‘জাফর আহমদ মুক্তিযুদ্ধের বিজয় মেলার জাগরণীর প্রতীক’

প্রকাশ:| মঙ্গলবার, ১০ নভেম্বর , ২০১৫ সময় ০৯:১৭ অপরাহ্ণ

জাপর আহম্মদ

মুক্তিযুদ্ধের বিজয় মেলার সাবেক মহাসচিব ও স্বাধীনতা যুদ্ধের বীর সেনানী মুক্তিযোদ্ধা জাফর আহমদের মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে আলোচনা সভায় পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব এ,বি,এম মহিউদ্দিন চৌধুরী বলেছেন, জাফর আহমদ মুক্তিযুদ্ধে যে ভূমিকা রেখে গেছেন তা অতুলনীয়। আমৃত্যু তিনি মুক্তিযুদ্ধের আবিনাশী চেতনাকে মনে-প্রাণে ধারণ করতেন। আজ সন্ধ্যায় মরহুম জাফর আহমদ সি.ইন.সি স্মরণে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির ভাষণে এ কথা বলেন। তিনি বলেন, মুক্তিযুদ্ধের বিজয় মেলা মরহুম জাফর আহমদ, এম. কফিল উদ্দিন, কাজী ইনামুল হক দানু, শওকত হাফিজ খান রুশ্নি, সন্তেুাষ ধর, দীপেন চৌধুরীসহ অনেক প্রয়াত কর্মকর্তার স্মৃতিধন্য, তাদেরকে অবশ্যই আমাদের কাছে বাঁচিয়ে রাখতে হলে মানুষের কল্যাণ ও মঙ্গলে নিজেদের নিয়োজিত রাখতে হবে। তিনি আরো বলেন, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রদের মধ্যে কথিত বিরোধকে কেন্দ্র করে পুলিশ সাধারণ ছাত্রদের উপর পাঁচ শতাধিক শটগানের গুলি বর্ষণ এবং নির্যাতনের তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন। তিনি এক বিবৃৃৃৃৃতিতে ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, ঘটনায় গুলিবিদ্ধ আহত শিক্ষার্থীদের উপর পুলিশ নির্দয়ভাবে নির্যাতন চালায়। এই আচরণ মধ্যযুগীয় বর্বরতাসূলভ। মুক্তিযুদ্ধের বিজয় মেলা পরিষদের কো-চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর চৌধুরী সি.ইন.সি (স্পেশাল) এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন মুক্তিযুদ্ধের বিজয় মেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব এ,বি, এম মহিউদ্দিন চৌধুরী। বক্তব্য রাখেন পরিষদের কো-চেয়ারম্যান আলহাজ্ব বদিউল আলম, মহাসচিব মোহাম্মদ ইউনুছ, মুক্তিযুদ্ধা মহানগর কমান্ডার মোজাফফর আহমদ, মহানগর আওয়ামীলীগের সম্পাদক মন্ডলীর সদস্য , এড. ইফতেখার সাইমুল চৌধুরী, আবু তাহের, মুক্তিযুদ্ধের বিজয় মেলার পাল্টু লাল শাহা, মহানগর যুবলীগের ফরিদ মাহমুদ, ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের আতিকুর রহমান আতিক, আবুল কদর, এস.এম. সাঈদ সুমন, নেছার আহমদ, আশরাফুল গণি, কাজী রাজেশ ইমরান, আসিফ মাহমুদ, দেলোয়ার হোসেন দেলু, মরহুমের পুত্র জিয়াউদ্দিন আহমেদ প্রমূখ।


আরোও সংবাদ