জাতীয় করনের দাবিতে পটিয়ায় শিক্ষকদের কর্মবিরতি

প্রকাশ:| সোমবার, ৩১ জুলাই , ২০১৭ সময় ০৯:০১ অপরাহ্ণ

পটিয়া প্রতিনিধি:
জাতীয় শিক্ষা নীতি ২০১০ দ্রুত বাস্তবায়নসহ বিভিন্ন দাবিতে বাংলাদেশ শিক্ষক সমিতি ও বাংলাদেশ কলেজ বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির যৌথ উদ্যোগে সারাদেশের ন্যায় পটিয়ায় কর্মবিরতি পালিত হয়েছে। সোমবার সকাল ৯ টা থেকে দিনব্যাপী পটিয়ার বিভিন্ন স্কুল ও কলেজে কর্মবিরতি পালন করা হয়। উপজেলার হাইদগাঁও উচ্চ বিদ্যালয়ে বাংলাদেশ শিক্ষক সমিতির এ কর্মবিরতিতে বক্তব্য রাখেন, সমিতির পটিয়া উপজেলার সাধারণ সম্পাদক মাষ্টার শ্যামল দে, বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক রনধীর দেবনাথ, মুজাফরাবাদে স্কুলে সমিতির সভাপতি মো. ইউছুপ, এএস রাহাত আলী উচ্চ বিদ্যালয়ে ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক শাহদাতা হোসেন, শোভনদন্ডী স্কুল এন্ড কলেজের অধ্যক্ষ হামিদ হোসাইন, আরফা করিম উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক হোসাইন মো. ইউছুপ, মুজাফরাবাদ বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মানিক চন্দ্র কর, শাহ আমির উচ্চ বিদ্যালয়ের এসএমএকে জাহাঙ্গীর, জঙ্গলখাইন উচ্চ বিদ্যালয়ের মো.ইসহাক, দৌলতপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক নাসির উদ্দিন, জিরি খলিল-মীর উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো.হান্নানসহ বিভিন্ন বিদ্যালয়ে সমিতির নেতারা বক্তব্য রাখেন।
এসময় তারা বলেন, সরকারি শিক্ষক কর্মকারীদের ন্যায় এমপিওভুক্ত শিক্ষক-কর্মচারীদের ৫% বার্ষিক প্রবৃদ্ধি, বাংলা নববর্ষ ভাতা, বাড়ী পাড়া, পূর্ণাঙ্গ উৎসব ও চিকিৎসাভাতা, নন-এমপিও শিক্ষা প্রতিষ্ঠান শিক্ষক-কর্মচারীদের এমপিওভুক্ত করা, অবসর সুবিধা ও কন্যাণ ট্রাষ্টের তহবিলে পর্যাপ্ত অর্থ বরাদ্দ এবং অবসর গ্রহণের ৬ মাসের মধ্যে অর্থ প্রাপ্তি নিশ্চিত করা, অবসর সুবিধা ও কল্যাণ ট্রাস্টে বর্ধিত ৪% চাঁদা কর্তনের সিদ্ধান্ত স্থগিত নয় প্রত্যাহার করে গেজেট প্রকাশসহ বিক্ষিপ্তভাবে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান সরকারিকরন না করে সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান সরকারি করনের দাবি জানান।

পটিয়া প্রতিনিধি
জাতীয় শিক্ষা নীতি ২০১০ দ্রুত বাস্তবায়নসহ বিভিন্ন দাবিতে বাংলাদেশ শিক্ষক সমিতি ও বাংলাদেশ কলেজ বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির যৌথ উদ্যোগে সারাদেশের ন্যায় পটিয়ায় কর্মবিরতি পালিত হয়েছে। সোমবার সকাল ৯ টা থেকে দিনব্যাপী পটিয়ার বিভিন্ন স্কুল ও কলেজে কর্মবিরতি পালন করা হয়। উপজেলার হাইদগাঁও উচ্চ বিদ্যালয়ে বাংলাদেশ শিক্ষক সমিতির এ কর্মবিরতিতে বক্তব্য রাখেন, সমিতির পটিয়া উপজেলার সাধারণ সম্পাদক মাষ্টার শ্যামল দে, বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক রনধীর দেবনাথ, মুজাফরাবাদে স্কুলে সমিতির সভাপতি মো. ইউছুপ, এএস রাহাত আলী উচ্চ বিদ্যালয়ে ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক শাহদাতা হোসেন, শোভনদন্ডী স্কুল এন্ড কলেজের অধ্যক্ষ হামিদ হোসাইন, আরফা করিম উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক হোসাইন মো. ইউছুপ, মুজাফরাবাদ বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মানিক চন্দ্র কর, শাহ আমির উচ্চ বিদ্যালয়ের এসএমএকে জাহাঙ্গীর, জঙ্গলখাইন উচ্চ বিদ্যালয়ের মো.ইসহাক, দৌলতপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক নাসির উদ্দিন, জিরি খলিল-মীর উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো.হান্নানসহ বিভিন্ন বিদ্যালয়ে সমিতির নেতারা বক্তব্য রাখেন।
এসময় তারা বলেন, সরকারি শিক্ষক কর্মকারীদের ন্যায় এমপিওভুক্ত শিক্ষক-কর্মচারীদের ৫% বার্ষিক প্রবৃদ্ধি, বাংলা নববর্ষ ভাতা, বাড়ী পাড়া, পূর্ণাঙ্গ উৎসব ও চিকিৎসাভাতা, নন-এমপিও শিক্ষা প্রতিষ্ঠান শিক্ষক-কর্মচারীদের এমপিওভুক্ত করা, অবসর সুবিধা ও কন্যাণ ট্রাষ্টের তহবিলে পর্যাপ্ত অর্থ বরাদ্দ এবং অবসর গ্রহণের ৬ মাসের মধ্যে অর্থ প্রাপ্তি নিশ্চিত করা, অবসর সুবিধা ও কল্যাণ ট্রাস্টে বর্ধিত ৪% চাঁদা কর্তনের সিদ্ধান্ত স্থগিত নয় প্রত্যাহার করে গেজেট প্রকাশসহ বিক্ষিপ্তভাবে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান সরকারিকরন না করে সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান সরকারি করনের দাবি জানান।


আরোও সংবাদ