টেন্ডুলকারের ওয়ানডের সেঞ্চুরির রেকর্ড কোহলি ভাঙতে চলেছে-গাভাস্কার

প্রকাশ:| শুক্রবার, ১ নভেম্বর , ২০১৩ সময় ০৮:৫১ অপরাহ্ণ

অন্য কেউ কথাটা বললে হয়তো এ নিয়ে বাঁকা চোখে তাকানো যেত। কিন্তু মন্তব্যটা খোদ সুনীল গাভাস্কারের। একসময় ক্রিকেট বিশ্বে চায়ের কাপের খোরাক ছিল এই আলোচনা—টেস্টে গাভাস্কারের ৩৪ সেঞ্চুরির রেকর্ড শচীন টেন্ডুলকার ভাঙতে পারবেন কি না? সেই গাভাস্কার এখন আলোচনা জমিয়ে দিলেন—টেন্ডুলকারের ওয়ানডের ৪৯ সেঞ্চুরির রেকর্ড কি বিরাট কোহলির হাতেই ভাঙতে চলেছে?
কোহলি
পরিসংখ্যানেও কিন্তু রয়েছে তারই পূর্বাভাস। ১১২ ওয়ানডেতে ইনিংসে ৪৯১৯ রান করেছেন কোহলি। সেঞ্চুরি ১৭টি! ১১২ ওয়ানডে ইনিংস খেলার পর টেন্ডুলকারের নামের পাশে ছিল ৪০০১ রান। সেঞ্চুরি ছিল আটটি! ১৭ সেঞ্চুরিতে পৌঁছাতে সবচেয়ে কম সময় লেগেছে কোহলিরই। তাঁর পরে আছেন সৌরভ গাঙ্গুলী। কিন্তু সৌরভের ১৭ সেঞ্চুরি এসেছিল ১৭০ ওয়ানডে ইনিংসে। সাঈদ আনোয়ার ১৭ সেঞ্চুরি করেছিলেন ১৭৭ ওয়ানডে ইনিংসে। ক্রিস গেইলের লেগেছে ১৮২টি ওয়ানডে ইনিংস। আর যাঁর সঙ্গে তুলনা হচ্ছে, সেই টেন্ডুলকারের ১৭টি সেঞ্চুরি করতে লেগেছিল ১৮৯টি ওয়ানডে ইনিংস।

টেস্ট রেকর্ডের দিক দিয়ে টেন্ডুলকার হয়তো নিজেকে ধরাছোঁয়ার বাইরে নিয়ে গেছেন। তবে কোহলির ব্যাটে যে পূর্বাভাস, তাতে গাভাস্কার মনে করেন, ৪৯ ওয়ানডে সেঞ্চুরির রেকর্ড হয়তো এই ভারতীয়ই ভেঙে দেবেন, ‘রেকর্ড তো গড়াই হয় ভাঙার জন্য। আমরা জানি টেন্ডুলকারের কিছু রেকর্ড ধরাছোঁয়ার বাইরে। যেমন ২০০ টেস্ট ম্যাচ কিংবা ৫১টি টেস্ট সেঞ্চুরি। তবে বিরাট যেভাবে ব্যাট করছে, তাতে ৪৯ সেঞ্চুরির রেকর্ড ভেঙে দেওয়া সম্ভব বলেই মনে হচ্ছে। বিরাটের আরও ৩২টি সেঞ্চুরি দরকার টেন্ডুলকারকে ধরে ফেলতে। ভারত এখন যে পরিমাণ ওয়ানডে খেলে, তাতে ওর পক্ষে এটা করাই সম্ভব। এই ক্রিকেট মৌসুমেই বিরাটের পক্ষে ২০-২২ সেঞ্চুরিতে চলে যাওয়া সম্ভব বলে মনে হচ্ছে।’

অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ভারতের চলমান ওয়ানডে সিরিজে গত ১৫ দিনেই কোহলি ভারতীয় ব্যাটসম্যানদের পক্ষে তিনটি দ্রুততম সেঞ্চুরির দুটো করে ফেলেছেন। কোহলির সৌজন্যেই ভারত সিরিজে পিছিয়ে পড়েও সমতা ফিরিয়েছে। সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচে ৫২ বলে সেঞ্চুরি করেছিলেন, যেটি ভারতীয়দের মধ্যে দ্রুততম ওয়ানডে সেঞ্চুরি। সর্বশেষ ষষ্ঠ ওয়ানডেতে কোহলি সেঞ্চুরি করেছেন ৬১ বলে।

টেন্ডুলকারের বিদায়ের পর ভারতীয় ক্রিকেটে যে বিরাট শূন্যতা তৈরি হবে, সেটি বিরাট কোহলির ব্যাটেই পূর্ণ হবে বলে মনে করেন গাভাস্কার, ‘বিরাট সত্যিই অসাধারণ।। আপনি যদি টেন্ডুলকার ১১৫ ওয়ানডে খেলার পর কী করেছিল, সেটাও ওর সঙ্গে তুলনা করেন, বিরাট অনেক এগিয়ে আছে। শচীনের জন্য প্রথম সেঞ্চুরিটা পেতেই ৮০টির মতো ওয়ানডে খেলতে হয়েছিল।’

ভারতের সর্বকালের অন্যতম সেরা কয়েকজন ব্যাটসম্যানের সঙ্গে একই দলে খেলার অভিজ্ঞতাও কোহলিকে সাহায্য করেছে বলে মনে করেন গাভাস্কার, ‘ভারতের সৌভাগ্য বিরাটের মতো প্রতিভা উঠে এসেছে। বাস্তবতা হলো, ও নিজের উঠতি বয়সটায় শচীন, বীরেন্দর শেবাগ, রাহুল দ্রাবিড়, ভিভিএস লক্ষ্মণের মতো ব্যাটসম্যানের সঙ্গে সময় কাটাতে পেরেছে।’

সর্বশেষ ১০ ওয়ানডে ইনিংসে চারটি সেঞ্চুরি, সর্বশেষ টানা পাঁচ ইনিংসে পঞ্চাশোর্ধ্ব স্কোর—কোহলির এই ধারাবাহিকতার আসল রহস্যটাও ফাঁস করলেন গাভাস্কার, ‘ও কন্ডিশন আর ম্যাচের পরিস্থিতি খুব ভালোভাবে পড়তে পারে। ও প্রতিপক্ষ সম্পর্কেও খুব ভালো জানে। এ কারণেই ও এত ধারাবাহিক।’

ভারতীয়দের মধ্যে সবচেয়ে দ্রুত চার হাজার রানের মাইলফলক স্পর্শ করা কোহলি পরের ম্যাচে ৮১ রান করতে পারলে ভেঙে দেবেন ভিভ রিচার্ডসের গড়া দ্রুততম সময়ে ওয়ানডেতে পাঁচ হাজার রান পূর্ণ করার রেকর্ড। ওয়ানডের নিয়ম পরিবর্তন করে খেলাটিকে পুরোপুরি ব্যাটসম্যান-বান্ধব করে ফেলাটাও কোহলির পক্ষে গেছে বলে মনে করেন গাভাস্কার।

টি-টোয়েন্টির এই যুগে কোহলির রকেট-গতিতে ছোটা টেন্ডুলকারের রেকর্ড সত্যিই চ্যালেঞ্জের মধ্যে ফেলে দিয়েছে!