ঢামেক;সাংবাদিক প্রবেশে যে নীতিমালা প্রত্যাহার

প্রকাশ:| রবিবার, ২৭ এপ্রিল , ২০১৪ সময় ০৯:০৪ অপরাহ্ণ

ঢামেকঢাকা মেডিকেল কলেজে (ঢামেক) সাংবাদিক প্রবেশে যে নীতিমালা চালু করেছিল কর্তৃপক্ষ তা প্রত্যাহার করে নিয়েছে।

আজ রোববার হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মোস্তাফিজুর রহমান সাংবাদিকদের সঙ্গে এক বৈঠকে এ সিদ্ধান্তের কথা জানান। স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের নির্দেশে নীতিমালা প্রত্যাহারের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে বলেও জানান পরিচালক।

শনিবার থেকে হাসপাতালের জরুরি বিভাগে সাংবাদিক প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছিল। এ নিয়ে বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমে খবর প্রকাশিত হয় রোববার। একদিনের মাথায় নিয়মটি প্রত্যাহার করে নেয় হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।

বিকেলে বাংলাদেশ মেডিকেল রিপোটার্স অ্যাসোসিয়েশনের সঙ্গে জরুরি বৈঠকে আলোচনাকালে মোস্তাফিজুর রহমান, উপ পরিচালক মুশফিকুর রহমান, সহকারী পরিচালক (প্রশাসন) খাজা আবদুল গফুর, আবসিক সার্জন ডা. কেএম রিয়াজ মোর্শেদ উপস্থিত ছিলেন।

সাংবাদিকদের প্রতিনিধি হয়ে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ মেডিকেল রিপোর্টারস অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি আওরঙ্গজেব সজীব, সাধারণ সম্পাদক আমিনুল ইসলাম বাবুল, সাংগঠনিক সম্পাদক আবাদুজ্জামান শিমুলসহ বিভিন্ন পত্রিকা ও টিভি চ্যানেলের সাংবাদিকরা উপস্থিত ছিলেন।

বৈঠকে হাসপাতাল পরিচালক মোস্তাফিজুর রহমান জানান, সাম্প্রতিক সময়ে বিভিন্ন হাসপাতালে ইন্টার্নিদের সঙ্গে সাংবাদিকদের সংঘর্ষের যেসব ঘটনা ঘটেছে সেসব ঘটনা যাতে না ঘটে সেজন্য ঢাকা মেডিকেলে সাংবাদিকদের প্রবেশে একটি নীতিমালা তৈরি করা হয়েছিলো। কিন্তু সবার সঙ্গে আলোচনা করে এখন সেই নীতিমালা প্রত্যাহার করা হচ্ছে।

পরিচালক বলেন, সাংবাদিকরা আগে যেভাবে হাসপাতালে প্রবেশ করতে পারত, এখনও সেভাবে প্রবেশ করতে পারবে, তবে রোগীদের স্বার্থে কিছু কিছু ওয়ার্ড বা ওটিতে না যাওয়াই ভালো।

তিনি আরো বলেন, তবে বিশেষ ক্ষেত্রে কখনো কোনো ওয়ার্ডে যেতে হলে জরুরি বিভাগের চিকিৎসকের শরণাপন্ন হলে আশা করি সবারই ভালো হবে।

উল্লেখ, সাংবাদিকদের সঙ্গে চিকিৎসকদের অপ্রীতিকর ঘটনা যাতে আর না ঘটে সেজন্য ঢামেক হাসপাতালে সাংবাদিক প্রবেশে নীতিমালা করা হয়েছিলো।

নীতিমালায় কোনো ওয়ার্ডে যেতে হলে জরুরি বিভাগে কর্তব্যরত চিকিৎসকের কাছে কোথায় যাবেন এবং কেন যাবেন তার কারণসহ নাম ও ঠিকানা লিখে একটি অনুমতি পত্র নিয়ে যেতে হবে। কাজ শেষে অনুমতিপত্র আবার জমা রেখে যাবার কথাও বলা হয়েছিলো সেই নীতিমালায়।


আরোও সংবাদ