টমেটোর বাজার নেমে এসেছে অর্ধেকে

প্রকাশ:| মঙ্গলবার, ৬ জানুয়ারি , ২০১৫ সময় ১০:১৭ অপরাহ্ণ

মাত্র তিন দিনের ব্যবধানে রাজশাহীতে টমেটোর বাজার নেমে এসেছে অর্ধেকে। আর দ্বিগুন বেড়েছে ট্রাকের ভাড়া। রাজশাহীর গোদাগাড়ী থেকে চট্টগ্রামের ট্রাক ভাড়া তিন দিন আগে ২৫ হাজার টাকা থাকলেও এখন ৬০ হাজারেও মালিকেরা যেতে চাইছে না।

আবার বেশির ভাগ ব্যবসায়ী ঝুঁকি নিয়ে টমেটো কিনতে চাইছে না। ফলে কৃষকের কষ্টের ফসল উঠোনেই পচে যেতে শুরু করেছে।

গোদাগাড়ী উপজেলার বিভিন্ন এলাকার টমেটো চাষীর সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, গত মওসুমে তারা টানা হরতাল-অবরোধের কারণে দেশের বিভিন্ন স্থানে টমেটো পাঠাতে না পেরে ক্ষতির সম্মুখিন হয়েছিলেন। তবে এবার তারা আশায় বুক বেঁধেছিলেন। কিন্তু শেষ পর্যন্ত তাদের সেই আশা তিন দিনের ব্যবধানে দুরাশায় পরিণত হলো।

উপজেলার পিরিজপুর গ্রামের টমেটো চাষী গোলাম রসুল জানান, রোববার তিনি প্রতি মণ পাকা টমেটো ৩৬০ টাকা দরে বিক্রি করেছেন। তিন দিনের ব্যবধানে মঙ্গলবার ওই টমেটোর দর এসে দাঁড়িয়েছে প্রতি মণ সর্বোচ্চ ১৫০ টাকা।

মহিষালবাড়ি গ্রামের টমেটো চাষী জিয়াউর রহমান বাংলামেইলকে বলেন, ‘দেশে হরতাল-অবরোধের মতো কর্মসূচি না এলে টমেটোর দাম এভাবে দ্রুত কমে যেত না। আর এক সপ্তাহ গোদাগাড়ীর কৃষকেরা যদি টমেটো রপ্তানি করতে না পারে তাহলে ক্ষতির মুখে পড়বে।

টমেটোর হঠাৎ দাম কমে যাওয়ার ব্যাপারে জানতে চাইলে নাটোর থেকে গোদাগাড়ীতে টমেটো কিনতে আসা ব্যবসায়ী শাহজাহান আলী বাংলামেইলকে বলেন, গোদাগাড়ী থেকে চট্টগ্রামের ২৫ হাজার টাকার ট্রাক ভাড়া তিন দিনের ব্যবধানে ৬০ হাজারে ঠেকেছে। কিন্তু চট্টগ্রামে টমেটোর বাজার স্থিতিশীল। আগের দামে টমেটো কিনলে ট্রাক ভাড়া চুকিয়ে ব্যবসায়ীদের লোকসান গুনতে হবে। এ কারণে টমেটোর দাম কমে গেছে।

ওই ব্যবসায়ীর দাবি, হরতাল-অবরোধের কারণে ট্রাক চালকেরা ঝুঁকি নিয়ে যেতে চাইছে না। রোববার কেনা টমেটোগুলোতেও পচন ধরতে শুরু করেছে। বাধ্য হয়ে বেশি টাকাতেই ট্রাক ভাড়া মিটিয়ে টমেটো পাঠাতে হচ্ছে।

মহিষালবাড়ি এলাকার পাইকারী টমেটো ব্যবসায়ী ইউসুফ আলী জানান, গত মওসুমে টানা হরতাল-অবরোধ কর্মসূচির মধ্যেও অতিরিক্ত টাকায় ট্রাক ভাড়া করে তিনি সিলেটে টমেটো নিয়ে যাচ্ছিলেন। পথে নাটোরে অবরোধকারীরা তাদের ট্রাক আটকায়। সেখানে তিন দিন আটকে ছিলো পাকা টমেটো ভর্তি ট্রাক। তিন দিন পর টমেটো পচে যাওয়ায় তা ফেলে দিয়ে বাড়ি ফিরেছিলেন।

এ কারণে তার মতো বেশির ভাগ ব্যবসায়ী চলতি মওসুমে অবরোধের মধ্যে আর ঝুঁকি নিয়ে টমেটো কিনতে চাইছেন না। আবার পাকা টমেটোতে পচন ধরায় টমেটো বিক্রির জন্য মরিয়া হয়ে উঠেছেন চাষীরা। ফলে চাহিদা কমে যাওয়ায় টমেটোর দাম এমনিতেই কমে গেছে।

এদিকে অতিরিক্ত ট্রাক ভাড়া নেয়ার কারণ জানতে চাইলে উপজেলা সদরের ট্রাক মালিক দুলাল হোসেন বলেন, গত মওসুমে অবরোধের মধ্যে কুমিল্লায় টমেটোসহ ট্রাক পুড়িয়ে দিয়েছিলো অবরোধকারী। এ কারণে ট্রাক মালিকরা গাড়ি রাস্তায় নামাতে চায় না। যা গাড়ি রাস্তায় নামায় তারা নিজ দায়িত্বে গাড়ি রাস্তায় নামাচ্ছে। তাই ঝুঁকির কথা বিবেচনা করেই ট্রাক ভাড়া বাড়ানো হয়েছে বলে দাবি করেন দুলাল হোসেন।

স্থানীয় কৃষি বিভাগ জানায়, গোদাগাড়ী উপজেলায় চলতি মওসুমে প্রায় দুই হাজার ৭৬০ হেক্টর জমিতে শীতকালীন টমেটোর চাষাবাদ হয়েছে। প্রতি বিঘা জমিতে কমপক্ষে ৭০ মণ টমেটো উৎপাদনের সম্ভাবনা রয়েছে। প্রতি বছর এই উপজেলায় টমেটো কেন্দ্রীক প্রায় ৪০০ কোটি টাকার কারবার হয় বলেও নিশ্চিত করেছে স্থানীয় কৃষি বিভাগ।