ডেড সার্টিফিকেট দেওয়া হয়নি। ময়নাতদন্তও ঠিক মতো করা হয়নি

প্রকাশ:| শনিবার, ৭ অক্টোবর , ২০১৭ সময় ০৭:০৭ অপরাহ্ণ

বিকেল সাড়ে তিনটার সময় প্রয়াত নায়ক সালমান শাহ’র মা নীলা চৌধুরী চট্টগ্রামের মুসলিম হল ইনস্টিটিউট মিলনায়তনের সমাবেশ মঞ্চে এসে যখন বসলেন তখন সেখানে একে একে বক্তব্য দিচ্ছিলেন এই চিত্রনায়কের ভক্তরা। তাদের সেই বক্তব্যে ওঠে আসছিল সালমান শাহকে নিয়ে আবেগ, নানান কথা। এসব শুনে একটু পর পর রুমাল দিয়ে চোখ মুছছেন নীলা চৌধুরী।

শনিবার (০৭ অক্টোবর) সালমান শাহ ‘হত্যার’  প্রতিবাদ ও অবিলম্বে বিচারের দাবিতে সালমান শাহ ঐক্যজোট, চট্টগ্রাম এই সমাবেশের আয়োজন করে। এতে প্রধান অতিথির বক্তব্য দেন নীলা চৌধুরী।

এছাড়া বক্তব্য দেন সালমান শাহ ঐক্যজোট, চট্টগ্রামের সভাপতি তানভির সায়েম, সাধারণ সম্পাদক সালমান হায়দার, অরিন্দম চক্রবর্তী, আরিফ জয়, লোকমান হোসেন, নাসির চৌধুরী, মেহেরাজ প্রমুখ।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে নীলা চৌধুরী বলেন, ‘সালমান শাহ’র মৃত্যুর পর তার শোকে ৪১জন মানুষ মারা গেছে বলে আমি শুনেছি। আমি তো তাদের দেখতে পাইনি। এখন তাই আপনাদের কাছে আসলাম। আপনারা আমার ছেলেকে ভালোবাসেন।আপনাদের কথা শুনতে এসেছি।’

সালমান শাহকে আত্মহত্যা করা হয়েছে উল্লেখ করে নীলা চৌধুরী বলেন, সালমান শাহ যেদিন মারা গেল সেদিন থেকে সে আত্মহত্যা করেছে এটা রটাতে হত্যাকারীরা নিজেরাই পকেটে পকেটে চিরকুট বিলি করে।’নীলা চৌধুরীসহ অন্যরা

তিনি বলেন, ‘তারা রশিতে ঝুলালো। আসলে তো রশিতে ঝুলানো হয়নি। ফ্যানটা ফ্যানের জায়গায় রয়ে গেছে। রশিটা সোজা কাটানো থেকে গেছে। তাকে (সালমান শাহ) শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয়েছে। পরে গোসল করিয়ে গায়ে তেল মাখিয়ে দেয়, যাতে গলায় বসানো ফিংগার প্রিন্ট নষ্ট হয়ে যায়।’

গলায় কান্নার সুর নিয়ে নীলা চৌধুরী বলেন, ‘সালমানকে হসপিটালে নেওয়া হলো। কোনো ডাক্তার দেখলো না। কোনো ডেড সার্টিফিকেট দেওয়া হয়নি। ময়নাতদন্তও ঠিক মতো করা হয়নি।’