ঝাড়বাতির পায়ে চলা ৩৬৫…

নিউজচিটাগাং২৪/ এক্স প্রকাশ:| শনিবার, ১৪ এপ্রিল , ২০১৮ সময় ০৯:০৭ অপরাহ্ণ

আমরা বাংলায় কথা বলি, বাংলায় গান গাই, বাংলাদেশ আমাদের মাতৃভূমি।
মায়ের কোল থেকেই চারপাশের সবার কথা পর্যবেক্ষণ করে কথা শিখি, ভালোলাগা মন্দ লাগার ভাষা শিখি।
চিরাচরিত বাংলাকে উপস্থাপন করার অন্যতম মাধ্যম বাংলা সাহিত্য। সাহিত্যচর্চা করতে বিশাল বিশাল গ্রন্থের বাইরেও ছোট ছোট কিছু মাধ্যম থাকে, আর সে মাধ্যম হিসেবে সাহিত্যের ছোট কাগজের ভূমিকা অপরিসীম।
সাহিত্যরস ছড়িয়ে দিতে ছোটকাগজগুলোতে সাহিত্যিকদের একত্রিত করে এক মিলনমেলার আয়োজন হয়।
দেশের বিভিন্ন সাহিত্যিকদের একত্রিত করার কাজটি যদিও খুব একটা সহজ হয়ে থাকে না। তবুও নির্দিষ্ট কিছু সংগঠন কাজটি করে যায়। তেমনি একটি সংগঠনের নাম “ঝাড়বাতি “।
গত একবছর ধরে কাজ করে তিনটি ছোট কাগজ উপহার দিয়ে নতুন লেখক সৃষ্টিতে অগ্রণী ভূমিকা রেখেছে
আজ ১৩ই এপ্রিল ঝাড়বাতি একবছর। জন্মদিন উদযাপন করেছে ঝাড়বাতির সকল সদস্য সেই সাথে গল্প সংখ্যা ও কবিতা সংখ্যা একত্রে সম্পাদনা করার স্পর্ধা দেখিয়েছে  ঝাড়বাতির সম্পাদনা পরিষদ।
অগ্রজ কবির ভিড়ে কিছু নবীন সাহিত্যিক একত্রিত হয়ে এক বিশাল অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছিলো ঝাড়বাতি।
উপস্থিত থেকেছেন লিটলম্যাগের সংগ্রহক
কবি কমলেশ দাশগুপ্ত, উত্তরাধুনিক কবি স্বপন দত্ত, কবি হোসাইন কবির, কবি জিললুর রহমান, কবি আশীষ সেন, কবি ও গল্পকার দেবাশিস ভট্টাচার্য, কবি কমরুদ্দিন আহমেদ, কবি সাইদুল আরেফিন, কবি রমজান আলী মামুন, কবি আরিফ চৌধুরী কবি মোস্তফা হায়দার। কবি আরিফা সিদ্দিকী। কবি ও প্রবন্ধিক ইলিয়াস বাবর। কবি শহীদুল আলীম।  কবি আখতারী ইসলাম সহ আরো অনেক গুণীজন নিজেদের আসন অলংকৃত করেছিলেন।
বিকেল ৪টা থেকেই দৈনিক সুপ্রভাত স্টুডিও হলে উৎসবের আমেজ লেগেছিলো, কবি রুহু রুহেল এবং তাপস চক্রবর্তীর সঞ্চালনায় কবি পুলক বিশ্বাসের মঞ্চ ব্যবস্থাপনায় আহ্বায়ক কমিটির প্রধান বিপ্রতীপ অপুর সভাপতিত্বে শুভেচ্ছা বক্তব্য ও বাঁশরি মূর্ছনা দিয়ে হয়েছিলো শুরুটা। একে একে অন্যান্য কবিগণ স্বরচিত কবিতা পাঠ করে অনুষ্ঠান এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছিলেন। মাঝে সংগীত শিল্পী ফায়েকের কণ্ঠে নজরুলগীতি সবাইকে মায়ায় আচ্ছন্ন করেছিলো।
অনুষ্ঠানটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ ছিলো, কারণ দিনটি ছিলো সংগঠনকে পরিচালনা করতে আহ্বায়ক কমিটির পক্ষ হতে ঝাড়বাতির সদস্যদের একটি নির্দিষ্ট কমিটি উপহার দেওয়ার দিন। আহ্বায়ক কমিটি ক্ষমতা বুঝিয়ে দিলে কেক কাটার মাধ্যমে একবছর উদযাপন সম্পন্ন হয়। চট্টগ্রামের বিভিন্ন সংগঠন ঝাড়বাতিকে শুভেচ্ছা ও সাধুবাদ জানাতে আসে।
স্বপ্নদূত সংগঠন একটি সম্মাননা স্মারক প্রদান করে, এছাড়াও প্রমা আবৃতি সংগঠন হতে রাসেদ হাসান, উদিচী চট্টগ্রামের সহ-সভাপতি সুনীল ধর, বাংলা সাহিত্য চর্চা কেন্দ্র হতে শাহীন আক্তার, উঠোন, দীপশিখা, নারীকন্ঠ সহ বিভিন্ন সংগঠন তাদের শুভেচ্ছা বক্তব্য ও গুরুত্বপূর্ণ মতামত প্রদান করেছে এবং ঝাড়বাতির সর্বাত্মক সমৃদ্ধি করেছেন।
সর্বশেষ আহ্বায়ক কমিটির সর্ব সম্মতিতে কবি বিপ্রতীপ অপু উপস্থাপন করেন ঝাড়বাতির দ্বি-বার্ষিক কার্যকরী কমিটি।
কমিটি নিম্মরূপ
সভাপতি কবি ও গল্পকার দেবাশিস ভট্টচার্য। সিনিয়র সহ-সভাপতি কবি রুহ রুহেল। সহ-সভাপতি আব্দুল্লাহ আল নোমান। সাধারণ সম্পাদক কবি ও নাট্যকার তাপস চক্রবতী। সহ সাধারণ সম্পাদক কবি দেবব্রত সেন।
অর্থ সম্পাদক কবি আকাশ আজিজ। সাংগঠনিক সম্পাদক কবি সাদ হাসান। সহ সাংগঠনিক সম্পাদক শান্তনু ত্রিপাঠি
আইটি ও তথ্য বিষয়ক সম্পাদক ডাঃ আব্দুল আউয়াল।
সহ আইটি ও তথ্য বিষয়ক সম্পাদক মেহের নিগার।
কার্যকরী সদস্য কবি আশেক-ই-খোদা, কবি সানজানা সিফাত ও কবি প্রেমা চক্রবর্তী।