তত্ত্বাধায়ক সরকারের অধীনে করার আহ্বান জানিয়েছেন ড. কামাল হোসেন

প্রকাশ:| সোমবার, ৯ সেপ্টেম্বর , ২০১৩ সময় ১০:৪২ অপরাহ্ণ

ড. কামাল হোসেনসুপ্রিম কোর্টের রায় অনুসারে আগামী দুটি জাতীয় সংসদ নির্বাচন তত্ত্বাধায়ক সরকারের অধীনে করার আহ্বান জানিয়েছেন গণফোরম সভাপতি ও বিশিষ্ট আইনজীবী ড. কামাল হোসেন।তত্ত্বাবধায়কে নির্বাচনের আহ্বান কামালের

সোমবার রাজধানীর দক্ষিণ কমলাপুরে গণফোরাম দক্ষিণ মতিঝিল শাখার আয়োজনে এক মতবিনিময় সভায় তিনি এ আহ্বান জানান।

এ সময় ড. কামাল হোসেন সংবিধান সংশোধনেরও আহ্বান জানান।

তিনি বলেন, “তত্ত্বাধায়ক নিয়ে অহেতুক বিতর্ক করা হচ্ছে। কিন্তু কেন করা হচ্ছে আমি বুঝি না। সরকার কি চায় ১৯৮৬ সালের এরশাদের আমলের মতো মিডয়া ক্যু নির্বাচন করতে। আমি এটাও বিশ্বাস করি না।”

সংবিধান বিশেষজ্ঞ ড. কামাল বলেন, “দেশের সর্বোচ্চ আদালতের রায়ে বলা হয়েছে, জনগণের নিরাপত্তা ও প্রয়োজনে আগামী দশম ও ১১তম সংসদ নির্বাচন তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধীনে হতে পারে।”

মতবিনিময় সভায় গণফোরাম দক্ষিণ মতিঝিল শাখার সভাপতি শাহ আলম সভাপতিত্ব করেন।

সংবিধানের পঞ্চদশ সংশোধনী অনুযায়ী বর্তমান সরকারের মেয়াদের শেষ ৯০ দিনে ‘অন্তর্বর্তী সরকারের’ অধীনে আগামী দশম জাতীয় নির্বাচন হওয়ার কথা। ২০১১ সালে উচ্চ আদালত তত্ত্বাবধায়ক সরকার ব্যবস্থা বাতিল করার পর সংবিধানে এই সংশোধনী আনা হয়।

সে হিসেবে বর্তমান নবম সংসদের মেয়াদ শেষ হওয়ার কথা আগামী ২৭ অক্টোবর।

প্রধান বিরোধী দল বিএনপি ‘নির্দলীয় সরকারের’ অধীনে আগামী নির্বাচন আয়োজনের দাবি জানিয়ে আসছে। ‘নির্দলীয় সরকার’ ছাড়া নির্বাচনে না যাওয়ার পাশাপাশি নির্বাচন হতে না দেওয়ার কথা বিএনপির পক্ষ থেকে এর আগেও একাধিকবার বলা হয়েছে।

প্রধানমন্ত্রী গত ২ সেপ্টম্বর সোমবার সচিবালয়ে সচিবদের সঙ্গে বৈঠকে বলেন, সংবিধান অনুযায়ী সংসদের মেয়াদ ২০১৪ সালের ২৪ জানুয়ারি শেষ হবে। এই মেয়াদ শেষ হওয়ার আগেই ৯০ দিনের মধ্যে যেকোনো দিন নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। এই সময়ে সংসদ থাকবে, তবে কোনো অধিবেশন বসবে না এবং সরকার কোনো নীতিগত সিদ্ধান্ত গ্রহণ করবে না।