জার্সিতে ফুটে উঠল দেশের ইতিহাস

প্রকাশ:| সোমবার, ২৫ জানুয়ারি , ২০১৬ সময় ০৭:৫১ অপরাহ্ণ

আল মোবারক
নতুন প্রজম্মকে দেশের ইতিহাস জানাতে এক ব্যতিক্রমধর্মী উদ্যোগ নিয়েছে চট্টগ্রামের পটিয়া উপজেলার ভাটিখাইনস্থ আল মোবারক ক্রীড়া সংঘ। ভাটিখাইন মাইটি সিক্সার্স অলিম্পিক ফুটবল টুর্নামেন্টে আল মোবারক ক্রীড়া সংঘের খেলোয়াদের জার্সি উম্মোচন করেছেন বাংলাদেশ স্পোটর্স জার্নালিস্ট এসোসিয়েশন (বিএসজেএ) চট্টগ্রামের সাধারণ সম্পাদক রুবেল খান ও সাপ্তাহিক আজকের সূর্যোদয়ের সহকারি সম্পাদক জুবায়ের সিদ্দিকী। দেশের স্বাধীনতা সংগ্রাম থেকে শুরু করে মহান মুক্তিযুদ্ধের বাঙ্গালীর বিজয়ের ইতিহাস ফুটবল টুনামেন্টের এই জার্সিতে ফুটে উঠল।
আল মোবারক ২
আল মোবারক ক্রীড়া সংঘের আনুষ্ঠানিক সঙ্গী হল চট্টগ্রামের অন্যতম বিজ্ঞাপনী প্রতিষ্ঠান এ্যাড মিডিয়া এন্ড প্রিন্টার্স ও আত্মচেতনা মানবিক উন্নয়ন সংস্থা। গতকাল দৈনিক আমার সংবাদ চট্টগ্রাম ব্যুরো অফিসে এক অনুষ্ঠানের মাধ্যমে “এ্যাডমিডিয়া” ব্র্যান্ড এর লোগো সংবলিত নতুন এই জার্সি উম্মোচন করা হয়েছে। এ সময় (বিএসজেএ) সাধারণ সম্পাদক রুবেল খান বলেন ব্যতিক্রমী জার্সিটি সত্যই প্রশংসনীয়,আল মোবারক ক্রীড়া সংঘের মাধ্যমে বাংলাদেশের ইতিহাসের বিশেষ খ্রীস্টাব্দগুলো নতুন প্রজম্ম ভালোভাবে জানাতে পারবে। এ জার্সির মাধ্যমে জানতে পারবে নতুন প্রজম্ম বাংলাদেশের ইতিহাস ঔপনিবেশিক শাসন থেকে বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধ সম্পর্কে। জাসি উম্মোচন অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন দৈনিক আমাদের অথনীতির চট্টগ্রাম ব্যুরো প্রধান মো. শহীদুল ইসলাম, সিটি নিউজ বিডি.কম এর সম্পাদক গোলাম সরওয়ার , দৈনিক আমার সংবাদের চট্টগ্রাম করেসপন্ডট এএইচএম কাউছার, আল মোবারক ক্রীড়া সংঘের উপদেষ্টা মোহাম্মদ নাছির ,ফারুখ হোসেইন, আমিনুল হক, সাজ্জাদ হোসেইন, ফয়সল হোসেইন, ইমরান বিন ইকবাল, সংগঠনের সভাপতি মোহাম্মদ কাউছার ও সাধারণ সম্পাদক ছাবেদ বিন আলী, সদস্য জুবায়ের, মাহামুদ, আজাদ, ইফতি, সাহস, হোসেইন, রাশেদ, আকাশ, জুয়েল, নয়ন, আলিফ প্রমুখ।
আল মোবারক ক্রীড়া সংঘের সভাপতি মোহাম্মদ কাউছার বলেন, অর্থনৈতিক দৈন্যদশার মাঝেও সংগঠনের নানামূখী কাজ এগ্রিয়ে চলছে। তিনি বলেন, সংগঠনিক কার্যক্রম একমাত্র অর্থের জন্য থেমে যাচ্ছে।

জানা গেছে, জার্সিগুলোতে নম্বর দেওয়া হয়েছে বাংলাদেশের ইতিহাসের বিশেষ খ্রীস্টাব্দ গুলোকে স্বরণ করে । প্রত্যেক জার্সি নম্বর হল ১৭৫৭ খ্রীস্টাব্দে ব্রিটিশ ইস্ট ইন্ডিয়া কোম্পানি পলাশীর যুদ্ধে জয়লাভের মাধ্যমে বাংলার শাসনক্ষমতা দখল করে। ১৯৪৭ খ্রিস্টাব্দে ব্রিটিশ ভারত বিভক্ত করে দুটি স্বাধীন রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠা করা হয় যথা ভারত ও পাকিস্থান। পূর্ব পাকিস্থান গঠিত হয়েছিল প্রধানত পূর্ব বাংলা নিয়ে, যা বর্তমানের বাংলাদেশ। ১৯৫২ খ্রীস্টাব্দে ভাষা আন্দোলনে পাকিস্থান দুই অংশের মধ্যে সংঘাতের প্রথম লক্ষণ হিসাবে প্রকাশ পায়। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে ১৯৬৬ খ্রিস্টাব্দে কারাবন্দী করা হয়। ১৯৬৯ খ্রিস্টাব্দে আগরতলা ষড়যন্ত্র মামলায় মাধ্যমে আবার তাঁকে বন্দী করা হয়। ১৯৭১ সালের ১৬ই ডিসেম্বর বাংলাদেশ স্বাধীনতা লাভ করে।