ট্রেনের অবস্থান, ট্রেনের গতিবেগ, ট্রেনের বিলম্ব সহ নানা তথ্যও যাত্রীরা ঘরে বসেই জানতে পারবেন

প্রকাশ:| সোমবার, ২০ জানুয়ারি , ২০১৪ সময় ১১:০১ অপরাহ্ণ

বাংলাদেশে প্রথমবারের মতো পরীক্ষামূলকভাবে রেলওয়েতে ‘ট্রেন ট্র্যাকিং মনিটরিং সিস্টেম’ চালু করা হয়েছে।

আধুনিক তথ্য প্রযুক্তির এই সিস্টেম এর মাধ্যমে প্রথম পর্যায়ে গুরুত্বপূর্ণ ট্রেন এবং পরবর্তী পর্যায়ে সকল ট্রেনের অবস্থান, ট্রেন ছাড়া ও ট্রেন পৌঁছানোর সময়, ট্রেনের বিলম্বসহ নানা তথ্য সঠিক সময়ে গ্রামীণ ফোন মোবাইলে এসএমএস এর মাধ্যমে যাত্রীরা জানতে পারবেন।

এছাড়া বাংলাদেশ রেলওয়ের ঢাকা, চট্টগ্রাম, পাকশী, লালমনিরহাট এই ৪টি বিভাগীয় এবং চট্টগ্রাম, রাজশাহী ২টি আঞ্চলিক কন্ট্রোল অফিস থেকেও কম্পিউটার মনিটরিং এর মাধ্যমে অন লাইনে সঠিক সময় ট্রেনের অবস্থান, ট্রেনের গতিবেগ, ট্রেনের বিলম্ব সহ নানা তথ্যও যাত্রীরা ঘরে বসেই জানতে পারবেন।

বৃহস্পতিবার বিকেল বিকেলে রেলভবনে আনুষ্ঠানিকভাবে এই নতুন তথ্য প্রযুক্তির শুভ উদ্বোধন করেন সদ্য দায়িত্বপ্রাপ্ত রেলপথ মন্ত্রী মুজিবুল হক।

এ সময় মন্ত্রী বলেন, ‘যাত্রীদের সুবিধার্থে বাংলাদেশ রেলওয়ে এক যুগান্তকারী পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে। বর্তমান সরকার জনগণের কল্যাণেই সব কিছু করে। যাত্রীদের সুবিধার জন্যই আমরা আজ এই পদ্ধতি চালু করলাম।’

মন্ত্রী আরো বলেন, ‘রেলওয়ে একটি নিরাপদ সাশ্রয়ী ও সহজ যোগাযোগ ব্যবস্থা। বর্তমান প্রধানমন্ত্রী রেলখাতকে গুরুত্ব দিয়ে আলদা মন্ত্রণালয় গঠন করেছেন। বর্তমানে রেলওয়েতে ১৮ হাজার ৩শ ১০ কোটি টাকার ৩৮টি প্রকল্প চলমান আছে। সব গুলো প্রকল্প বাস্তবায়িত হলে বাংলাদেশ রেলওয়ে উন্নত বিশ্বের পর্যায়ে চলে যাবে।’

মন্ত্রী আরো বলেন, ‘বিগত বিএনপি আমলে রেলওয়ে ছিলো শতভাগ অবহেলিত। এ অবহেলিত রেলখাতকে আওয়ামী লীগ সরকারই প্রথম অধিক গুরুত্ব দিয়ে বিভিন্ন প্রকল্প হাতে নিয়েছে।’

এছাড়া রেলপথ মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. আবুল কালাম আজাদ, বাংলাদেশ রেলওয়ের মহাপরিচালক মো. আবু তাহের বক্তব্য রাখেন।

পরে মন্ত্রী সুইচ টিপে ট্রেন ট্র্যাকিং ও মনিটরিং সিস্টেম উদ্বোধন করেন।

উল্লেখ্য, এ পদ্ধতিতে এসএম এস এর নমুনা tr Train no. অথবাtr Train name লিখে ১৬৩১৮ নম্বরে পাঠালে ফিরতি এসএমএস এর মাধ্যমে বর্ণিত ট্রেনের তাৎক্ষণিক অবস্থান জানা যাবে।

প্রাথমিকভাবে শুধু মাত্র গ্রামীণ ফোন লিমিটেডের মোবাইল ফোন থেকে এ সেবা পাওয়া যাবে।


আরোও সংবাদ