রুপন’র মৃত্যু হয়েছে মস্তিষ্কের রক্তক্ষরণে সংবাদ সন্মেলনে বিএমএ

প্রকাশ:| সোমবার, ২৭ জুন , ২০১৬ সময় ১১:৩৫ অপরাহ্ণ

রুপম
শংকর চৌধুরী,খাগড়াছড়ি: ডাক্তারের অবহেলায় নয় মস্তিষ্কের ভিতরে রক্তক্ষরণে সড়ক দুর্ঘটনায় আহত পরিবহন শ্রমিক রুপন দে’র মৃত্যু হয়েছে, সংবাদ সন্মেলনে বাংলাদেশ মেডিকেল এসোসিয়েশন (বিএমএ)।
খাগড়াছড়ি জেলা শহরের চেঙ্গী ব্রীজ এলাকায় ২২-০৬-২০১৬ইং রাস্তার পাসে দাড়িয়ে থাকা চাঁদের গাড়ী (জীপ) ও সিএনজিকে অপর দিক থেকে আসা একটি বেপরোয়া ট্রাক ধাক্কা দিলে চাঁদের গাড়ী চালক রূপন দেসহ ৩ জন ঘুরতর আহত হয়। আহতদের সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয় চিকিৎসারত অবস্থায় ঐদিন রাতে রুপন দে’র মৃত্যু হয়, এদিকে ডাক্তারের অবহেলায় পরিবহন শ্রমিকের মৃত্যু হয়েছে এমন খবর শহরে যানাযানি হলে উত্তেজিত শ্রমিকরা রাতে সদর হাসপাতাল ও একটি বে-সরকারি ডায়াগনস্টিক সেন্টারে হামলা চালিয়ে ভাংচুর করে।

এর প্রতিবাদ ও জেলায় কর্তব্যরত ডাক্তারদের নিরাপত্তার দাবি করে গত ২২ শে জুনের ঘটনার সাার্বিক চিত্র তুলে ধরে সোমবার বিকেলে সদর হাসপাতালের সম্মেলন কক্ষে সংবাদ সম্মেলনে চিকিৎসকদের সংগঘন বাংলাদেশ মেডিকেল এসোসিয়েশন (বিএমএ)খাগড়াছড়ি জেলা শাখা। সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে বিএমএ ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ডাঃ শহীদ তালুকদার বলেন যে কোন মৃত্যুই দুঃখ্যজনক এবং বেদনার। এটা যেমন সবার জন্য সত্য তেমনি চিকিৎসকদের বেলায়ও সত্য তবে ডাক্তারের অবহেলায় নয় মস্তিষ্কের ভিতরে প্রচুর রক্তক্ষরণে চিকিৎসারত অস্থায় সড়ক দুর্ঘটনায় আহত পরিবহন শ্রমিক রুপন দে’র মৃত্যু হয়েছে শ্রমিকদের ডাক্তারদের বিরোধ্যে করা অভিযোগ সত্য নয়।

এমতাবস্থায় কর্তব্য অবহেলার অভিযোগে জনগণের সম্পত্তি সদর হাসপাতাল ভাংচুর এবং কর্তব্যরত চিকিৎসক, কর্মচারীদের উপর হামলা এবং একই সাথে শহরে বে-সরকারি ডায়াগনষ্টিক সেন্টার চিকিৎসকদের চেম্বার ও প্রাইভেট হাসপাতালে ভাংচুরের মত ঘটনা অনভিপ্রেত এবং দুঃখজনক ও প্রতিবাদ জানিয়ে তিনি আরো বলেন, এভাবে বার বার মিত্যা অভিযোগ এনে চিকিৎসক ও চিকিৎসা প্রতিষ্ঠানের উপর হামলা ও ডাক্তারদের হুমকি প্রদান এ জেলার চিকিৎসা ব্যস্থা ব্যাহত হতে পারে। সকলের কাছে উক্ত ঘটনার সুষ্ঠু সমাধান কামনা করে বলেন, ভবিষ্যতে এ ধরনের মিথ্যা অভিযোগ এনে চিকিৎসক এবং চিকিৎসা প্রতিষ্ঠানের উপর হামলার চেষ্টা করলে বাংলাদেশ মেডিকেল এসোসিয়েশন কঠোর কর্মসূচী দিতে বাদ্য হবে বলেও উল্লেখ্য করেন তিনি।

