জামালপুর জেলার ৭টি উপজেলায় ব্যাপক পরিমাণে পিয়াজ চাষ

প্রকাশ:| রবিবার, ২২ ডিসেম্বর , ২০১৩ সময় ১১:৪৭ অপরাহ্ণ

জামালপুর জেলার ৭টি উপজেলায় ব্যাপক পরিমাণে পিয়াজ চাষজামালপুর জেলার ৭টি উপজেলায় ব্যাপক পরিমাণে পিয়াজ চাষ হয়। পিয়াজ এখানকার কৃষকদের স্বাবলম্বি

করেছে। প্রতি মৌসুমে জমির পর জমিতে পিঁয়াজ চাষ হয় থাকে। চরাঞ্চলের কৃষকদের মতে, এবার পিঁয়াজের ফলন হয়। দামও ভাল। পিঁয়াজ বিক্রি করে অনেকে হাজার হাজার টাকা আয় করে। যার জন্যে পিঁয়াজ চাষ খুবই জনপ্রিয়তা লাভ করেছে।
জামালপুর সদর উপজেলা পিঁয়াজ চাষ সমৃদ্ধ এলাকা। এ উপজেলার চরাঞ্চলগুলোতে ব্যাপক পিঁয়াজ চাষ হয়ে থাকে। বিশেষ করে কুলুরচর, বলাইয়ের চর,লক্ষীর চর,রায়ের চর, টেবির চর, তুলশীর চর, কাদিয়ার চর, চর গজারিয়া, সাহেবের চর, চর যথার্থপুর, রাঙ্গামাটি সহ অনেক এলাকায় পিঁয়াজ চাষ করে। সরেজমিনে এ সব চর এলাকা ঘুরে জানা গেছে, এসব এলাকার এমন কোন কৃষক নেই পিঁয়াজ চাষ না করে। কৃষক ফারুক (৪০) কাদের (৩৮) ২ বিঘা জমিতে পিঁয়াজ চাষ করে বাম্পার ফলন পেয়েছিল এবং পিয়াজ বিক্রি করে ২০ হাজার টাকা আয় হয়েছিল।
এ ছাড়া সদর উপজেলা ছাড়াও ইসলামপুর, মেলান্দহ, মাদারগঞ্জ, দেওয়ানগঞ্জ ও সরিষাবাড়ী উপজেলার চরাঞ্চল গুলো পিয়াজ চাষের ব্যাপক খ্যাতি রয়েছে। মহাদান, ডাংধরা, পাররামপুর, হাতীবান্ধা, বাগারচর,বাট্টাজোড় ,চিকাজানি,রাংলা, মহাদান ও ভাটারা, বগারচর, বাট্টাজোড়, চিকাজানি,মাংলা,আদ্রা, পোলাদিঘা, সাতপোয়া ডোয়াইল ও আগুনা এলাকায় পিয়াজের বাম্পার ফলন হয়েছিল। এসব এলাকার কৃষকরা এ প্রতিবেদককে জানান, স্থানীয় কৃষি বিভাগ পিয়াজ চাষে সহায়তা করেছিল বলেই কৃষকরা হাজার হাজার টাকা আয় করে। পিঁয়াজ কৃষকদের স্বাবলম্বি করেছে।


আরোও সংবাদ