ঢাকা গ্ল্যাডিয়েটর্সের মামলার আদেশ বুধবার

প্রকাশ:| বৃহস্পতিবার, ২৩ অক্টোবর , ২০১৪ সময় ১১:০৬ অপরাহ্ণ

প্রতারণা ও অর্থআত্মসাতের অভিযোগে আইসিসি’র দুর্নীতি বিরোধী ইউনিট আকুস’র শীর্ষ ৫ কর্মকর্তা ও বিসিবি’র সিইও’র বিরুদ্ধে চট্টগ্রামের আদালতে করা মামলাটির আদেশের তারিখ আগামী ২৯ অক্টোবর, বুধবার নির্ধারণ করেছেন আদালত।

ঢাকা গ্ল্যাডিয়েটর্সএর আগে বৃহস্পতিবার চট্টগ্রাম মূখ্য মহানগর হাকিম (সিএমএম) মশিউর রহমানের আদালতে এ মামলাটি দায়ের করেন ঢাকা গ্ল্যাডিয়েটর্সের কর্ণধার সেলিম চৌধুরী।

সিএমএম আদালতের পেশকার নুর-ই খোদা বলেন, ‘বাদী পক্ষের জবানবন্দী আদালত গ্রহণ করে আদেশের জন্য অপেক্ষমান রেখেছেন। সন্ধ্যা ৬টার পর এ বিষয়ে আদেশ দেয়ার কথা থাকলেও আদালত মামলাটি পর্যালোচনা করে আগামী ২৯ অক্টোবর বুধবার আদেশের দিন ধার্য্য করেছেন।’

মামলা আসামীরা হলেন-আইসিসির প্রধান নির্বাহি ডেভ রিচার্ডসন, আকসু চেয়ারম্যান স্যার রোনাল্ড ফ্ল্যানগান, আকসুর প্রধান যোগিন্দ্র পল সিং, আকসু কর্মকর্তা ধর্মবীর সিং যাদব, ঢাকা গ্ল্যাডিয়েটর্সের কোচ ইয়ান পন্ট, বিসিবি’র প্রধান নির্বাহি কর্মকর্তা নিজাম উদ্দিন চৌধুরী সুজন।

মামলার এজাহারের বাদী উল্লেখ করেছেন, ২০১৩ সালের ২ ফেব্রুয়ারি বিপিএলের দ্বিতীয় আসারে চট্টগ্রামের এম এ আজিজ স্টেডিয়ামে ঢাকা গ্ল্যাডিয়েটর্সের বনাম চিটাগং কিংসের ম্যাচে যে স্পট ফিক্সিং হবে সেটা আসামীরা আগে থেকেই জানতেন বলে ফিক্সিংয়ের ঘটনায় সংঘটিত বিচারের রায়ে উল্লেখ করেছেন।

অথচ ফিক্সিং বন্ধে তারা কোনো উদ্যোগ নেননি বা ম্যাচ বন্ধ করে দেননি। ম্যাচ ফিক্সিংয়ের বিষয়টি জানার পরও তারা ম্যাচ বন্ধ না করে হাজার হাজার দর্শক ও দেশের মানুষের সঙ্গে প্রতারণা ও অসততার আশ্রয় নিয়েছেন।

ম্যাচ পাতানোর বিষয়টি জানার পরও আসামীরা কোন ব্যবস্থা না নিয়ে পরষ্পর যোগসাজশে উল্টো ম্যাচ আয়োজনের ব্যবস্থা করেছে দর্শকদের সাথে প্রতারণা করেছেন। তাদেও বিরুদ্ধে দ-বিধির ৪১৮, ৪২৫, ৪২৭ ও ১০৯ ধারায় মামলাটি দায়ের করা হয়েছে।