জেনে শুনে ভুল বিচার করলে তা হবে মহাপাপ

প্রকাশ:| বৃহস্পতিবার, ৬ জুলাই , ২০১৭ সময় ০৪:০৩ অপরাহ্ণ

সুপ্রিমকোর্টের আপিল বিভাগের বিচারপতি নাজমুন আরা সুলতানা তার বিদায়ী বক্তৃতায় বলেছেন, জেনে শুনে ভুল বিচার করলে তা হবে মহাপাপ।
আজ দেশের নি¤œ ও সর্বোচ্চ আদালতে প্রথম নারী বিচারপতি নাজমুন আরা সুলতানার অবসর যাওয়ার পূর্বে তার শেষ কর্মদিবসে এটর্নি জেনারেল কার্যালয় ও সুপ্রিমকোর্ট আইনজীবী সমিতির দেয়া সংবর্ধনার জবাবে তিনি এসব কথা বলেন।
দেশের প্রথম নারী এ বিচারপতি বলেন, আইনজীবীদের সহায়তা ছাড়া বিচারকদের সঠিক বিচার করা কঠিন হয়ে যায়। বিচারক হিসেবে আমার যা অর্জন তা আইনজীবীদের কাছ থেকে। দেশের প্রথম নারী বিচারক হিসেবে যদি দায়িত্ব পালনে ব্যর্থ হতাম, তাহলে আজ দেশে চারশো নারী বিচারক তৈরি হতো না বলে মন্তব্য করেন তিনি।
তিনি বলেন, আল্লাহ আমাকে বিচারক বানিয়েছেন, তা না হলে আমার বিচারক হওয়া সম্ভব হতো না। আমি কখনো জেনে শুনে ও বুঝে ভুল বিচার করিনি। সব সময় সততা নিষ্ঠা ও একাগ্রতার সঙ্গে বিচার কাজ সম্পন্ন করেছি। বিচারিক ক্ষেত্রে দেয়া রায়ে অনেকে সংক্ষুব্ধ হয়ে আপিল বিভাগে গিয়েছেন, আপিল বিভাগ ওই রায়ের ওপর পরবর্তীতে সিদ্ধান্ত দিয়েছেন। শেষ কর্মদিবসে বিদায়ী বক্তৃতায় বিচারপতি নাজমুন আরা সুলতানা তার দীর্ঘ ৪২ বছরের বিচারিক জীবনের বিভিন্ন দিক তুলে ধরেন।
আজ আপিল বিভাগের ১ নম্বর বিচার কক্ষে এ সংবর্ধনা অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানে সুপ্রিমকোর্টের আপিল বিভাগের বিচারপতিগণ, সিনিয়র আইনজীবীসহ সুপ্রিমকোর্টের কয়েকশত আইনজীবী উপস্থিত ছিলেন।
এটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম বলেন, বিচারপতি নাজমুন আরা সুলতানা তার প্রজ্ঞা, মেধা ও সততা দিয়ে বিচার বিভাগকে সমৃদ্ধ করেছেন। ন্যায় বিচার প্রতিষ্ঠায় তার প্রচেষ্ঠা অব্যাহত ছিলো। সুপ্রিমকোর্ট আইনজীবী সমিতির সভাপতি এডভোকেট জয়নুল আবেদিন বলেন, বিচার কাজে দক্ষ, সৎ ও ন্যায়পরায়ণ বিচারক হিসেবে তিনি সুনাম অর্জন করেছেন। বিচারবিভাগে তার অবদান দৃষ্টান্ত হয়ে থাকবে। বক্তরা সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে বিচারপতি নাজমুন আরা সুলতানার ৪২ বছরের বর্ণাঢ্য বিচারিক জীবনের বিভিন্ন দিক তুলে ধরা হয়।
আপিল বিভাগের বিচারপতি নাজমুন আরা সুলতানা অবসরে যাচ্ছেন কাল। আজ বৃহস্পতিবার তার ছিলো তার শেষ কর্মদিবস। কাল ৭ জুলাই শুক্রবার তার বয়স ৬৭ বছর পূর্ণ হওয়ায় সর্বোচ্চ আদালতের বিচারকদের অবসরের বয়সসীমা অনুযায়ি তিনি অবসরে যাবেন।