এসময় সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাবে জেলার সিভিল সার্জন ডা: নিশিত নন্দী মজুমদার জানান ঘটনার সুস্থ্য তদন্তের জন্য পাচঁ সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে কমিটিকে তিন কার্য দিবসের মধ্যে প্রতিবেদন জমা দিতে বলা হয়েছে। এতে আরো উপস্থিত ছিলেন বিএম’র সহ-সভাপতি ডা: সনজিব ত্রিপুরা, সাধারণ সম্পাদক ডা: টুটুল চাকমা, সাংঘটনিক সম্পাদক ডা: নয়নময় ত্রিপুরা, মেডিকেল অফিসার মিঠুন চাকমা ডা: সুর্পনা খীসা ও ডা: জয়া চাকমা প্রমুখ্য।

এদিকে “তদন্ত কমিটি” প্রত্যাখান করে প্রশাসনকে ৩ দিনের আল্টিমেটাম। নিহত পরিবহন শ্রমিক রুপন দে’র মৃত্যুর ঘটনায় তদন্তে গঠিত কমিটি প্রত্যাখান করে বাস-মিনি শ্রমিক ইউনিয়ন সংগঠন গত বৃহস্পতিবার বিকেলে খাগড়াছড়ি সড়ক পরিবহন মালিক সমিতির কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলন পরিবহণ শ্রমিক নেতারা সংগঠনটির পক্ষ থেকে জেলা প্রশাসকের কাছে দেওয়া এক স্বারক লিপিতে মঙ্গলবার (২৮জুন) এর মধ্যে কর্তব্যরত অভিযুক্ত দুই ডাক্তারকে প্রত্যাহার করে বিচার বিভাগীয় তদন্ত কমিটি গঠন করা না হলে। অন্যথায় সড়ক অবরোধসহ কঠোর কর্মসূচী ঘোষণার আল্টিমেটাম দেন সংবাদ সন্মেলনে শ্রমিক নেতারা। সংবাদ সম্মেলনে শ্রমিক নেতা এসএম শফি অভিযোগ করে বলেন, গত বুধবার রাতে পরিবহন শ্রমিক রুপন দে সদর হাসপাতালে কর্তব্যরত চিকিৎসকদের অবহেলায় বিনা চিকিৎসায় মৃত্যু বরণ করেছে। এ ঘটনার সুষ্ঠু তদন্তের জন্য প্রশাসনের আশ্বাসে পাঁচ সদস্যের তদন্ত কমিটিতে পরিবহন শ্রমিক সংগঠনের কাউকে রাখা হয়নি। এতেই প্রমাণ করে সুষ্ঠু তদন্ত অনিশ্চিত। শীঘ্রই সকল প্রতিনিধির সমন্বয়ে তদন্ত কমিটি গঠন পূর্বক সুষ্ঠু তদন্তের জোর দাবী জানান নেতৃবৃন্দরা। পাশাপাশি তাদের এই দাবী মানা না হলে সড়ক অবরোধসহ কঠোর কর্মসূচী ঘোষণার আল্টিমেটাম দেওয়া হয়। সাংবাদিক সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন পরিবহন শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি মোঃ আবু তাহের, মালিক গ্র“পের সাধারণ সম্পাদক এস.এম শফি, ৩নং পৌর ওয়ার্ড কাউন্সিলর মোঃ শাহ আলম ও জীপ সমিতির প্রতিনিধি মো: আজিম প্রমূখ।


আরোও সংবাদ