‘জঙ্গিবাদ ছেড়ে স্বাভাবিক জীবনে এলে ১০ লাখ টাকা পুরস্কার’

প্রকাশ:| সোমবার, ১৮ জুলাই , ২০১৬ সময় ০৮:৪৩ অপরাহ্ণ

বেনজীর আহমেদ

জঙ্গি তৎপরতায় জড়িত কেউ স্বাভাবিক জীবনে ফিরে এলে পুরস্কার দেয়ার ঘোষণা দিয়েছে র‌্যাব। এক্ষেত্রে প্রত্যেককে ১০ লাখ টাকা করে দেয়ার কথা জানিয়েছেন র‌্যাবের মহাপরিচালক বেনজীর আহমেদ। জঙ্গি তৎপরতায় জড়িতদের বিষয়ে তথ্য দিলেও এই পুরস্কার পাওয়া যাবে। সে ক্ষেত্রে একেকজনকে দেয়া হবে পাঁচ লাখ টাকা।

দুপুরে বগুড়ায় র‌্যাবের জঙ্গিবিরোধী অভিযান শেষে গণমাধ্যমকর্মীদের এ কথা জানান র‌্যাব প্রধান।

সোমবার সকালে র‌্যাবের নেতৃত্বে পুলিশ ও বিজিবির একটি দল বগুড়ার সাড়িয়াকান্দির টেংরাকুরা চর ও ধুনটের নিমগাছীর এলাকায় চরে অভিযান চালায়। গোপন সূত্রে জঙ্গি আস্তানার খবর পেয়ে অভিযানে গেলেও তিনটি ‘জিহাদি বই’ ও কিছু ধারালো অস্ত্র ছাড়া কিছুই উদ্ধার করা যায়নি। এ সময় আইনশৃঙ্খলা বাহিনী স্থানীয় কয়েকজনকে আটক করলেও তাদের সম্পৃক্ততা না পাওয়ায় ছেড়ে দেয়া হয়।

অভিযানের কারণে র‌্যাব মহাপরিচালকও যান বগুড়ায়। তিনি জানান, শোলাকিয়ায় ঈদের জামাতের অদূরে পুলিশের ওপর হামলার পর আটক শরিফুল ইসলাম টেংরাকুড়ার আস্তানায় প্রশিক্ষণ নিয়েছিলেন।

জঙ্গি তৎপরতা কঠোর হাতে দমন করে দেশে শান্তি ফেরানোর অঙ্গীকারও করেন র‌্যাব মহাপরিচালক। সেই সঙ্গে কেউ ফিরে এলে স্বাভাবিক জীবনে ফিরতে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী সহযোগিতা করবে বলেও জানান বেনজীর আহমেদ।

গুলশানে অভিজাত রেস্তোরাঁ হলি আর্টিজানে জঙ্গি হামলার পর জানা যায়, পাঁচ হামলাকারীর মতোই বেশ কজন তরুণ নিখোঁজ রয়েছেন। এদের বেশির ভাগই উচ্চবিত্ত শ্রেণির এবং তারা পরিবারকে কিছু না জানিয়ে উধাও হয়ে গেছেন। আইনশৃ্ঙ্খলা বাহিনীর ধারণা, এই তরুণরা জঙ্গিবাদে জড়িয়ে গেছেন। এমন ১৭ জনের নাম ও ছবি প্রকাশ করে দেশ, মানবতা ও ইসলামের স্বার্থে ফিরে আসার আহ্বান জানিয়ে গণমাধ্যমে বিজ্ঞাপন প্রচার করা হচ্ছে। তবে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সূত্র বলছে, এখন পর্যন্ত নিখোঁজ হওয়া প্রায় দুইশজনের নাম জেনেছেন তারা, যাদের মধ্যে আছেন কয়েকজন তরুণীও। এদের বেশ কয়েকজন বিদেশ চলে গেছেন বলেও তথ্য পেয়েছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। আর তিনজনের একটি ‘জিহাদি ভিডিও’ প্রকাশ হয়েছে, যারা জঙ্গিগোষ্ঠী আইএসের কথিত রাজধানী সিরিয়ার রাকায় অবস্থান করছেন বলে সন্দেহ করা হচ্ছে।