ডা. শাহাদাত হোসেনের ক্লিনিকে হামলাকারীরা সরকারি দলের

প্রকাশ:| শুক্রবার, ৬ ফেব্রুয়ারি , ২০১৫ সময় ১০:৫৭ অপরাহ্ণ

Untitled-115নগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক ডা. শাহাদাত হোসেনের ক্লিনিকে বৃহস্পতিবার গভীর রাতে হামলার জন্য সরকারি দলকে দায়ী করেছে স্থানীয় বিএনপির নেতারা। তারা এঘটনার তীব্র নিন্দা জানিয়ে হামলাকারীদের অবিলম্বে গ্রেপ্তারের দাবি জানিয়েছে।

শুক্রবার সন্ধ্যায় গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে নগর বিএনপির পক্ষে বিএনপির কেন্দ্রিয় ও স্থানীয় নেতারা এ দাবি করেন।

বিবৃতিতে স্বাক্ষর করেন, বিএনপির কেন্দ্রীয় বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান ও সাবেক মন্ত্রী এম মোর্শেদ খান, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা ও চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির সভাপতি আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী, বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক গোলাম আকবর খন্দকার, দক্ষিণ জেলা বিএনপির সভাপতি জাফরুল ইসলাম চৌধুরী, সাবেক হুইপ সৈয়দ ওয়াহিদুল আলম, সাবেক সাংসদ বেগম রোজী কবির, কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য শামসুল আলম, মাহবুবুর রহমান শামীম, মহানগর বিএনপিরসহ সভাপতি আবু সুফিয়ানসহ বিএনপি নেতারা।

বিবৃতিতে নেতারা বলেন, ‘সরকার তার অবৈধ ক্ষমতাকে দীর্ঘস্থায়ী করতে রাষ্ট্রীয় সন্ত্রাসের পাশাপাশি দলীয় সন্ত্রাসী বাহিনীকে লেলিয়ে দিয়েছে। তারই ধারাবাহিকতায় এখন রাজনৈতিক নেতারা বাসভবন, ব্যবসায়ীক প্রতিষ্ঠান এমনকি ক্লিনিকে পর্যন্ত হামলা করা হচ্ছে। এর অংশ হিসেবে বৃহস্পতিবার রাতে মহানগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক ডা. শাহাদাত হোসেনের চেম্বার ও ক্লিনিকে হামলা চালিয়েছে। রোগী থাকাকালীন ক্লিনিকে এ হামলা প্রমাণ করে সরকার তার ক্ষমতা ধরে রাখতে পাগল হয়ে গেছে। কোনো চিকিৎসকের চেম্বারে এ ধরনের হামলা চট্টগ্রামের রাজনৈতিক ইতিহাসে খারাপ দৃষ্টান্ত হয়ে থাকবে। রাতের আঁধারে বর্বরোচিত ও কাপুরষোচিত এ হামলা একমাত্র আওয়ামী লীগ ও তার অনুগত সন্ত্রাসী বাহিনীদের ক্ষেত্রেই মানায়।’

হামলায় জড়িতদের গ্রেপ্তার করে বিচারের আওতায় আনার জোর দাবি জানিয়ে নেতারা বলেন, ‘হামলাকারীদের যদি আইনের আওতায় না আনা হয় তাহলে জনগণকে সঙ্গে নিয়ে এ হামলার সমুচিত জবাব দেয়া হবে এবং সন্ত্রাসীদের প্রতিরোধ করা হবে।’

এঘটনার প্রতিবাদ জানিয়ে বিবৃতি দিয়েছেন নগরীর ১১ থানার সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক। নগর যুবদল, ছাত্রদল ও স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি-সম্পাদকরা।