জঙ্গী ও মাদকমুক্ত করতে কমিউনিটি পুলিশের সহায়তা প্রয়োজন

প্রকাশ:| শুক্রবার, ১০ ফেব্রুয়ারি , ২০১৭ সময় ০৯:০৮ অপরাহ্ণ

শংকর চৌধুরী, খাগড়াছড়ি:
আগামী তিন মাসের মধ্যে খাগড়াছড়িকে জঙ্গী ও মাদকমুক্ত করতে কমিউনিটি পুলিশের সহায়তা প্রয়োজন। পুলিশকে ভয় না করে পুলিশ-জনগণের মধ্যে মেলবন্ধন তৈরী করতে হবে।

শুক্রবার বিকালে খাগড়াছড়ি পুলিশ লাইন্স মাঠে কমিউনিটি পুলিশ সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

খাগড়াছড়ির পুলিশ সুপার মো: মজিদ আলী’র সভাপতিত্বে সমাবেশে অন্যান্যের মধ্যে আরো বক্তব্য রাখেন খাগড়াছড়ির সংসদ সদস্য কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা, চট্টগ্রাম রেঞ্জের ডিআইজি শফিকুল ইসলাম, জেলা প্রশাসক মুহাম্মদ ওয়াহিদুজ্জামান, হেডম্যাড-কার্বারী এসোসিয়েশনের সভাপতি রণিক ত্রিপুরা, পরিবহন পুলিশ কমিউনিটির প্রতিনিধি এস.এম শফি, স্কুল পুলিশিং প্রতিনিধি শিক্ষিকা শ্রীলা তালুকদার, ব্যবসায়ী পুলিশিং কমিটির প্রতিনিধি সুদর্শন দত্ত, হেডম্যান প্রতিনিধি উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান রণিক ত্রিপুরা। এছাড়াও অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান কংজরী চৌধুরী, জেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার রইছ উদ্দিন, পৌর মেয়র রফিকুল আলম, কমিউনিটিং পুলিশির কমিটির প্রতিনিধিসহ জেলার উর্ধতন কর্মকর্তা, শিক্ষাবিদ, রাজনৈতিক ব্যক্তিবর্গ।

জঙ্গীবাদ ও মাদক নির্মূলে কমিউনিটি পুলিশ সদস্যদের সহায়তা চেয়ে তিনি আরো বলেন, বর্তমান সময়ে জঙ্গীবাদ একটি বৈশ্বিক সমস্যা। জঙ্গীসহ সমাজে বিশৃঙ্খলাকারী অপরাধীদের সামাজিক ভাবে প্রতিহত করতে হবে। আপনার জেলায় কোথায় কী সমস্যা আছে তা পুলিশকে তথ্য দিয়ে সহায়তা করুন। জনগণের সহায়তা না পেলে পেশাগত পুলিশের পক্ষে সমস্যা সমাধান করা সম্ভব নয়। কমিউনিটি পুলিশদের সহায়তায় জঙ্গীবাদ ও মাদক নির্মূলসহ সামাজিক বিভিন্ন অপরাধ স্থায়ী ভাবে সমাধান সম্ভব হবে।

এর আগে আইজিপি, জেলার মহালছড়ি উপজেলায় ৬ আর্মড পুলিশ ব্যাটলিয়ন পরিচালিত আইডিয়াল স্কুল এন্ড কলেজের উদ্বোধন শেষে, শিক্ষার্থীদের যাতায়াতের সুবিধার্থে বাস সার্ভিসের উদ্বোধন করেন এবং শিক্ষার্থীদের পরিবেশনায় মনোজ্ঞ ডিসপ্লে ও আর্মড পুলিশদের দেয়া গার্ড অব অনার গ্রহণ করেন তিনি।

শনিবার দুপুরে খাগড়াছড়ি এপিবিএন বিশেষয়িত প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে পুলিশের প্রথম কমান্ডো কোর্সের উদ্বোধন করবেন পুলিশের ইন্সপেক্টর(আইজিপি) জেনারেল এ কে এম শহীদুল হক।