জয় দিয়ে খুলনার প্রস্তুতি পর্ব সম্পন্ন যুব টাইগারদের

প্রকাশ:| বৃহস্পতিবার, ১০ সেপ্টেম্বর , ২০১৫ সময় ০৯:৫৯ অপরাহ্ণ

জয় দিয়ে খুলনার প্রস্তুতি পর্ব সম্পন্ন যুব টাইগারদেরবিশ্বকাপ ক্রিকেটকে সামনে রেখে অনূর্ধ্ব-১৯ ক্রিকেট দলের খুলনায় ক্যাম্প শেষ হয়েছে। আজ বৃহস্পতিবার শেখ আবু নাসের স্টেডিয়ামে ১২ দিনের এ ক্যাম্প সম্পন্ন হয়।

শেষদিনে খুলনা জেলা একাদশের বিপক্ষে একটি প্রস্তুতি ম্যাচ খেলে মেহেদী হাসান মিরাজের দল। বৃষ্টি বিঘ্নিত ম্যাচে যুব টাইগাররা প্যারাবুলা আইনে ৬০ রানে জিয়া-অমিতদের খুলনা জেলা একাদশকে পরাজিত করে। শুক্রবার সকালেই বিকেএসপির উদ্দ্যেশ্যে রওয়ানা হবে যুব ক্রিকেট দল। শুক্রবার থেকে বিকেএসপিতে আরেকটি ক্যাম্প শুরু হবে তাদের।

প্রস্তুতি ম্যাচে যুব টাইগাররা পুরো সময় বোলিং অনুশীলন করতে না পারলেও ব্যাটিং অনুশীলনটা করেছে ভালো মতোই। খুলনা জেলা দলের বিপক্ষে টসে জিতে আগে ব্যাট করে নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৮ উইকেট হারিয়ে ২৬৯ রান সংগ্রহ করে। যদিও মাত্র ২৪ রানে প্রথম উইকেট হারিয়ে শুরুটা ভালো হয়নি তাদের। এরপর দলীয় ৩৫ রানে দ্বিতীয় ও ৭৮ রানে তৃতীয় উইকেট খুইয়ে বসে যুব ক্রিকেট দল। সাইফ ১০, পিনাক ঘোষ ১২ ও জয়রাজ ২৭ রান করে ফিরে যান। তবে এরপরেই দলের হাল ধরেন অধিনায়ক মিরাজ ও জাকির হোসেন। এ দু’জনের ৭২ রানের জুটি দলকে অনেকটা এগিয়ে নেয়। আগের দিন ব্যাটে রান না পেলেও এদিন দলকে সামনে থেকে নেতৃত্ব দেন অধিনায়ক মেহেদী হাসান মিরাজ। দলের হয়ে সর্বোচ্চ ৭৬ রান করেন এই অল রাউন্ডার। ৭৭ বলের তার ইনিংসটি ৬টি বাউন্ডারি ও ২টি ওভার বাউন্ডারি দিয়ে সাজানো ছিলো। জাকির হোসেনের ব্যাট থেকে আসে ৪৪ রান। ৫১ বলে ২টি বাউন্ডারি ও ৩টি ওভার বাউন্ডারির সাহায্যে এ রান করেন তিনি। শেষদিকে সাইফুদ্দিন ও শাহনুরও আক্রমনাত্মক ব্যাটিং করেন। শাহনুর ৩৭ বলে ৩২ ও মোসাব্বেক সান করেন ২৮ বলে ৩১ রান। খুলনার বোলারদের মধ্যে মেহেদী হাসান ২টি এবং রিজভী, নাহিদুল, জিয়াউর রহমান, রাহী ও জাহিদ একটি করে উইকেট নেন। জবাবে ব্যাট করতে নেমে খুলনার শুরুটা একেবারেই ভালো হয়নি। দলীয় ২০ রানের মধ্যেই ফিরে যান খুলনার দুই ব্যাটসম্যান। এরপর দলের হাল ধরেন মেহেদী হাসান ও আরিফুজ্জামান সাগর। দু’জন বেশ ভালোই দাপটের সাথে অনূর্ধ্ব-১৯ দলের বোলারদের মোকাবেলা করতে থাকেন। এক সময় মনে হচ্ছিলো জয়ের দিকেই যাচ্ছে খুলনা একাদশ। ৩২ ওভার শেষে ২ উইকেট হারিয়ে তখন ১৫২ সংগ্রহ খুলনার। কিন্তু এরপর বৃষ্টি শুরু হলে আর খেলা শুরু করা যায়নি। পরে প্যারাবুলা (বৃষ্টি আইন) আইনে অনূর্ধ্ব-১৯ দলকে ৬০ রানে জয়ী করা হয়। খুলনার হয়ে আরিফুজ্জামান সর্বোচ্চ ৭৫ রান করে অপরাজিত থাকেন। ৯৪ বলে ১১টি বাউন্ডারি ও একটি ওভার বাউন্ডারি ছিলো তার ইনিংসে। মেহেদী হাসান অপরাজিত থাকেন ৫৯ রানে। ৭৭ বলে ২টি ও ২টি ওভার বাউন্ডারির সাহায্যে এ রান করেন তিনি। অনূর্ধ্ব-১৯ দলের হয়ে একটি করে উইকেট নেন আব্দুল হালিম ও হাসান রানা।