জনগণের অধিকার ফিরিয়ে দিলেই গণতন্ত্র বাঁচবে: রব

প্রকাশ:| শুক্রবার, ২৮ মার্চ , ২০১৪ সময় ১০:১২ অপরাহ্ণ

অত্যাচার, নির্যাতন, বিচারবহির্ভূত হত্যাকাণ্ড চালানোর পর লাখো কণ্ঠে জাতীয় সংগীত গেয়ে গণতন্ত্র রক্ষা করা যায় না। জনগণের অধিকার জনগণকে ফিরিয়ে দিলেই গণতন্ত্র বাঁচবে।

আজ শুক্রবার বিকেলে সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়া শহীদ মিনার চত্বরে এক স্মরণসভায় এসব কথা বলেন জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল (জেএসডি) সভাপতি আ স ম আবদুর রব। শ্রমিকনেতা ও সিরাজগঞ্জ জেলা জেএসডির সাবেক সাধারণ সম্পাদক সামছুল ইসলামের প্রথম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে সেলিম স্মৃতি পরিষদ এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে।

আবদুর রব বলেন, ‘ভোটবিহীন নির্বাচন, ভোটকেন্দ্র দখল ও ব্যালট বাক্স ছিনতাই করে বর্তমান সরকার জনগণের গণতান্ত্রিক অধিকার হরণ করেছে। বিজিবি, র্যাব ও যৌথবাহিনী দিয়ে স্বৈরতান্ত্রিক উপায়ে দেশ চালানো হচ্ছে। ব্রিটিশবিরোধী আন্দোলন ও স্বাধীনতাযুদ্ধ করে আমরা মানুষের যে মৌলিক অধিকার প্রতিষ্ঠা করেছিলাম, এখন তা একেবারেই ভূলুণ্ঠিত।’ তিনি প্রধানমন্ত্রীকে উদ্দেশ করে বলেন, ‘এখন আপনি একাই কথা বলেন, আর সকলের মুখে তালা লাগিয়ে দিয়েছেন। এর পরিণতি হবে ভয়াবহ।’ রব প্রধানমন্ত্রীকে বঙ্গবন্ধু, জিয়া ও ইন্দিরা গান্ধীর কাছে শিক্ষা নেওয়ার পরামর্শ দেন।

সেলিম স্মৃতি পরিষদের সভাপতি গাজী স ম আবদুল ওয়াহাবের সভাপতিত্বে স্মরণসভায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য দেন জাসদের সম্পাদক আবদুল মালেক রতন, সাবেক সাংসদ আবদুল হামিদ তালুকদার, সাবেক সাংসদ সামছুল আলম, সিরাজগঞ্জ জেলা জাসদের সভাপতি আবদুল হাই, উল্লাপাড়া উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আজাদ হোসেন, বিশিষ্ট আইনজীবী ছানোয়ার হোসেন তালুকদার, জাসদের নেতা আবদুস ছালাম, সেলিম স্মৃতি পরিষদের সাধারণ সম্পাদক শাহাদত্ হোসেন প্রমুখ।
আ স ম রব বলেন, গত ৫ জানুয়ারির সংসদ নির্বাচনে ১৫৩টি আসনের কোনো ভোটার ভোট দিতে পারেননি। তিনি সরকারের কাছে এই বিপুলসংখ্যক ভোটার কেন ভোট দিতে পারেননি, তার জবাব চান। তিনি বলেন, ‘ভোটবিহীন নির্বাচন মানুষের বুকে যে কালো দাগ ফেলে দিয়েছে, সে দাগ আপনারা কী করে মুছবেন?’ জেএসডির সভাপতি সরকারের প্রতি ইঙ্গিত করে বলেন, ‘মানুষ ভুল করতেই পারে। কিন্তু এখনো সময় আছে জনগণের কাছে ভুল স্বীকার করুন, ক্ষমা চান, দেশের গণতন্ত্র ফিরিয়ে দিন। এমন একদিন আসবে যখন আপনা আপনিই খুলে যাবে জনগণের মুখের তালা। তখন পরিণতি হবে ভয়াবহ।’