় বিভিন্ন শ্রেণি-পেশায় ‘সফল’দের সঙ্গে মতবিনিময়ে অংশ নেন জয়।

তরুণদের সঙ্গে মতবিনিময়ের আগে চট্টগ্রাম আওয়ামী লীগের জ্যেষ্ঠ নেতারা জয়ের সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেন।

তরুণদের সঙ্গে মতবিনিময় প্রসঙ্গে জয় বলেন, “আমার মেসেজ হচ্ছে তরুণদের কানেক্ট করা। তরুণরা কী ভাবছে, সেটা জানতে এবং তাদের সঙ্গে সরাসরি মতবিনিময় করতে আমি এসেছি।”

তরুণদের প্রত্যাশা কেমন দেখলেন- জানতে চাইলে তিনি বলেন, “তরুণদের প্রত্যাশা হচ্ছে দেশ যাতে পিছিয়ে না যায়। তারা চায়- সন্ত্রাসমুক্ত একটি গণতান্ত্রিক দেশে থাকতে। তারা চায়- দেশ যাতে এগিয়ে যায়। তারা চায়- আয় বাড়াতে। তারা চায়- তারা যাতে একটা চাকরি পায়। এটা শুধু তাদেরই নয়, সবারই প্রত্যাশা।”

গত ১৬ জুলাই সপরিবারে দেশে আসেন সজীব ওয়াজেদ জয়। দেশে এসে জয় দলীয় বিভিন্ন অনুষ্ঠানে যোগ দেন।

দেশে থাকা অবস্থায় তার জন্মদিনে একটি অফিসিয়াল ফেইসবুক পেইজ খোলা হয়। ২০ আগস্ট জয়ের ফেইসবুক পেইজকে আনুষ্ঠানিক স্বীকৃতি (ভেরিফাই) দেয় ফেইসবুক কর্তৃপক্ষ। এই প্রথম বাংলাদেশের কোনো ব্যক্তির পেইজকে স্বীকৃতি দিল ফেইসবুক।

এর আগে ৪ আগস্ট জয় যুক্তরাষ্ট্রে যান। ৫ সেপ্টেম্বর তিনি আবার দেশে ফেরেন। দেশে ফিরে গত ১২ সেপ্টম্বর সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময় সভায় জয় বলেন, আগামী তিন দিন খেয়াল রাখুন। চমক দেখতে পাবেন।