টেকনাফে সোলার পার্ক হচ্ছে

প্রকাশ:| মঙ্গলবার, ১০ জানুয়ারি , ২০১৭ সময় ১১:০৯ অপরাহ্ণ

টেকনাফে ২০০ মেগাওয়াট সোলার পার্ক স্থাপনে সাউদার্ন সোলার পাওয়ার লিমিটেড নামে একটি বেসরকারি কোম্পানির সঙ্গে চুক্তি করেছে বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ড (পিডিবি)। টেকনাফে দেশের বৃহত্তম এই সোলার পার্কটি স্থাপন করা হবে।

পিডিবি ও মন্ত্রণালয় সূত্র বলছে, ২০১৫ এর অক্টোবরে সরকারের ক্রয়সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটি সিঙ্গাপুরভিত্তিক সান এডিশন এনার্জি হোল্ডিং প্রাইভেট লিমিটেডের এ-সংক্রান্ত একটি প্রস্তাব অনুমোদন করে। তখন প্রতি ইউনিট বিদ্যুৎ ১৭ সেন্টে (বাংলাদেশি মুদ্রায় ১৩ টাকা ২৬ পয়সা) কেনার অনুমোদন দেওয়া হয়। পরবর্তীতে সরকারের তরফ থেকে বলা হয় সান এডিশন নিজেদের দেউলিয়া ঘোষণা করায় প্রকল্পটি আর হচ্ছে না। চৌদ্দ মাস পর, এখন একই দামে নির্দিষ্ট সেই প্রকল্পর চুক্তি করল পিডিবি। সমালোচনা রয়েছে আন্তর্জাতিক বাজারে এখন সোলার প্যানেলসহ অন্যান্য যন্ত্রাংশের দাম কমতে শুরু করেছে। সৌর বিদ্যুতের প্রস্তাব মূল্যায়ন কমিটি নতুন প্রস্তাবের ক্ষেত্রে ১৫ সেন্টের বেশি দাম দিতে চাইছে না।

চুক্তি সই অনুষ্ঠানে বিদ্যুৎ জ্বালানি ও খনিজসম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ বলেন, সরকার নবায়নযোগ্য জ্বালানি উৎপাদনে উদ্যোগ নিচ্ছে। কৃষি জমি রক্ষা করে সৌর বিদ্যুৎ উৎপাদনের জন্য চট্টগ্রামের মিরসরাই এবং গাইবান্ধায় সরকার জমি অধিগ্রহণ করছে বলে জানান তিনি।

চুক্তি সই অনুষ্ঠানে জানানো হয়, প্রকল্পটি ১৮ মাসের মধ্যে উৎপাদনে আসবে। উৎপাদন শুরুর পর ২০ বছর পর্যন্ত এখান থেকে সরকার বিদ্যুৎ কিনবে। প্রকল্পের জন্য প্রায় সাড়ে ৬০০ একর জমির প্রয়োজন। কক্সবাজার গ্রিড সাবস্টেশন থেকে এর দূরত্ব ৪৫ কিলোমিটার। কেবল জাতীয় গ্রিডে বিদ্যুৎ সরবরাহ করলেই কোম্পানিটি দাম পাবে; সরবরাহ না করলে দাম পাবে না (নো ইলেকট্রিসিটি নো পেমেন্ট)।

চুক্তিতে পিডিবির পক্ষে সই করেন সংস্থার সচিব মিয়া মাসুদ উজজামান। সাউদার্ন এশিয়ার পক্ষে সই করেন সান এডিশনের দক্ষিণ পূর্ব-এশিয়ার প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ইসমাইল অ্যারিস গোরিয়া।

২০ বছর মেয়াদি সোলার পার্ক থেকে বিদ্যুৎ ক্রয় বাবদ সরকারের খরচ দেখানো হয় ১১০ কোটি ২০ লাখ ডলার। বাংলাদেশি মুদ্রায় এর পরিমাণ ৮ হাজার ৫৯৫ কোটি ৬৬ লাখ টাকা। সাধারণত এক মেগাওয়াট সৌর বিদ্যুৎকেন্দ্র স্থাপনে সর্বোচ্চ ১২ কোটি টাকা খরচ ধরা হয়।

স্পন্সর কোম্পানি নিজ অর্থে ও নিজ ব্যবস্থাপনায় প্রকল্পের জন্য প্রয়োজনীয় জমির সংস্থান, বিদ্যুৎ সঞ্চালনের জন্য ট্রান্সমিশন লাইন, সাব-স্টেশন নির্মাণসহ সম্পূর্ণ প্রকল্প ব্যয় নির্বাহ করবে। এর মধ্যেই সান এডিশন প্রকল্পটির পারফরম্যান্স সিকিউরিটি জমা দিয়েছিল বলে সরকারের তরফ থেকে জানানো হয়েছিল। চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে বিদ্যুৎ সচিব ড. আহমেদ কায়কাউস এবং পিডিবি চেয়ারম্যান খালিদ মাহমুদ উপস্থিত ছিলেন।


আরোও সংবাদ