জাসদের মন্ত্র-সমাজতন্ত্র

প্রকাশ:| শনিবার, ২৮ জানুয়ারি , ২০১৭ সময় ০৯:৫১ অপরাহ্ণ

জাসদের নেতাকর্মীরা এখন সমাজতন্ত্রের স্লোগান না দেওয়ায় হতাশা প্রকাশ করেছেন তথ্যমন্ত্রী ও দলটির একাংশের সভাপতি হাসানুল হক ইনু।

শনিবার (২৮ জানুয়ারি) চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবে এক কর্মীসভায় ইনু বলেন, আপনারা একবারও সমাজতন্ত্র বলেন না। অথচ জাসদের স্লোগান একটাই, জাসদের মন্ত্র-সমাজতন্ত্র। গ্রামগঞ্জে, শহরে কোথাও এখন এই স্লোগান শুনি না।

ইনু নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্যে বলেন, এই একটা স্লোগানই আপনাদের আওয়ামী লীগ থেকে আলাদা করবে। অন্য স্লোগান কম দেন। কিন্তু জাসদের মন্ত্র-সমাজতন্ত্র এই স্লোগানটা বেশি করে দেন। এই স্লোগান যেন সবসময় শুনি।

‘সমাজতন্ত্রের স্লোগান হারিয়ে যাচ্ছে বলেই আপনাদের মনের জোর কমে যাচ্ছে। যদি বলি দুর্নীতিবাজ এমপির বিরুদ্ধে মানববন্ধন করেন। আপনারা বলেন, মামলা দেবে, প্রটেকশন দেন। প্রটেকশন দিতে হলে আপনার দরকার কি ? আপনি কি ব্রয়লার মুরগি নাকি ?’

ইনু বলেন, জঙ্গি দমনে যে লড়াই সেই লড়াইয়ে জাসদ সামনে থাকবে। আবার দুর্নীতি, দলবাজি, ক্ষমতাবাজির বিরুদ্ধে ও সুশাসনের প্রশ্নে জাসদ ছাড় দেবে না।

নির্বাচন কমিশন গঠনের জন্য সার্চ কমিটি গঠন নিয়ে বেগম খালেদা জিয়ার সমালোচনার জবাবও দিয়েছেন তথ্যমন্ত্রী।

তিনি বলেন, রাষ্ট্রপতি যাদের সার্চ কমিটিকে রেখেছেন তাদের কেউই কোন দলের সঙ্গে যুক্ত নন। এই সার্চ কমিটি একটি দলনিরপেক্ষ কমিটি। কিন্তু খালেদা জিয়া এই কমিটিকে নাকচ করে দিয়েছেন।

‘আসলে কমিটিতে রাজাকার নেই, সেজন্য খালেদার দৃষ্টিতে এটা নিরপেক্ষ কমিটি নয়। রাজাকারের সঙ্গে আপোষ করলেই শুধু খালেদা জিয়ার দৃষ্টিতে জাতীয় ঐক্যমত্য হয়। কিন্তু জাসদ মনে করে, রাজাকার রেখে নিরপেক্ষ কমিটি কিংবা জাতীয় ঐক্যমত্য প্রতিষ্ঠার সুযোগ নেই। দেশের মানুষও রাজাকার রেখে নিরপেক্ষ কমিটি চায় না। ’ বলেন ইনু।

২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারির মতো নির্বাচন নিয়ে খালেদা জিয়া ষড়যন্ত্র করছেন মন্তব্য করে মন্ত্রী বলেন, আগামী নির্বাচন বানচাল করে অস্বাভাবিক সরকারকে ক্ষমতায় বসাতেই সার্চ কমিটি নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন খালেদা জিয়া। আর গণতন্ত্রের ঘোমটা পরে নির্বাচন কমিশন ও সার্চ কমিটি নিয়ে কথা বলে তিনি আবারও রাজনীতির মাঠে ফিরতে চাইছেন।

চট্টগ্রাম মহানগর, উত্তর ও দক্ষিণ জেলা জাসদ এই কর্মীসভার আয়োজন করে।

নগর জাসদের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ওসমান গণি চৌধুরীর সভাপতিত্বে সাধারণ সম্পাদক জসীম উদ্দিন ‍বাবুলসহ সংগঠনের নেতারা কর্মীসভায় বক্তব্য রাখেন।