জামায়াতে ইসলামীর সঙ্গে সরকারের আপসকামিতা লক্ষ করা যাচ্ছে

প্রকাশ:| সোমবার, ১৬ জুন , ২০১৪ সময় ১০:২২ অপরাহ্ণ

গণজাগরণ মঞ্চের মুখপাত্র ইমরান এইচ সরকার বলেছেন, জামায়াতে ইসলামীর সঙ্গে সরকারের আপসকামিতা লক্ষ করা যাচ্ছে।
জামায়াতের কাছ থেকে সরকারের বিভিন্ন অনুষ্ঠানের অর্থ সংগ্রহ করা হচ্ছে। এতে যুদ্ধাপরাধীদের বিচারপ্রক্রিয়া বিলম্বিত হচ্ছে।
আজ রোববার মানিকগঞ্জ শহরের শহীদ রফিক সড়কে সাংস্কৃতিক বিপ্লবী সংঘে (সাবিস) পথসভা শেষে সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন ইমরান এইচ সরকার।
ইমরান বলেন, যুদ্ধাপরাধীদের সর্বোচ্চ শাস্তি নিশ্চিত করতে এবং জামায়াত-শিবিরের রাজনীতি নিষিদ্ধসহ ছয় দফা দাবি আদায়ে কাজ করে যাবে গণজাগরণ মঞ্চ।
ছয় দফা দাবি আদায়ের লক্ষ্যে দেশব্যাপী প্রচার কর্মসূচির অংশ হিসেবে আজ মানিকগঞ্জের বিভিন্ন স্থানে প্রচার চালান মঞ্চের কর্মীরা। এ সময় তাঁরা জেলা শহরের বিভিন্ন স্থানে নানা শ্রেণি-পেশার মানুষের মাঝে প্রচারপত্র বিতরণ, পথসভা ও সমাবেশ করেন।
মঞ্চের কর্মীরা আজ ঢাকা-আরিচা মহাসড়কের হেমায়েতপুর, সাভার ও নবীনগর বাসস্ট্যান্ড, মানিকগঞ্জ বাসস্ট্যান্ড এলাকায় প্রচার চালান। এরপর পদযাত্রা নিয়ে তাঁরা শহরের শহীদ রফিক সড়কে সাংস্কৃতিক বিপ্লবী সংঘে পথসভা করেন।
বিকেল সাড়ে পাঁচটার দিকে সরকারি বালক উচ্চবিদ্যালয় মাঠে শহীদ মিনারের পাদদেশে সমাবেশে ইমরান এইচ সরকার বলেন, যুদ্ধাপরাধীদের সর্বোচ্চ শাস্তি নিশ্চিত করা এবং জামায়াত-শিবিরের রাজনীতি নিষিদ্ধসহ ছয় দফা দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত মঞ্চের আন্দোলন-সংগ্রাম চলবে। বাংলাদেশের প্রতিটি ঘরে মুক্তিযুদ্ধের চেতনা পৌঁছে দিতে মঞ্চের প্রচারাভিযানও চলবে।

মঞ্চের জেলা শাখার আহ্বায়ক মোস্তাফিজুর রহমানের সভাপতিত্বে সমাবেশে সমাজতান্ত্রিক ছাত্রফ্রন্টের সাধারণ সম্পাদক জনার্দন দত্ত, বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক লাকি আক্তার বক্তব্য দেন। এ সময় বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টির (সিপিবি) জেলা শাখার সভাপতি আজহারুল ইসলাম, ঘাতক-দালাল নির্মূল কমিটির জেলা শাখার সভাপতি দীপক কুমার ঘোষ, মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সদর উপজেলা কমান্ডার ওবায়েদুল ইসলাম এবং সেক্টর কমান্ডার্স ফোরামের জেলা শাখার সভাপতি মঞ্জুর আহম্মেদ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।